রোববার, ৩১ মে ২০২০, ৭:৫৮ পিএম

প্রশাসনের তৎপরতা সত্ত্বেও রাজারহাটে লকডাউন মানছে না কেউ

রাজারহাট (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি:
প্রকাশিত: ১০:৩৬ অপরাহ্ন, ৪ মে ২০২০, সোমবার


রাজারহাটে লকডাউন মানছে না কেউ

ছবি : সংগৃহীত ।

কুড়িগ্রামের রাজারহাটে লকডাউন মানছে না কেউ। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা সত্ত্বেও বাহিরে বের হচ্ছে মানুষ। লকডাউন ভেঙে রাজারহাট উপজেলার সদর বাজারে সামাজিক দুরত্ব না মেনেই কেনাবেচায় ব্যস্ত সবাই। প্রত্যন্ত এলাকার হাটবাজারের চিত্র আরও ভয়াবহ। প্রশাসন তথা আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর টহল চলে গেলেই সেখানে আগের মতোই জনসমাগম। এতে ক্রমেই বাড়ছে করোনা ঝুঁকি।

সরেজমিন ঘুরে এমন চিত্রই দেখা গেছে, রাজারহাট উপজেলার কাঁচাবাজারগগুলো স্থানান্তর করা হলেও সামাজিক দুরত্ব মানছেন না কেউ। এ ছাড়া বিকাল ৫ টার মধ্যে ওষুধের দোকান ব্যতীত সকল দোকানপাট বন্ধে পুলিশ প্রশাসন নিয়মিত মাইকিং করলে কেউ তা মানছে না।

তবুও জনমনে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে রাজারহাট থানা পুলিশ জনগণের মাঝে তেমন কোন সারা ফেলতে পারেনি। রাজারহাট থানা পুলিশ ও সেনাবাহিনীর টহল থাকলেও রীতিমত মটরবাইক, ইজিবাইকসহ চলছে সব ধরনের যানবাহন। এছাড়া জনতা বস্ত্রালয়, হাঁসী শাড়ি ঘর, বাটা জুতার দোকান, মেসার্স সরকার ভ্যারাইটি ষ্টোর, নুর কসমেটিকস, ভাই ভাই ক্লথ ষ্টোর, চিশতি এ্যালুমিনিয়াম, সুলভ হার্ডওয়্যার,মের্সাস ছোলেমান এন্ড ব্রাদাস, আজাদ হার্ডওয়্যার ষ্টোর,সহ সূতাঘর, পানের দোকান, টিনের দোকানসহ অনেক দোকানপাট খোলা দেখা গেছে। এ ছাড়া উপচে পড়া ভীড় ঠেলে বাজার করেছেন লোকজন। নাজিখাঁন বাজার, সিংগারডাবরীরহাট, বৌদ্দেরবাজার, মিলেরপাড় বাজার, ডাংরারহাট, রতিগ্রাম বাজার, দিনোবাজার, ফুলখাঁর চাকলা বাজার,আমতলী বাজার,রাজমাল্লীরহাট,ফরকেরহাট বাজারেও অনুরূপ দৃশ্য পরিলক্ষিত হয়।

এদিকে কুড়িগ্রাম জেলা লকডাউন ঘোষণার সাথে রাজারহাট উপজেলার যে সমস্ত দোকাটপাট বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু নামেমাত্র বন্ধ থাকলেও চলছে বেচা কেনা। রাজারহাট উপজেলার বাজারেগুলোতে প্রায় সব দোকানের সামনে বা আশে পাশেই অবস্থান করেন দোকানি বা কর্মচারি। ক্রেতা দেখলে ইশারায়/ চুপিসারে দোকানে শার্টার খুলে ভিতরে প্রবেশ করে আবার শার্টার বন্ধ করে দিয়ে ভেতরে চলে কেনাবেচা। প্রশাসনের নিয়মিত নজরদারী ও ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করার পরেও পাল্টাচ্ছে না এমন চিত্র। ফলে লকডাউন ভাঙার অসুস্থ্য এ প্রতিযোগিতা ও করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়ছেই।

অপরদিকে রাজারহাট উপজেলার করোনা সংক্রমণের পরিস্হিতি সর্ম্পকে উপজেলা স্বাস্থ্য পঃপঃ কর্মকর্তা ডাঃ শাহীনুর রহমান সরদার সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন উপজেলা স্বাস্থ্য পঃপঃ কর্মকর্তা ডাঃ শাহীনুর রহমান সরদার জানায়, রাজারহাট উপজেলায় মোট ৫৩ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে ৩ জনের পজেটিভ। বাকী সব রির্পোট নেগেটিভ।

মন্তব্য করুন

সর্বশেষ নিউজ

আরো পড়ুন