শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:২৬ পিএম

নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করেই চলছে ফুলপুরের রংধনু হাসপাতাল ও মাসুক ডায়াগনোস্টিক

বিশেষ প্রতিবেদক:
প্রকাশিত: ২:১৫ অপরাহ্ন, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার


ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলা সদরে রংধনু হাসপাতাল প্রাইভেটে রোগীদের সরলতার সুযোগ নিয়ে চলছে চিকিৎসার নামে ধোঁকাবাজি। সরকারী নিয়ম অনুযায়ী হাসপাতালটির কাগজ পত্র না থাকলেও কর্তৃপক্ষের নাকের ডগায় বসে ব্যাবসা চালাচ্ছেন দেদারছে।
নামমাত্র মেডিকেল অফিসার দিয়ে মেজর/মাইনর অপারেশনে রোগীর অজ্ঞান দেওয়া ও সার্জারিতে কোনরকম ডিগ্রী বা কোর্স সমাপ্ত না করা সার্জন দিয়ে অপারেশন করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ দিনদুপুরে মানুষের পকেট কেটে রাতারাতি কামিয়ে নিচ্ছে লক্ষলক্ষ টাকা। অনুসন্ধান করে জানা যায়, নেপথ্য খলনায়ক হিসাবে কাজ করছেন খোকন গং রা, যে খোকনের দু-তিন বছর আগেও দিন চলত টানাটানি করে আজ হঠাৎ করেই সে ফুলপুরে মাশুক ডায়াগনস্টিক ও রংধনু নামে দুটি অবৈধ প্রতিষ্ঠানের কথিত পরিচালক প্রধান। নিজেকে প্রভাবশালীদের আতœীয় স্বজন বলে পরিচয় দেন তিনি। লোকাল প্রশাসন ম্যানেজ করে চলেন বলে কেউ কিছুই বলতে সাহস পায়না তাকে ও তার সহযোগীদের। ডাঃ মাজহারুল হক সজীব ও ডাঃ রাজিয়া সুলতানা ঈশিতা দম্পতি দুজন-ই সরকারি চাকুরী করেন, ডিউটি করেন করোনা ইউনিটে।
এক সপ্তাহ ডিউটি শেষ করে ১৪ দিন কোয়ারিন্টাইনে না থেকে দুজনি চেম্বার করেন ফুলপুরে মাশুক ডায়াগনস্টিকে ও সিজার করেন রংধনু হাসপাতালে। ডা. সজীব অজ্ঞানের ডিএ কোর্স না করেই রোগী অজ্ঞান করেন ও ডা. ঈশিতা গাইনীর কোন কোর্স সমাপ্ত না করেই সিজার করেন যা দন্ডনীয় অপরাধ। অহরহ দুর্ঘটনা ঘটছে, যা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন মাধ্যমে ধামাচাপা দেওয়ার খবর রয়েছে।
এব্যাপারে জানতে চাইলে ডাঃ মাজহারুল হক সজীব ও ডাঃ রাজিয়া সুলতানা ঈশিতাকে একাধিকবার কল করলেও তারা মুটোফোন রিসিভ করেননি।

মন্তব্য করুন

সর্বশেষ নিউজ

আরো পড়ুন