বুধবার, ২৭ মে ২০২০, ২:২০ এএম

আম্ফানের তাণ্ডব ছিল ১৬ ঘণ্টা শক্তির আকারে রেকর্ড

প্রতিদিনের কাগজ ডেস্ক:
প্রকাশিত: ৯:২৯ পূর্বাহ্ন, ২৩ মে ২০২০, শনিবার


আম্ফানের তাণ্ডব ছিল ১৬ ঘণ্টা শক্তির আকারে রেকর্ড

ছবি : সংগৃহীত ।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ৮০ জন, বাংলাদেশে ২২ জনের প্রাণ নিয়ে বিদায় নিল এই শতাব্দীর প্রথম সুপার সাইক্লোনিক ঘূর্ণিঝড় আম্ফান। পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের উপকূলে তাণ্ডব চালিয়ে বাড়িঘর, বাঁধ, আম, কাঁঠাল, লিচু, মাছের ঘের সব কিছু লণ্ডলণ্ড করে দিয়েছে ঘূর্ণিঝড়টি। এখন চলছে ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণের কাজ।

আবহাওয়া অফিসের তথ্য বিশ্লেষণ করে জানা গেছে, ঘূর্ণিঝড় আম্ফান বাংলাদেশের ওপর তাণ্ডব চালিয়েছে ১৬ ঘণ্টা। পশ্চিমবঙ্গ অতিক্রম করে আম্ফানের অগ্রভাগ সাতক্ষীরার সুন্দরবন অংশে প্রবেশ করে বুধবার বিকেল ৫টায়। সাতক্ষীরা-খুলনা-যশোর হয়ে উত্তরাঞ্চলের রাজশাহীতে পরদিন সকাল ৯টা পর্যন্ত ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডব চলে। অর্থাৎ এ শুধু উপকূলীয় জেলার ওপরই সীমাবদ্ধ থাকেনি; উত্তরাঞ্চলের জেলাগুলোতেও শক্তি নিয়ে আঘাত করে আম্ফান। এরপর তা স্থলনিম্নচাপে রূপ নেয়।

আবহাওয়াবিদরা বলছেন, ঘূর্ণিঝড় আম্ফান বেশ কিছু রেকর্ড করেছে। যেটা আগের ঘূর্ণিঝড়গুলোতে দেখা যায়নি। সিডর, আইলা, মহাসেন, কোমেন, রোয়ানু, মোরা, ফণী ও বুলবুল—এই আটটি ঘূর্ণিঝড়ের সঙ্গে আম্ফানের তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে বেশ কিছু নতুন রেকর্ড মিলেছে। আম্ফান গতিপথ পরিবর্তন করেছে খুবই কম। ফণীসহ অন্য ঘূর্ণিঝড়গুলোতে দেখা গেছে, বঙ্গোপসাগর থেকে উপকূল পর্যন্ত আসতে বেশ কয়েকবার গতিপথ পরিবর্তন করেছে। আম্ফান মাত্র ১৮ ঘণ্টার ব্যবধানে এক নম্বর ক্যাটাগরি থেকে পাঁচ নম্বর ক্যাটাগরির মাত্রায় শক্তি বৃদ্ধি করতে সক্ষম হয়। বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ২৫০ কিলোমিটারের ওপরে উঠলে তখন সেই ঘূর্ণিঝড়কে পাঁচ নম্বর ক্যাটাগরি বলা হয়; যেটা আম্ফানের বেলায় ঘটেছে। আম্ফানকে বলা হয়েছে সুপার সাইক্লোনিক ঘূর্ণিঝড়। সুপার সাইক্লোন বলা হয়, যখন কোনো ঘূর্ণিঝড়ের কেন্দ্রের নির্দিষ্ট এলাকার বাতাসের একটানা গতিবেগ ২২১ কিলোমিটার অতিক্রম করে।

আবহাওয়া অফিসের তথ্য বিশ্লেষণ করে জানা গেছে, ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের ব্যাস বা আকার ছিল অন্য সব ঘূর্ণিঝড়ের চেয়ে বেশি। পশ্চিমবঙ্গ উপকূল থেকে এর ব্যাপ্তি ছিল নোয়াখালীর হাতিয়া পর্যন্ত প্রায় ৪০০ কিলোমিটার। আম্ফান যখন বাংলাদেশের উপকূলে আছড়ে পড়ে তখন বাতাসের গতিবেগ ছিল ১৬০ থেকে ১৮০ কিলোমিটার। জলোচ্ছ্বাস ছিল ১২ থেকে ১৫ ফুট উচ্চতা পর্যন্ত। গত বছর ১১ নভেম্বর ঘূর্ণিঝড় বুলবুল যখন খুলনা-সাতক্ষীরা উপকূলে আছড়ে পড়েছিল তখন বাতাসের গতিবেগ ছিল ১০০ থেকে ১২০ কিলোমিটারের মধ্যে। জলোচ্ছ্বাস ছিল স্বাভাবিকের চেয়ে চার-পাঁচ ফুট বেশি উচ্চতার। এর আগের বছর ফণীর সময় বাতাসের গতিবেগ ছিল ১০০ কিলোমিটারের নিচে।

তথ্য আরো বলছে, বিগত ঘূর্ণিঝড়ের সময় শুধু উপকূলীয় জেলাগুলোর ওপর আঘাত আসত। কিন্তু আম্ফান উপকূলীয় জেলার বাইরেও বেশ কয়েকটি জেলার ওপর তাণ্ডব চালায়। উপকূলীয় জেলা না হলেও আম্ফানে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত জেলার একটি যশোর। এ জেলায় সবচেয়ে বেশি ১২ জন মারা গেছে। আম্ফানের প্রভাব একদিকে যেমন উত্তরাঞ্চলের জেলাগুলোতে পড়েছে, তেমনি হাতিয়া পর্যন্ত বিস্তৃত ছিল। প্রভাব পড়েছে চট্টগ্রামের আনোয়ারায়ও।

বাগেরহাটের বাসিন্দা আবদুল হালিম বলছিলেন, আগের ঘূর্ণিঝড়গুলোর চেয়ে আম্ফানে জোয়ারের উচ্চতা অনেক বেশি ছিল। পানিও দেখা গেছে বেশি।

প্রভাব পড়েছে ঢাকায়ও। বুধবার রাতে ঢাকায় বাতাসের গতিবেগ ছিল ৫৬ কিলোমিটার। যেটা ফণী কিংবা বুলবুলের সময় দেখা যায়নি। বাতাসের গতিবেগ বেশি ছিল পরদিন বৃহস্পতিবার সকালেও। এ প্রতিবেদক ঢাকার বেশ কয়েকটি স্থানে গাছ উপড়ে থাকতে দেখেছেন। ঢাকায় বুধবার রাত সাড়ে ৯টা থেকে রাতভর বৃষ্টি হয়েছে। পরদিন সকালেও বৃষ্টি হয়েছে। যেটা অন্য সময় দেখা যায়নি।

আম্ফানে কী পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে, তার একটি প্রাথমিক হিসাব দিয়েছে সরকার। তাতে বলা হয়েছে, আম্ফানে এক হাজার ১০০ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ফণী-বুলবুলে এত ক্ষতি হয়নি।

সার্বিক বিষয়ে জানতে চাইলে আবহাওয়া অফিসের পরিচালক সামছুদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘বেশ কিছু কারণে অন্য ঘূর্ণিঝড়ের তুলনায় আম্ফান ছিল ব্যতিক্রম। আম্ফানের ব্যাপ্তি ছিল অন্য সব ঘূর্ণিঝড়ের চেয়ে অনেক বেশি। শক্তি এবং আকারের তুলনা করলে আম্ফানের অবস্থান অনেক ওপরে।’

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের পানি ও বন্যা ব্যবস্থাপনা ইনস্টিটিউটের সিনিয়র গবেষক ড. মোহন কুমার দাস ভারতের বিজ্ঞানী ড. রক্সি ম্যাথিউ কলের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেছেন, সাধারণত সমুদ্রপৃষ্ঠে স্বাভাবিক তাপমাত্রা থাকে ২৬ থেকে ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। কিন্তু ঘূর্ণিঝড় আম্ফান সৃষ্টির কাছাকাছি সময়ে সমুদ্রপৃষ্ঠের তাপমাত্রা ছিল ৩২ থেকে ৩৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা এ যাবৎকালের সর্বোচ্চ রেকর্ড। মোহন কুমার বলেন, ‘ট্রপিক্যাল সাইক্লোন সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে শক্তি সঞ্চয় করে। এ ধরনের উষ্ণ তাপমাত্রা ঘূর্ণিঝড়কে সুপার চার্জ করে।’

মন্তব্য করুন

খবর অনুসন্ধান

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১

সর্বশেষ নিউজ

আরো পড়ুন

Shares