বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ৯:০৩ এএম

সানিয়াজান নদীর বাধে পুতে রাখা ছিলো নিখোঁজ যুবকের লাশ

মোঃ ইউনুস আলী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি::
প্রকাশিত: ৯:৩৯ অপরাহ্ন, ১৭ জুলাই ২০২০, শুক্রবার


লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায়  কুকুরের খোঁড়াখুঁড়িতে সানিয়াজান নদীর বাধের মাটি থেকে বের হলো নিখোঁজ একরামুল হক (৩৫) নামে এক যুবকের লাশ। পরিবারের দাবি নুরাই নামে এক মাদক ব্যবসায়ী তাকে হত্যা করে তার লাশ মাটিতে পুতে রেখিছিলো।

শুক্রবার সন্ধ্যার পরে তার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিহত একরামুল হক ফকিরপাড়া রমনীগঞ্জ দোয়ানি মোড় এলাকার ওয়াজ আলীর পুত্র। সে ৮ দিন ধরে নিখোঁজ ছিলো। দোয়ানি মোড় এলাকায় সে অটো ইজিবাইকের চেন তুলে জীবিকা নির্বাহ করত। এর পাশাপাশি সে মাদকাসক্ত ছিলো এবং মাদক ব্যবসায় করত বলে অনেকেই জানান।

স্থানীয়রা জানান, শুক্রবার বিকালে ঐ উপজেলার ফকিরপাড়া ইউনিয়নের সানিয়াজান ব্রিজের রাবার ড্যাম বাধের মাটি খোঁড়ার চেষ্টা করে কয়েকটি কুকুর। কিচ্ছুক্ষণ পর বালুর নীচ থেকে লাশের দুই পা বেরিয়ে আসে। স্থানীয়রা তা দেখে খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে।

একরামুলের জ্যাঠা তোয়াজ উদ্দিনের অভিযোগ, তার ভাতিজাকে হত্যার পর লাশ মাটিতে পুতে রাখা হয়েছে। এ ঘটনার সাথে ওই এলাকার নুর হাই নামে এক মাদক ব্যবসায়ী জড়িত বলে দাবি করেন তিনি।

অপরদিকে, জেলার সদর উপজেলার খুনিয়াগাছা ইউনিয়নে তিস্তা নদী থেকে আনুমানিক ৩২ বছর বয়সী এক নারী ও পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী ইউনিয়নে ধরলা নদী থেকে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাৎক্ষনিক তাদের পরিচয় জানা যায়নি।

লালমনিরহাট পুলিশ সুপার আবিদা সুলতানা এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, প্রতিটি ঘটনা তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মন্তব্য করুন

সর্বশেষ নিউজ

আরো পড়ুন