শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৫:৫৪ এএম

হাতীবান্ধায় অবৈধভাবে বালু ও পাথর উত্তোলনের সময় দু’টি মেশিন জব্দ, সাংবাদিকের উপর হামলা

মোঃ ইউনুস আলী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি::
প্রকাশিত: ২:০২ পূর্বাহ্ন, ৯ অগাস্ট ২০২০, রোববার


লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় সানিয়াজান নদী হতে রাতের আধারে ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে বালু ও পাথর উত্তোলনের সময় দুটি ড্রেজার মেশিন জব্দ করে পুলিশ। এসময় সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে সাংবাদিক আব্দুর রহিমের উপর হামলা চালায় সেলিম সম্রাট নামে এক মেশিন মালিক। সাংবাদিক আব্দুর রহিমের উপর হামলার ঘটনায় প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছে হাতীবান্ধা রিপোর্টার্স ক্লাব।

শনিবার (৮ আগষ্ট) দুপুরে এ ঘটনায় অবৈধ ড্রেজার মেশিন মালিক সেলিম সম্রাটের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ করেন আহত সাংবাদিক আব্দুর রহিম। এর আগে শুক্রবার রাতে সানিয়াজান নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের সময় দুইটি মেশিন জব্দ করে হাতীবান্ধা থানা পুলিশ।

মেশিন মালিক সেলিম সম্রাট উপজেলার    বড়খাতা আদর্শ গ্রামের মোবাইল মেকার আজিজার রহমান বুলুর ছেলে।

জানা গেছে, উপজেলার সানিয়াজান নদীতে দীর্ঘদিন যাবত রাতের আধারে অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু ও পাথর উত্তোলন করে ব্যবসা করে আসছে সেলিম সম্রাটসহ  একটি চক্র। এমন একটি গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার রাতে হাতীবান্ধা থানার এসআই ও দোয়ানী পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ আব্দুস সবুর অভিযান চালিয়ে বালু ও পাথর উত্তোলনের সময় দুইটি মেশিন জব্দ করে থানায় নিয়ে আসেন।

সেলিম সম্রাট নিজেকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে অবৈধ প্রভাব খাটিয়ে দীর্ঘদিন যাবত অবৈধ বোমা মেশিন দিতে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় বালু উত্তোলন করে আসছে। তার ব্যবসার বিস্তার লাভে অন্য ড্রেজার মেশিন মালিকদের মেশিনের পাইপ সে পুলিশ নিয়ে গিয়ে ভেঙ্গে দিয়ে থাকেন বলে অনেক মেশিন মালিক না প্রকাশ না করার শর্তে বলেন।

এদিকে সাংবাদিক আব্দুর রহিমের উপর হামলার প্রতিবাদ জানিয়ে ড্রেজার মেশিন মালিক সেলিম সম্রাটকে দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা জন্য আহবান জানিয়েছে হাতীবান্ধা রিপোর্টার্স ক্লাবের নেতৃবৃন্দ।

হাতীবান্ধা রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি এ,এস,এম আলতাফ হোসেন সুমন বলেন, সাংবাদিক আব্দুর রহিমের উপর হামলাকারীর সেলিম সম্রাটকে দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা না হলে তারা পরবর্তী মানববন্ধনসহ কঠোর কর্মসূচি ঘোষনা করতে পারেন।

শুক্রবার রাতে পুলিশ সেলিম সম্রাটের মেশিনসহ দুটি মেশি জব্দ করার পর দৈনিক আজকের বিজনেস বাংলাদেশ পত্রিকার সাংবাদিক আব্দুর রহিম ওই সংবাদ সংগ্রহ করে বাড়িতে আসার পথে উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জেসমিন নাহারের স্বামী সুলতান আহম্মেদ রাজনের চায়ের নিমন্ত্রনে বড়খাতা দোয়ানী মোড়ে অবস্থিত রহমানিয়া হোটেলের বারান্দায় মোটরসাইকেল রাখলে  মেশিন মালিক ও সাংবাদিক পরিচয়দান কারী সেলিম সম্রাট অতর্কিত ভাবে পিছন থেকে সাংবাদিককে হামলা করে পালিয়ে যায়।

পরে সাংবাদিক রহিম গ্রুতর আহত হয়ে পড়লে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাতীবান্ধা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

এ ঘটনায় আহত সাংবাদিক আব্দুর রহিম  মেশিন মালিক সেলিম সম্রাটের নামে হাতীবান্ধা থানায় লিখিত অভিযোগ দেন।

অভিযুক্ত সেলিম সম্রাটের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, ব্যাটা আমার নামে অনেক কথা বলেছে তাই আমি তার উপর হামলা করেছি।

এ বিষয় হাতীবান্ধা থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি তদন্ত) রফিকুল ইসলাম বলেন, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি গুরুত্বের সাথে খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য করুন

সর্বশেষ নিউজ

আরো পড়ুন