সোমবার, ২৫ মে ২০২০, ১২:১৯ পিএম

ম্যাচের পরিস্থিতি দেখে পরিকল্পনা করি, বললেন কোহলি!

স্পোর্টস ডেস্ক:
প্রকাশিত: ১১:০৩ পূর্বাহ্ন, ১৯ মে ২০২০, মঙ্গলবার


ম্যাচের পরিস্থিতি দেখে পরিকল্পনা করি, বললেন কোহলি!

তামিম ইকবালের ফেসবুক আড্ডায় গতকাল অতিথি হয়ে এসেছিলেন ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। এবার অবশ্য অন্যদিনের মতো আলোচনা হয়নি। রোহিত শর্মার লাইভের দিন অনেক হালকা ব্যাপার নিয়ে আলাপ হয়েছে। ক্রিকেটীয় কথা কম ছিল। তামিম এই লাইভের বেশিরভাগ সময় ক্রিকেটের কৌশল নিয়ে কথা বলেছেন। অবশ্য লাইভের শেষে একটি চমকও দিয়েছেন।

আজ ফেসবুক আড্ডায় তামিম নিয়ে আসবেন পাকিস্তানের কিংবদন্তি ওয়াসিম আকরামকে। এ ছাড়া মিনহাজুল আবেদিন নান্নু, আকরাম খান ও খালেদ মাসুদ পাইলটও থাকবেন। ১৯৯৯ বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। সেসব দিনের স্মৃতিচারণ হবে আজ।

তামিম প্রথমেই ভারতের পরিস্থিতি নিয়ে জানতে চেয়েছেন। বাংলাদেশের মতো ভারতেও খেটে খাওয়া মানুষ অনেক। লকডাউনে বিপাকে পড়েছে তারা। তামিম ভারতের পরিস্থিতি জানতে চাইলে কোহলি বলেন, ‘ভারতে এখন কেস কমে গেছে। ধীরে ধীরে পরিস্থিতি ভালো হচ্ছে। আশা করি সব ঠিক হয়ে যাবে। আমার পরিবারের সবাই ভালো রয়েছেন। আপনার পরিবারের সবাই ভালো আছেন আশা করি।’ তামিম জানান বাংলাদেশের পরিস্থিতিও খুব একটা ভালো
নয়।

সরকার চেষ্টা করছে তবে খেটে-খাওয়া মানুষের জন্য কিছু করা উচিত। আরও অপেক্ষা করতে হবে ভালো সময়ের জন্য। কোহলি জানান, খেটে খাওয়া মানুষকে সাহায্য করতে গেলে আবার সবাই জড়ো হতে পারেন এক স্থানে। ফলে এটাও ঝুঁকিপূর্ণ। কোহলি তামিমকেও ধন্যবাদ দিয়েছেন লাইভে, আসলে আমরা একসঙ্গে বসে আড্ডা দেওয়ার সময় পাই না। সারাক্ষণই ব্যস্ত থাকি। এটা ভালো হয়েছে।

তামিম ব্যাটিংয়ের মৌলিক বিষয়ে প্রশ্ন করেন কোহলিকে। তামিম জানান এটা তার একার প্রশ্ন নয়, দলের আরও অনেকে জানতে চেয়েছে। তামিমের মূল প্রশ্ন ছিল ব্যাটিং স্ট্যান্স, রান তাড়া করা ও আত্মবিশ্বাস নিয়ে। কোহলি বলেন, ‘আসলে আমি নিজের ফিটনেসের ওপর ভর করে উইকেটের সামনে কিভাবে দাঁড়াব ঠিক করি। আমার হিপ সাহায্য করলে এটা ভালো। আর ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে আমি ভালোই খেলে ছিলাম। ম্যান অফ দ্য ম্যাচ হওয়ার পর আত্মবিশ্বাস বাড়ে। আমি ম্যাচে চাপ নেই না। যদি দেখি আমার আগে সিনিয়র আউট হয়ে গেছে। তো আমি উইকেটে নেমে চাপটাকে সুযোগ হিসেবে নিতাম।’

তামিমের প্রশ্ন ছিল, রান তাড়া করায় আপনি বেশ সফল। কোহলি একটু রসিকতা করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘ধরেন উইকেটের পেছনে মুশফিক কিছু বলে দিল। এটা আমার জন্য সাপেবড় হয়। আমি আরও অনুপ্রাণিত হয়ে যাই।’ এর পর হেসে দেন কোহলি। কোহলি জানান, তিনি বড় রান তাড়া করতে নেমে পরিকল্পনা করে ফেলেন। কিভাবে কোন ওভারগুলোয় কিভাবে খেলবেন। এ ছাড়া জানান, নিজেকে নিয়ে কোহলির কোনো দিন কোনো ব্যাপারে সংশয় নেই। তিনি দুর্দান্ত আত্মবিশ্বাসী। সামনে ঈদুল ফিতর। কোহলি বাংলাদেশের মানুষকে ঈদ মোবারক জানানোর পাশাপাশি সুস্বাস্থ্য কামনা করেছেন। এ ছাড়া করোনা মুক্তির জন্য আশাবাদও ব্যক্ত করেন।

মন্তব্য করুন

খবর অনুসন্ধান

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১

সর্বশেষ নিউজ

আরো পড়ুন

Shares