শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৭:১৮ এএম

অনলাইন স্কুলে সেরা শিক্ষক আব্দুর রাজ্জাক রুবেল

মোঃ ইউনুস আলী, লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ:
প্রকাশিত: ৮:০৭ অপরাহ্ন, ১২ সেপ্টেম্বর ২০২০, শনিবার


ছবি : সংগৃহীত

কারোনায় পুরোপুরি সফলতা না আসলেও এ সময়ে অনলাইন স্কুলের মাধ্যমে ক্লাস নিয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছেন সহকারী শিক্ষক আব্দুর রাজ্জাক রুবেল। অলস শিক্ষার্থীদের করে তুলেছেন লেখাপড়ায় মনোযোগী। অনলাইনে ৩৫ টি ক্লাসের মধ্যে ১৮টিতে অর্জন করেছে শ্রেষ্ঠ শিক্ষকের মর্যাদা।

আব্দুর রাজ্জাক রুবেল লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার আলহাজ্ব সমসের উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের গনিত বিভাগের সহকারী শিক্ষক। এবং পশ্চিম বেজ গ্রাম এলাকার এচাহাক উদ্দিনের ছেলে। তিনি রংপুর অনলাইন স্কুলে এ পর্যন্ত ৩৫ টি ক্লাস নিয়ে ১৮ টি ক্লাসে শ্রেষ্ঠ শিক্ষকদের তালিকায় স্থান দখল করে নিয়েছেন। এ ছাড়া তিনি আইসিটি৪ই’র শিক্ষা বাতায়নের জেলা অ্যাম্বাসেডর হিসেবেও নির্বাচিত হয়েছেন।

জানা গেছে, কারোনা ভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে যখন সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলো মাসের পর মাস বন্ধ। তখন শিক্ষা মন্ত্রণালয় সংসদ টেলিভিশনের মাধ্যমে অনলাইন ক্লাস চালু করেন। একই সময় লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ করিমউদ্দিন পাইলট পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক খুরশিদুজ্জামান আহম্মেদ রংপুর অনলাইন স্কুল চালু করেন। ওই অনলাইন স্কুলের মাধ্যমে ক্লাস নেয়া শুরু করেন আব্দুর রাজ্জাক রুবেল। তার ক্লাস শিক্ষার্থীদের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলে। রংপুর অনলাইন স্কুলে তার ক্লাস দেখে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তার সাথে যোগাযোগ করে তাদের নিজস্ব অনলাইল স্কুলে ক্লাস নিতে আব্দুর রাজ্জাককে প্রস্তাব দেন।

আব্দুর রাজ্জাক রুবেল করোনা কালীন সময়ে এ পর্যন্ত লালমনিরহাট জেলার পাশাপাশি কুড়িগ্রাম, নীলফামারী, পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও, চট্টগ্রামসহ দেশের ২৪ টি অনলাইন স্কুলে ২ শত ৫৩ টি ক্লাস নিয়েছেন। শুধু রংপুর অনলাইন স্কুলে ৩৫টি ক্লাস নিয়ে ৭ টি ক্লাসে প্রথম, ৬ টিতে ২য় ও ৫ টিতে ৩য় হয়ে মোট ১৮ টি ক্লাসে শেষ্ঠ শিক্ষক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন।

পাশাপাশি আব্দুর রাজ্জাক রুবেল করোনা কালীন সময়ে মুক্তপাঠ কোর্সে অংশ নিয়ে ৩৫ টি সনদ পেয়েছেন। মাইক্রোসফট এডুকেশন সেন্টার থেকেও ৪০ টি সনদ অর্জন করেছেন এ শিক্ষক। এ ছাড়া শিক্ষক বাতায়নে নিয়মিত কনটেন্ট আপলোড করছেন আব্দুর রাজ্জাক রুবেল।

এ বিষয়ে আব্দুর রাজ্জাক রুবেল বলেন, করোনা কালীন সময় শিক্ষার্থীদের শিক্ষা সহায়তা দিতে প্রথমে আমি আমার বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বাড়ি বাড়ি যাওয়া শুরু করি। পরে যখন রংপুর অনলাইন স্কুলের মাধ্যমে ক্লাস নেয়ার সুযোগ পাই তখন আমার ওই পরিকল্পনায় ভিন্ন মাত্রা পায়। আমি রংপুর অনলাইনের পাশাপাশি আরো ২৪ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অনলাইন স্কুলে ক্লাস নিচ্ছি। যত দিন পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে না তত দিন আমি অনলাইনে ক্লাস নিবো।

রংপুর অনলাইন স্কুলের পরিচালক ও কালীগঞ্জ করিমউদ্দিন পাইলট পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক খুরশিদুজ্জামান আহম্মেদ বলেন, অনলাইনে ক্লাস বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। শিক্ষার্থীরা এখন অনলাইন ক্লাস থেকে শিক্ষা গ্রহন করছেন। অনলাইনে ক্লাস নিয়ে কয়েক জন শিক্ষক রংপুর অনলাইন স্কুলের মাধ্যমে বেশ সাড়া জাগিয়েছে শিক্ষার্থীদের মাঝে। তাদের মধ্যে আব্দুর রাজ্জাক রুবেল একজন। তার ক্লাসে শিক্ষার্থীরা মুগ্ধ। আমি সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোকে অনলাইনে ক্লাস চালু করার পাশাপাশি সকল শিক্ষককে অনলাইন ক্লাস নেয়ার আহবান করবো। একই সাথে শিক্ষার্থীদের আহবান করবো সময় নষ্ট না করে অনলাইন ক্লাসে মনযোগী হতে।

এবিষয়ে তার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক নুর মোহাম্মদ বলেন, আব্দুর রাজ্জাক রুবেল স্কুলের প্রাণ। তার উপস্থিতি ও পাঠদান আমাকে বিমোহিত করেছে। সে করোনাকালীন সময়ে নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি দেশের বিভিন্ন স্থানে পরিচালিত অনলাইন স্কুলে ক্লাস নিয়ে অলস শিক্ষার্থীদের শিক্ষাদানে সকলের অনুকরণ হয়ে থাকবে।

হাতীবান্ধা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কর্ন্দপ নারায়ন বলেন, সংসদ টেলিভিশনের পাশাপাশি অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অনলাইনে ক্লাস চালু করেছেন। আলহাজ্ব সমসের উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আব্দুর রাজ্জাক রুবেলসহ কয়েকজন শিক্ষক নিয়মিত অনলাইনে ক্লাস নিয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে বেশ সাড়া জাগিয়েছে।

জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ বলেন, কোন সরকারি বেসরকারি ও উন্নয়ন প্রতিষ্ঠানের সাহায্য সহযোগিতা ছাড়াই  আই আপদকালীন সময়ে অনলাইন স্কুলে পাঠদানের মাধ্যমে তিনি কোমলমতি শিক্ষার্থীদের মাঝে প্রশংসার দাবিদার।

মন্তব্য করুন

সর্বশেষ নিউজ

আরো পড়ুন