বৃহস্পতিবার, ১৬ জুলাই ২০২০, ২:২৫ এএম

বাগেরহাটে ৫ জন করোনায় আক্রান্ত

শেখ সাইফুল ইসলাম কবির, বাগেরহাট প্রতিনিধি:
প্রকাশিত: ১০:০০ অপরাহ্ন, ১৮ জুন ২০২০, বৃহস্পতিবার


বাগেরহাটে ৫ জন করোনায় আক্রান্ত

প্রতীকী ছবি

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ -রামপাল উপজেলার গৃহবধূসহ ৫ জনের করোনায় সনাক্ত হয়েছে। বৃহস্পতিবার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: মুফতি কামাল হোসেন গৃহবধূর তানিয়া (৩১) করোনা পজেটিভের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। অপরদিকে আমতলী বাজারের তাহেরা ফার্মেসীর মালিক মোতাসিম বিল্লাহ (৪৫)করোনা পজেটিভ।রামপালের ২ জনের করোনা পজেটিভ রিপোর্ট পাওয়া গেছে।

বারইখালী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান শফিকুর রহমান লাল জানান, উত্তর সুতালড়ী গ্রামের ২ সন্তানের জননী তানিয়া ও তার স্বামী সোহাগ হাওলাদার চট্রগ্রামে দিনমজুরের কাজ করত। গত দুই মাস আগে তারা গ্রামের বাড়ি আসে। চলতি মাসের ৬ জুন ঐ গৃহবধূ খুমেক হাসপাতালে অসুস্থ মাকে দেখতে যান। সেখান থেকে ১০ জুন বাড়িতে আসে। সে সময়ই স্থানীয় লোকজনের অভিযোগে তাদের বাড়ি লকডাটন করা হয়। এরই মধ্যে তানিয়া জ¦র সহ করোনার উপসর্গ দেখা দিলে ১৫ জুন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: মুফতি কামাল হোসেন মুঠোফোনে জানান, তানিয়ার বর্তমান অবস্থা কিছুটা ভালো হলেও শুক্রবার তাকে হাসপাতালের আইসোলেশন বিভাগে ভর্তি করা হবে। ইতোমধ্যে তাদের আশেপাশের চারটি বাড়ি লকডাটন করা হয়েছে। পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নমুনা সংগ্রহ করা হবে।

অপরদিকে মোরেলগঞ্জ উপজেলার আমতলী বাজারের তাহেরা ফার্মেসীর মালিক মোতাসিম বিল্লাহর করোনা পজেটিভ। সীমান্তবর্তী শরণখোলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তার নমুনা পরীক্ষা করা হয়। শরণখোলা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: ফরিদা ইয়াসমিন মুঠোফোনে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ।রামপালে প্রায় ১ মাস ধরে করোনা মুক্ত থাকার পর আবারও ২ জনের করোনা পজেটিভ রিপোর্ট পাওয়া গেছে। এঘটনায় তাৎক্ষনিকভাবে উপজেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য দপ্তরের পক্ষ থেকে ৮টি বাড়ি লক ডাউন ঘোষনা করা হয়েছে। আক্রান্তরা বাড়িতে বসেই চিকিৎসা নিচ্ছেন। রামপাল উপজেলা প্রশাসন ও রামপাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স দপ্তর সূত্রে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।

এ বিষয়ে রামপাল উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা সুকান্ত কুমার পাল মুঠোফোনে দুই জনের করোনা পজেটিভ হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

রামপাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তুষার কুমার পাল মুঠোফোনে জানান, উপজেলার শ্রীফলতলা গ্রামের ইকলাস মোল্যার জামাই শেখ শাওন (২৬) বাগেরহাটের একটি বেসরকারি অফিসে চাকুরীরত অবস্থায় অসুস্থ্য হয়ে পড়েন। পরে তার নমুনা সংগ্রহ করে খুলনা পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হয়। শেখ শাওন নড়াইল জেলার লোহাগড়া উপজেলার দত্তনগর গ্রামের বাসিন্দা। তিনি তার শশুর বাড়িতেই বসবাস করেন। অপর জন আশিক কুমার দাস (৩০) উপজেলার সন্তোষপুর গ্রামে তার শশুর শ্যামল হালদারের বাড়িতে থাকেন। তিনি ও খুলনার একটি অফিসে কাজ করার সুবাদে খুলনায় যাতায়াত করতেন।

উপজেলাবাসীকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। কেউ স্বাস্থ্য বিধি না মেনে বের হলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। উল্লেখ্য বুধবার পর্যন্ত ১০৫ জনের নমুনা সংগ্রহ করে খুলনার পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হলে এর মধ্যে ৬৯ টির রিপোর্ট পাওয়া যায় এবং ৫ জনের করোনা পজেটিভ পাওয়া যায়।

মন্তব্য করুন

সর্বশেষ নিউজ

আরো পড়ুন