১৮, জুন, ২০১৯, মঙ্গলবার | | ১৪ শাওয়াল ১৪৪০

logo-img

আজ ২৪৮ তম‘ ডিস্ট্রিক্ট কালেক্টর দিবসে কিছু কথা’

বৃটিশ শাসিত ভারতে ১৭৭২ সালের ১৪মে ওয়ারেন হেস্টিংস কর্তৃক প্রথম জেলা কালেক্টরের পদ সৃষ্টি করা হয়। ব্রিটিশ আমলে প্রথম সৃষ্ট পদটির নাম ছিলো ডিস্ট্রিক্ট কালেক্টর। এজন্য জেলা প্রশাসকের কার্যালয়কে আজও ঐতিহ্যগত ভাবে কালেক্টরেট হিসেবে অভিহিত করা হয়। পরবর্তীতে তাঁকে দায়িত্ব পালনের প্রয়োজনে ফৌজদারী বিচার ব্যবস্থার ক্ষমতা অর্পণ করা হয় এবং

তারাকান্দায় ৫ জয়িতার গল্প

বাংলাদেশ সরকাররে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের  উদ্যোগে”জয়িতা অন্বেষনে বাংলাদেশ শীর্ষক আয়োজনে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলায় ৫ জনকে নির্বাচিত করা হয়েছে। এরা হলেন আজিজা বেগম, হাসনা বেগম, সালমা আক্তার খাতুন, ছুলেমা খাতুন ও শিরিন সুলতানা। জীবন সংগ্রামে ও অর্থনৈতিক ভাবে সাফল্যে তারা নির্বিক। পেয়েছেন তারা আজ জয়িতা নারী উপাধি। সমাজে হয়েছেন

বৈবাহিক জীবনে পুরুষরাও নির্যাতিত

বিবাহিত জীবনে যে শুধু নারীই নির্যাতিত হন তা নয়। পুরুষেরাও নির্যাতিত হন। আমি শতভাগ নিশ্চিত হয়েই কথাটা বলছি। প্রশ্নটা হচ্ছে কিভাবে? অধিকাংশ মেয়ে বিয়ের পর শ্বশুরবাড়ির লোকদের দেখতে পারেনা, তাদের সাথে ভাল ব্যবহার করতে চান না আর করলেও দায় সারা ভাব থাকে। তাদের পিছনে টাকা খরচ করা নিশ্চিত অপচয় বলে

রমজানে মুড়ি তৈরিতে ব্যস্ত নলছিটির ৫ গ্রাম

রমজান মাস এলে ব্যস্ত হয়ে ওঠে ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার দপদপিয়া ইউনিয়নের মুড়িপল্লি নামে পরিচিত ৫টি গ্রাম। এখানে নাখুচি অথবা মোটা ধান থেকে দেশি পদ্ধতিতে মুড়ি ভাজা হয়। রফতানি হচ্ছে দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিদেশে। স্বাদে অতুলনীয় বলে দপদপিয়ার মোটা মুড়ির খ্যাতি ছড়িয়েছে সর্বত্র। এখানে বছরজুড়েই চলে মুড়ি ভাজা ও বিক্রির কাজ।

৪ মেয়ের পড়াশোনার জন্য লড়াই করা এক বাবার গল্প

প্রায় মধ্যরাতে রাজধানীর ফার্মগেট ফুট ওভারব্রিজের ওপর দিয়ে দ্রুত হেঁটে বাসায় ফেরার পথে দৃষ্টি গেল এক মরিচ বিক্রেতার দিকে। কয়েক ডজন বোম্বাই মরিচ নিয়ে মাথা নিচু করে বসে আছেন তিনি। মরিচ কেনার প্রয়োজন না থাকলেও শুধুমাত্র কথা বলার উদ্দেশ্যেই মরিচের দাম জানতে চাওয়া তার কাছে। কিন্তু কয়েকবার প্রশ্ন করার পরও

৬ মাসের শিশু ভাড়া খাটে দুই শিফটে

ধানমন্ডি লেক। সূর্য উঠছে। সেই সঙ্গে লেকে বাড়ছে মানুষ। প্রায় সকলের উদ্দেশ্য শরীর চর্চা করা। তবে এরই মাঝে ধানমন্ডি লেকের রবীন্দ্রসরোবর ৮নং ব্রিজের পাশে বসে পড়েছেন প্রায় ৫০ জনেক ভিক্ষুক। এদের মাঝে কয়েকজনের কোলে শিশু। বিভিন্ন বয়সের শিশু। আবার তাদের কোলের শিশুদের মধ্যে অধিকাংশই ঘুমে কাতর।মাঝে-মধ্যে জেগে উঠলে খাওয়ানো হচ্ছে

তিস্তা নদীতে নৌকা নয়, চলে গরুর গাড়ি

‘আমাদের ছোটো নদী চলে বাঁকে বাঁকে/ বৈশাখ মাসে তার হাঁটু জল থাকে।/ পার হয়ে যায় গরু, পার হয় গাড়ি,/ দুই ধার উঁচু তার, ঢালু তার পাড়ি। বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘আমাদের ছোট নদী’ কবিতাটি কালের বির্বতনে অচল হতে চলেছে। বৈশাখ আসার অনেক আগেই পানি নেই নদীতে।কোথাও হাটু পানি, কোথাওবা কম। তিস্তা

ভালোবাসার দিন আজ

ভালোবাসার দিন আজ'আমার আপনার চেয়ে আপন যে জন/খুঁজি তারে আমি আপনায়/আমি শুনি যেন তার চরণের ধ্বনি/আমারি পিয়াসী বাসনায়।' কবি নজরুলের এই আবেগমাখা অনুভূতি আজ ছুঁয়ে আছে কোটি কোটি মানুষের হৃদয়। মনের মনিকোঠায় আজ আলোর নাচন। বহুদিনের সুপ্ত বাসনাগুলো আজ ঠিকরে বেরিয়ে আসতে করছে উথালপাতাল। প্রিয় মানুষটার চোখে চোখ রেখে বলতে

ফাল্গুনে আগুন লেগেছে সবার মনে

শীত পেরিয়ে এসেছে ঋতুরাজ বসন্ত। ফাল্গুনের প্রথম দিনে যেন আগুন লেগেছে সবার মনে। সব জরা ভেঙ্গে প্রকৃতি নিজেকে রাঙিয়েছে নতুন রঙ্গে। তাই বসন্তবরনে মেতেছেন তরুণ-তরুণী। বয়সের ভেদাভেদ ভুলে বুধবার সারাদেশে সবাই মেতেছেন বসন্তবরনে। ছবিটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকার। ছবি: ফোকাস বাংলা। শীত পেরিয়ে এসেছে ঋতুরাজ বসন্ত। ফাল্গুনের প্রথম দিনে যেন আগুন লেগেছে

চারুকলায় বসন্ত বরণের রজতজয়ন্তী

বাঙালির জাতীয় জীবনে বসন্তের উপস্থিতি আদিকাল থেকেই। কবিতা, গান, নৃত্য আর প্রকৃতির রঙই যেন বসন্ত উৎসবের প্রধান অনুষঙ্গ। চারুকলার বকুলতলা মানেই বসন্ত বরণের উৎসব। আর প্রতিবছর এখানেই এই উৎসবের আয়োজন করে আসছে জাতীয় বসন্ত উৎসব উদযাপন পরিষদ। যদিও চারুকলার শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণেও অনেক ধরনের অনুষ্ঠান হয়ে থাকে।এ বছর বকুলতলায় বসন্ত বরণ

প্রধানমন্ত্রীসহ দেশের ৩৫০ মন্ত্রী-এমপির নাম ও মোবাইল নাম্বার

অনেক সময় আমাদের অনেকেরই মন্ত্রী এবং সংসদ সদস্যদের সাথে যোগাযোগের প্রয়োজন পড়ে। এমনকি প্রধানমন্ত্রীর সাথেও। আর এই যোগাযোগের জন্য একটা মাধ্যম দরকার। বর্তমান যুগে যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম হচ্ছে মোবাইল ফোন। কিন্তু প্রয়োজনের সময় কাঙ্খিত ব্যক্তির ফোন নাম্বার না থাকায় আমরা অনেক সময় অসহায় বোধ করি।প্রয়োজনের কথা বিবেচনা করে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীসহ

প্রেমিকের হাতে খুন হওয়া থেকে যেভাবে নিজেকে রক্ষা করল রিনা!

সহজ, সরল মেয়ে রিনা (ছদ্মনাম)। ২০১৩ সালে মাধ্যমিক পাশ করে নিজ জেলারই একটি কলেজে ভর্তি হয়। কলেজ জীবনটা ভালোই কাটছিল রিনার।২০১৫’র ফেব্রুয়ারিতে রিনার উচ্চ মাধ্যমিকের মডেল টেষ্ট চলছিল। প্রথম পরীক্ষার দিন দশ মিনিট লেট করার কারণে অটো-রিকশায় ওঠে রিনা।কিছু দূর যাওয়ার পরেই অটো-রিকশায় ওঠে আকাশ (ছদ্মনাম)। আকাশ রিনার কাছে তার

সবাইকে হতবাক করে বাংলাদেশী তরুণী আর নেপালী তরুণের প্রেম ও

প্রেম; এক অদ্ভুত সম্পর্কের নাম। এমনই এক সম্পর্ক যা মানে না কোন দেশ-কাল-সমাজের শৃঙ্খল। সেটিই আবার প্রমাণ হলো দুই দেশের দুটি ছেলে-মেয়ের মাধ্যমে।যেখানে বাঙ্গালীরা অনেক সময় এক জেলার মানুষ অন্য জেলার মানুষকে বিয়ে করতে চায় না, সেখানে দেশের গন্ডি ছাড়িয়ে এই প্রেমের কারণে নেপালে পাড়ি জমাচ্ছেন কুমিল্লার এক তরুণী। শত

হাসিনা না খালেদা: ভারতের উভয় সঙ্কট

অভিজিৎ মজুমদার: পাকিস্তানের পরাজিত সশস্ত্র বাহিনীর অধিনায়ক আমির আবদুল্লাহ খান নিয়াজি ১৯৭১ সালের ১৬ই ডিসেম্বর ঢাকায় তৎকালীন রমনা রেসকোর্স ময়দানে আত্মসমর্পণের দলিলে সই করেন। তার পাশে ধীর শিকারির মতো বসে ওই ঐতিহাসিক দলিলে নিয়াজির স্বাক্ষর করা প্রত্যক্ষ করছিলেন লেফটেন্যান্ট জেনারেল জগজিৎ সিং অরোরা, যিনি ছিলেন ভারত-বাংলাদেশ যৌথ বাহিনীর অধিনায়ক।পাকিস্তানের পরাধীনতার

যা বললেন রিকশাচালককে মারধোরকারী সেই নারী

বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার রাস্তায় মারমুখী ভঙ্গিতে একজন নারী এক রিকশাচালককে মারছে- এমন একটি ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পর নিজের দল আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার হয়েছেন একজন নারী।ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মকবুল হোসেন তালুকদার বিবিসি বাংলাকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।রিকশাচালককে মারধোরের ভাইরাল হওয়া

অভাবের তাড়নায় অর্ধেক মজুরীতে কাজ করে নারী

আদিকাল থেকে আজও রয়ে গেছে নারী পুরুষ শ্রমিকের পারিশ্রমিক নিয়ে বৈষম্য। একজন পুরুষ শ্রমিক তার দৈনিক  পারিশ্রমিক পান ৩০০-৪০০ টাকা, সেখানে একই কাজ করে একজন নারী শ্রমিক পায় ১৫০-১৭০ টাকা। কি আর করার আছে, কাজ না করলে যে পেটে ভাত নেই, তাই তো বাধ্য হয়ে নিম্ন পারিশ্রমিকে কাজ করেন নারী

বইয়ের ফেরীওয়ালার আত্নতৃপ্তি

পথ থেকে প্রান্তরে হাটে বাজারে হেটে হেটে ৬২ বছর ধরে বই বিক্রি করছেন গীতিকবি আবদুল হালিম। বয়েসের ভাড়ে নুয়ে পড়লেও থেমে নেই তার পথচলা। চোখের জ্যোতি কিছুটা কমে এলেও এখনও লাঠি ছাড়িা হেটে চলেন মাইলের পর মাইল। ৮২ বছরের এ অদম্য মানুষটি এখনো গ্রাম থেকে শহরের হাটে বাজারে হেটে হেটে

নিজের ঘরই মেয়েদের জন্য সবচেয়ে বিপজ্জনক স্থান!

জাতিসংঘের এক গবেষণায় দেখা গেছে, সারা বিশ্বে প্রতিদিন গড়ে ১৩৭ জন নারী তাদের পুরুষ সঙ্গী বা পার্টনার অথবা পরিবারের সদস্যদের হাতে খুন হচ্ছেন।জাতিসংঘের ড্রাগ ও অপরাধ সংক্রান্ত দপ্তর তাদের এক গবেষণায় এই পরিসংখ্যান তুলে ধরেছে।তারা বলছে, এসব তথ্য থেকে বোঝা যায় “নারীরা যে বাড়িতে থাকেন সেই বাড়িতেই তাদের নিহত হওয়ার

বিশ্বের সবচেয়ে খাটো মানুষদের তালিকায় ১৬তম বাংলাদেশ

বিজ্ঞানীরা গবেষণায় দেখেছেন, মানসম্মত শিক্ষা, উচ্চ বেতন এবং আত্মমর্যাদার সাথে খাটো হওয়ার বিষয়টি সম্পর্কিত।এছাড়া জন্মস্থানের ওপরও উচ্চতা নির্ভর করে।বর্তমানে বিভিন্ন দেশের মানুষের উচ্চতা আগের চেয়ে বেড়েছে। পাশাপাশি কিছু দেশের উচ্চতা কমেছেও। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম নিউজউইকের প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়।ই-লাইফ নামের একটি জার্নাল ১৮৯৬ সাল থেকে বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষের উচ্চতা

নিরিবিলি পরিবেশ পেলে একে-অপরকে জড়িয়ে ধরে ওরা

রাজধানীর স্বনামধন্য একটি স্কুলের মেধাবী ছাত্রী মুনা (ছদ্মনাম)। তার ঘনিষ্ঠ বন্ধু পাভেল। সমবয়সী। এক স্কুলে না পড়লেও এক ক্লাসেই ওরা পড়ে। ওরা এতটাই ঘনিষ্ঠ হয়ে পড়ে তারা স্কুল ফাঁকি দিয়ে দুজন দেখা করে বিভিন্ন পার্কে। এক দিন নয় দিনের পর দিন।একপর্যায়ে লেখাপড়ায় অমনোযোগী হয়ে পড়ে দুজনই। ক্লাসের সবচেয়ে মেধাবী ছাত্রীটি