২১, অক্টোবর, ২০১৯, সোমবার

পাকিস্তানের ভেবে নিজেদের হেলিকপ্টারই ধসিয়ে দেয় ভারত

ডেস্ক রিপোর্ট : | আপডেট: ২১, অক্টোবর, ২০১৯, সোমবার

ভারতের বিধ্বস্ত হওয়া বিমান। ছবি সংগৃহীত

ভারতের বিধ্বস্ত হওয়া বিমান। ছবি: সংগৃহীত

কাশ্মীরের শ্রীনগরের বাদগামে পাকিস্তানী হেলিকপ্টার ভেবে নিজেদের এমআই সেভেনটিন ভি ফাইভ সিরিজের একটি হেলিকপ্টার ধসিয়ে দিয়েছিল ভারতীয় বিমান বাহিনী। এ ঘটনায় তাদের ৬ সদস্য এবং একজন সাধারণ নাগরিক নিহত হয়েছেন।

পাকিস্তানী ভেবে গুলি করে হেলিকপ্টারটিকে নামানোর সিদ্ধান্ত একটা ‘বড় ভুল’ ছিল বলে স্বীকার করেছেন ভারতীয় বিমানবাহিনীর প্রধান রাকেশ কুমার সিং ভাদুরিয়া। তিনি বলেন, ‘এটি একটি বড় ভুল ছিল। আমরা এটিকে মেনে নিয়েছি।’

তদন্ত শেষে এয়ার চিফ মার্শাল রাকেশ ভাদুরিয়া জানান, ‘আমাদের ক্ষেপণাস্ত্রটিই আঘাত করে ওই হেলিকপ্টারটিকে। এটি প্রমাণিত হয়েছে। তদন্তের পরিপ্রেক্ষিতে প্রয়োজনীয় প্রশাসনিক ব্যবস্থা এবং নিয়ম অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।’ যাদের ভুলে ওই ঘটনা ঘটেছে সেই দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

ভারতীয় বিমান বাহিনী পাকিস্তানের ভূখণ্ডে ঢুকে বালাকোটে জঙ্গি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে বোমাবর্ষণ করার একদিন পরেই শ্রীনগরের কাছে বাদগামে গুলি করে নামানো হয় এমআই সেভেনটিন ভি ফাইভকে।

বিচারবিভাগীয় তদন্তে দেখা গেছে, শ্রীনগর বিমানবন্দরে স্পাইডার বিমান প্রতিরক্ষা ক্ষেপণাস্ত্র সিস্টেম থেকে মিসাইল ছুঁড়ে হেলিকপ্টারটিকে নামানো হয়েছিল। বিমান বাহিনী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তারাই ওই সাংঘাতিক ভুলটি করেছেন। টেক-অফের ১০ মিনিট পরেই হেলিকপ্টারটি ভেঙে পড়ে। যেখানে সেটি ভেঙে পড়ে তার পাশেই ছিল জনবসতি। এমআই-১৭ হেলিকপ্টারটি ভেঙে দুই টুকরো হয়ে যায় এবং তাতে আগুন ধরে যায়।

পুলওয়ামাতে জঙ্গি হামলার প্রতিশোধ নিতেই সীমান্ত পেরিয়ে পাকিস্তানে ঢুকে বালাকোট অঞ্চলে বিমান হামলা চালায় ভারতীয় বাহিনী। পুলওয়ামা হামলায় ভারতের ৪০ জন সেনা নিহত হয়েছিলেন।

সূত্র: এনএনআই

আরো পড়ুন

%d bloggers like this: