শনিবার, ৪ জুলাই ২০২০, ৫:৩০ পিএম

মেস ভাড়া এক তৃতীয়াংশ মওকুফ

মোকছেদুল মুমিন, নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:
প্রকাশিত: ৮:০২ অপরাহ্ন, ২৬ জুন ২০২০, শুক্রবার


মেস ভাড়া এক তৃতীয়াংশ মওকুফ

ফাইল ফটো

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় চলমান করোনা সমস্যায় মানবিক বিবেচনায় ৩৩ শতাংশ ভাড়া মওকুফ করলেন সকল মেস মালিকেরা।

২৫জুন (বৃহস্পতিবার) বিকেলে ত্রিশাল উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে এই সিদ্ধান্ত হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, ত্রিশাল পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব এবিএম আনিছুজ্জামান আনিছ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোস্তাফিজুর রহমান,সহকারী কমিশনার (ভূমি) ত্রিশাল তরিকুল ইসলাম তুষার,বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি মোঃ নজরুল ইসলাম,ছাত্র উপদেষ্টা ও সহযোগী অধ্যাপক ড. শেখ সুজন অালী,বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল হাসান রাকিব, পৌরসভার ১নংওয়ার্ড কাউন্সিলর রেজাউল করিম সেলিম, বিশ্ববিদ্যালয় মেস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক উজ্জল আকন্দ, বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক রাশেদুজ্জামান রনিসহ মেস মালিক সমিতি ও স্থানীয় সাংবাদিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য -গত প্রায় চার মাস যাবৎ দেশে নভেল করোনার আতংক ও সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় এর প্রতিরোধে সরকার দেশে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করলে নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ও বন্ধ ঘোষণা করা হয়।
সময়ের দীর্ঘতম এই বন্ধ থাকা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের হাজার হাজার ছাত্র-ছাত্রীরা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় বসবাসকারী ব্যক্তি মালিকানা মেস গুলোতে তালা দিয়ে যার যার বাড়িতে চলে যায়।

দেশের এই দুর্দিনে মানবিক বিবেচনায় নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় মেস মালিক সমিতি সকল ছাত্র-ছাত্রীদের কথা চিন্তা করে প্রথমে ১মাসের ভাড়া মওকুফ করেন । এই সিদ্ধান্তটি অসম্পর্ণ থাকলে বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশাসন,সা.সম্পাদক রাকিবুল হাসান রাকিব ও বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকর উদ্যোগে আনুষ্ঠানিক আলোচনার জন্য আহবান জানানো হয়। আহবানে সাড়া দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ও মেস মালিক সমিতি ঐক্যমত পোষণ করলে ২৫ জুন (বৃহস্পতিবার) উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে আলোচনা সভার
আয়োজন করা হয়।

মেয়র ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার দ্বয়ের প্রস্তাবের ভিত্তিতে উভয় পক্ষের ফলপ্রসূ আলোচনায় করোনাকালীন সময়ের জন্য ৩৩শতাংশ ভাড়া মওকুফের বিষয়টি চূড়ান্ত হয়।

পরে মেস মালিক সমিতির সভাপতি প্রকৌশলী লূৎফর রহমানের সাথে মুঠোফোনে কথা বললে তিনি জানান, সারাদেশ যখন করোনা প্রতিরোধে সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে এখানে আমরাও আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের কথা বিবেচনা করে ৩৩শতাংশ ভাড়া মওকুফ করেছি যা প্রতি তিন মাসে প্রায় ২কোটি টাকার সমপরিমান। মেস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক উজ্জল আকন্দ বলেন,বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় ব্যক্তি মালিকানা মেস গুলোতে প্রতি মাসে প্রায় ২কোটি টাকা আসে।মানবিক দিক বিবেচনা করে ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য আমরা ৩৩শতাংশ ভাড়া মওকুব করে দিয়েছি। বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকে আমাদের সহযোগীতা ছিল এবং সবসময় সহযোগীতা অব্যাহত থাকবে।

আর আমাদের এটাও ভাবতে হবে মেসের ভাড়াই আমাদের আয়ের প্রধান উৎস।

এছাড়া কোন ধরণের শর্ত নেই মেস ছাড়ার ক্ষেত্রে আগের নিয়মই থাকবে, এপ্রিল থেকে দূর্যোগ চলাকালীন সময় পর্যন্ত এ কার্যকর এ নিয়ম অব্যাহত।

মন্তব্য করুন

সর্বশেষ নিউজ

আরো পড়ুন