১৯, ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, মঙ্গলবার | | ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪০

শিশুদের মনস্তাত্ত্বিক ভিত্তি পর্যবেক্ষেণেই কর্মমুখী শিক্ষার প্রয়োজন

বাংলাদেশের শিক্ষাব্যবস্থা ইংরেজ আমল থেকে আরম্ভ করে আজঅবধি চলে আসছে। এই ব্যবস্থা আসলেই পুস্তক কেন্দ্রিকই বলা চলে। পাঠ্য বইয়ের কথা গুলো কোনও রকমে মুখস্থ করে পরীক্ষার খাতায় উদ্গীরণ করতে পারলে যেন, কৃতিত্বের সহিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার অসুবিধাটি তাদের আসে না। সুতরাং এমন এ পরীক্ষায় জ্ঞানের পরীক্ষা না হলেও 'স্মৃতি-শক্তির' পরীক্ষায়

দুর্নীতিরোধেই সরকারের অবস্থান জিরো টলারেন্স

ঔপনিবেশিক আমলের ঘুনেধরা শাসনব্যবস্থা সর্বস্তরে যেন বিদ্যমান আছে। বাংলাদেশের সকল মানুষের জীবনে দুর্নীতি বিরাজ করছে। উন্নয়ন ও অগ্রগতি ধারাকে অব্যাহত রাখার প্রয়োজনে সব ধরনের নাগরিক প্রশাসন, সমাজ বা সংশ্লিষ্ট সকল প্রতিষ্ঠানকে অবশ্যই যেন দুর্নীতি মুক্ত হওয়া বাঞ্ছনীয়। এই দেশের সকল জাতিই কমবেশি দুর্নীতিগ্রস্ত কিংরা দুর্নীতিবাজ। একে অপরের সহিত অঙ্গঅঙ্গী ভাবে

জ্ঞান অন্বেষণে বই বিতরণ উৎসবের কোনো বিকল্প নেই

বই হলো, জ্ঞান অর্জন ১ম মাধ্যম। বই উৎসবটিই হচ্ছে 'আলোর উৎসব'। নতুন বছরের শুরুতে বাংলাদেশের মানুষ বিজয়ের নতুন সূর্য দেখেছে। কোমলমতী শিশু, কিশোররা অন্তহীন আনন্দের মধ্য দিয়ে জ্ঞান অর্জনের এমন এ উৎসব আগামী দিনের স্বপ্ন দেখতে প্রস্তুত হচ্ছে। সুনগারিক গড়ে তুলতে শিশু কিশোরসহ এই দেশের জনগণের হাতে বই তুলে দেওয়া

সমগ্র বাংলার ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সম্পদের উন্নয়নেই নানা

সঞ্চয় কিংবা যে কোনো বিষয়ে উৎপাদন হলো, সকল জনতার উন্নয়ন এবং সমৃদ্ধির চাবিকাঠি। ব্যক্তি সঞ্চয় বা উৎপাদন থেকে রাষ্ট্রীয় সঞ্চয় এবং উৎপাদনের উৎসেই নিজস্ব দেশ আলোকিত হয়। এ দেশের আর্থ-সমাজিক কিংবা এ দেশের রাজনৈতিক স্থিতিশীলতাকে ফিরিয়ে আনার ক্ষেত্রে, বিদ্যুতের উৎপাদন অথবা সীমিত ব্যবহারের বিকল্প উদাহরণ কিছুতে নেই, ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র বালুকণা

বিএনপি গত কয়েক মাস যাবত ভুল করছে না’

‘বিএনপি গত কয়েক মাস যাবত তেমন কোনো ভুল করছে না। এর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে এতো প্রতিবন্ধকতা সত্ত্বেও বিএনপি নির্বাচনের মাঠে লেগে আছে। এগুলো বিএনপির ভুল না করার রেকর্ড অনেক উজ্জ্বল করছে। তাদের কোনো দাবিই আওয়ামী লীগ মেনে নেয়নি, তারপরও তারা ভোটের মাঠে আছে।’সম্প্রতি একটি বেসরকারি টেলিভিশনের সরাসরি টক-শো অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ

বিএনপি নির্বাচন করতে চাওয়ায় চাপে আ.লীগ-জাপা : দিলারা চৌধুরী

রাজনৈতিক বিশ্লেষক দিলারা চৌধুরী বলেছেন, বিএনপি নির্বাচনে আসায় জাতীয় পার্টি ও আওয়ামী লীগ একটু বেকায়দায় পড়েগেছে। জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ অসুস্থ হয়ে সিএমএইচে গেছেন। গতবার নির্বাচনেও এমন হয়েছিলো। রাজনৈতিক দলগুলোর আসন ভাগাভাগি বিষয়ে বিবিসি বাংলাকে তিনি এ কথা বলেন।দিলারা চৌধুরী বলেন, আওয়ামী লীগ থেকে জাতীয় পার্টিকে যে আসনগুলো

সরকারের দীর্ঘ সময়েই শিক্ষা উন্নয়নের বাস্তবায়ন ও পরিকল্পনা -নজরুল

শিক্ষা বা জ্ঞানই মানুষের জীবন ধারণ ও উন্নতির জন্যে প্রধানতম সহায়ক বা নিয়ামক। একদা গুহা বাসী আদিম মানব আজ যে বিস্ময়কর সভ্যতার বিকাশ ঘটিয়েছে তার পেছনেই রয়েছে মানুষের যুগ যুগান্তরের অর্জিত জ্ঞান এবং অর্জনের প্রক্রিয়া। সেই প্রক্রিয়ার নামই শিক্ষা। তাই শিক্ষাকে জাতির মেরুদণ্ড বা শিক্ষা জাতির উন্নতির পূর্বশর্ত। মেরুদণ্ড ছাড়া

ঘুণপোকার ঘনঘটা

সিদ্ধান্তটা নেয়ার পর থেকেই শরীরে কেমন একটা আলসেমিতে ভরে গিয়েছে নিসাদের। একটু হালকা হালকা লাগছে ভেতরে ভেতরে। নিসাদ খুনটা করবে বলে মনস্থির করলো। ঘাড় ঘুরিয়ে দেয়াল ঘড়িটা দেখল। রাত পৌনে এগারোটা। গতকাল সন্ধ্যার পর থেকেই সিদ্ধান্ত হীনতায় ভুগছিল নিসাদ। গতকাল রাত থেকে আজ বিকাল অবদি সিদ্ধান্তে, "না" ছিল। হঠাৎ রাহেলা

নারীর ক্ষমতায়ন ও উন্নয়নে জন্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গুরুত্ব অদ্বিতীয়

নারী সম্ভবত মহাজগতের সবচেয়ে আলোচিত এক প্রাণী, এ কথা বলেছিলেন ভার্জিনিয়া উলফে, তিনি নিজে এবং নারী সমাজের জন্যেই একটি নিজস্ব কক্ষ চেয়েছিল, কিন্তু তা পান নি। এমন এ ধারার আলোচনাতেই তাঁর পতিপক্ষের সবাই অংশ নিলেও শুধু যার সম্পর্কে অনেক গভীর আলোচনা, সেই নারীই বিশেষ সুযোগ পায় নি অংশ নেয়ার। বলতেই

মেয়েকে ধর্ষকের হাতে তুলে দেয়ার করুণ কাহিনী

সময় রাত ২টা ৪৫ মিনিট। ডিউটি ডাক্তার সবে মাত্র বিশ্রাম নেয়ার জন্য ঘুম ঘুম চোখে বিছানায়। ইমারজেন্সি থেকে কল আসল। চোখের পাতায় ঘুম ঠেসে, ইমারজেন্সিতে এসে চমকে যাওয়ার মত অবস্থা। মহিলা রোগী, পরনের চাদর রক্তে ভেজা। মুখের রঙ ফ্যাকাসে, সাদা। কাপড় দেখেই বোঝা যাচ্ছে নতুন বিয়ে হয়েছে।রোগীর নাম ফুলি (ছদ্দ

বঙ্গবন্ধুকে হত্যার প্রধান মাষ্টার মাইন্ড ছিলেন জিয়া- অপু উকিল

সর্বকালের শেষ্ঠ বাঙ্গালি স্বাধীন বাংলা অভূদ্বয়ের নায়ক জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানকে নির্মমভাবে স্বপরিবারে হত্যার মূল ষড়যন্ত্রকারী বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার সেই কালো রাতে জিয়া সেদিন খুনিদের সাথে অস্ত্রহাতে দানবীয়রূপে ধানমন্ডির বাড়িতে উপস্থিত না থাকলেও সর্ম্পূর্ণ পরিকল্পনা জানতেন এবং সরাসরি পরিকল্পনার সাথে যুক্ত ছিলেন। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার  প্রধান

সারাদেশেই যুব মহিলা লীগ সুসংগঠিত -পারুল আক্তার মল্লিক

বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগ জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় ও অধ্যাপিকা অপু উকিলের নেতৃত্বে নারী জাগরণের শক্তিশালী রাজনৈতিক সংগঠন। যে সংগঠনটি দলীয় সকল কার্যক্রমসহ নির্বাচনমুখী প্রচারে অগ্রনী ভূমিকা পালন করে থাকে। বিগত দিনেও গাজীপুর, রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক অপু উকিলের নেতৃত্বে যুব মহিলা

বিএনপির ক্যাডার বাহিনী সুন্দর একটি আন্দোলনকে সহিংস করে তোলতে

শিক্ষার্থীদের নিরাপদ সড়কের আন্দোলনকে যারা কুচক্রান্তের মাধ্যমে, গুজব ছড়িয়ে, উসকানি দিয়ে, শিক্ষার্থীদের শিক্ষা জীবন হুমকির মুখে ফেলতে ভয়াবহ ষড়যন্ত্র করেছে এবং আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে হামলা করেছে, সেই সাথে শিক্ষার্থী ও সাংবাদিকদের মারধর করে আহত করেছে, তাদের সবাইকে বিচারের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। বিএনপি নেতারা শিক্ষার্থীদের

দেশ ও জনগনের কল্যাণে নিবেদিত প্রান শেখ হাসিনা -পারুল

জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে এগিয়ে যাবে এটা যেমন দ্রুব সত্য ঠিক তেমনি আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এদেশের মানুষ দেশ ও জনগনের স্বার্থে নৌকায় ভোটদিয়ে আওয়ামীলীগকে রাষ্ট্র ক্ষমতায় নিয়ে আসবে। কারন এদেশের জনগন বোকা নয় যে বিএনপি জামাতের চক্রান্তে পড়ে দেশের স্বার্থ নষ্ট করে দিবে। কারন এগিয়ে যাওয়া

আগে সু-শিক্ষা গ্রহন করুন, পরে দেশ শাসনের চিন্তা করুন

নিরাপদ সড়ক চাই ইস্যুতে বিএনপি-জামাত আন্দোলনরত কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ব্যবহার করে তারা তাদের ক্ষমতার যাওয়ার লিপ্সা ব্যর্থ হয়েছে। কেউ কেউ ক্ষমতায় যাবার লোভে আর কেউ আবার ক্ষমতার উচ্ছিস্ট ভোগের দৌড়ে উন্মাদ হয়ে আপনারা দেশের ভয়ানক ক্ষতি করে দিলেন। সুন্দর সুশৃঙ্খল একটি আন্দোলনের শুরু করা এবং সফল হওয়া শিক্ষার্থীরা কেবল আপনাদের অপব্যবহারের

আপনাদের ক্ষমতার লোভে বাচ্চারা অপব্যবহার থেকেও রেহাই পায়নি

কেউ কেউ ক্ষমতায় যাবার লোভে আর কেউ আবার ক্ষমতার উচ্ছিস্ট ভোগের দৌড়ে উন্মাদ হয়ে আপনারা দেশের ভয়ানক ক্ষতি করে দিলেন। চমৎকার একটি আন্দোলনের শুরু করা এবং সফল হওয়া বাচ্চারা কেবল আপনাদের অপব্যবহারের শিকার হয়ে মিথ্যে বলা, ভন্ডামি আর প্রতারনা শিখে গেল, আপনারাই ধরে ধরে শেখালেন। মৃত্যু, ধর্ষন, চোখ তুলে নেবার

শেখ কামাল বাঙালির আধুনিক ক্রীড়াসৃজন ও মননের জ্যোতির্ময় প্রতীক

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট একদল দিগ¦ভ্রান্ত সেনাবাহিনী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বেগম ফজিলাতুন্নেছা, শেখ কামাল, শেখ জামাল, সুলতানা কামাল, শিশু রাসেলসহ ঢাকায় অবস্থানরত পরিবারের সকল সদস্যকে নির্মমভাবে হত্যা করে। ইতিহাসের বর্বরোচিত এই নির্মম ঘটনায় জাতি শোকবিহ্বল। আগস্ট মাসকে জাতি শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছে। সেখানে একজন ‘ক্রীড়াপ্রাণ’ শেখ কামালকে আমরা

ঘরে ফিরে যাও, তোমরা সফল

সম্প্রতি সড়ক দুর্ঘটনায় সহপাঠী হারানোর শোকে-দুঃখে-ক্ষোভে এক সপ্তাহ ধরে রাজপথ দখল করে রেখেছে রাজধানীর বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। নিরাপদ সড়কের দাবিতে তারা গড়ে তুলেছে দুর্বার আন্দোলন। সরকারের প্রতি ৯ দফা দাবি জানিয়ে তা বাস্তবায়নের জন্য তারা আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে। দাবানলের মতো তাদের সেই আন্দোলন ছড়িয়ে পড়েছে সারা দেশেও। বাধ্য হয়ে সরকার

কবে রোধ হবে বাল্যবিবাহ?

দেশ ও সমাজকে এগিয়ে নেওয়ার ক্ষেত্রে পুরুষের পাশাপাশি নারীর অবদান অনেক বেশি। উন্নত বিশ্বে পুরুষের পাশাপাশি দেশ গড়ায় নারীরাও সমান তালে অবদান রেখে চলেছেন। বাংলাদেশে নারীর ক্ষমতায়ন বৃদ্ধি পেলেও এখনো অনেক নারীর জীবন বাল্যবিবাহের কারণে চার দেয়ালের মধ্যে বন্দী হয়ে যায়। এতে করে সংসার-জীবন বুঝে ওঠার আগে খুব কম বয়সে

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনী ইশতেহারসহ লিটনের কিছু কথা

রাজশাহীর উন্নয়নের দক্ষ নেতা, ক্ষমতাশীন আওয়ামী লীগের জনপ্রিয় নেতা এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন সহ অনেক নেতা কর্মীরা মিলিত হয়ে যেন জয়ের হিসাব নিকাশ কষে নির্বাচনী প্রচারণায় চালিয়ে যাচ্ছেন। রাজশাহী সিটি নির্বাচনে মেয়র পদপ্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন নির্বাচনী ইশতেহারও ঘোষণা করেছেন।তিনি রাজশাহী মহা নগরীর সাবেক ও সফল মেয়র জাতীয় ৪