২৩, আগস্ট, ২০১৯, শুক্রবার | | ২১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০


পাইকগাছায় বাঁধ ভেঙ্গে দেলুটির ৩ গ্রামের বিস্তির্ণ এলাকা প্লাবিত

রিপোর্টার নামঃ পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি: | আপডেট: ১৪ আগস্ট ২০১৮, ০৬:৪০ পিএম

পাইকগাছায় বাঁধ ভেঙ্গে দেলুটির ৩ গ্রামের বিস্তির্ণ এলাকা প্লাবিত
পাইকগাছায় বাঁধ ভেঙ্গে দেলুটির ৩ গ্রামের বিস্তির্ণ এলাকা প্লাবিত

পাইকগাছায় বাঁধ ভেঙ্গে জোয়ারের উপচে পড়া পানিতে দেলুটি ইউনিয়নের ৩টি গ্রাম প্লাবিত হয়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। জলমগ্ন হয়ে পড়েছে কয়েক’শ পরিবার। পানিতে তলিয়ে গিয়ে শত শত বিঘা জমির ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ভেসে গেছে অসংখ্য চিংড়ি ঘেরের মাছ।

দেলুটি ইউপি চেয়ারম্যান রিপন কুমার মন্ডল জানান, ইজারাদারের খামখেয়ালী ও অবহেলার কারণে সোমবার দুপুরে বাঁধ ভেঙ্গে চকরিবকরি বদ্ধ নদীর জোয়ারের উপচে পড়া পানি ভিতরে প্রবেশ করে ইউনিয়নের গেওয়াবুনিয়া, চকরিবকরি ও পারমধুখালী সহ ৩টি গ্রামের বিস্তির্ণ এলাকা প্লাবিত হয়।

এলাকাবাসী তাৎক্ষণিকভাবে বাঁধটি মেরামত করলেও সকালে পুনরায় ভেঙ্গে যায়। ফলে দু’দফা ভাঙ্গনের কারণে জোয়ারের পানিতে এলাকার বিস্তির্ণ এলাকা পুনরায় তলিয়ে যায়। এতে ফসল ও চিংড়ি ঘেরের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হওয়া সহ কয়েক’শ পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। এলাকাবাসীর সহযোগিতায় ক্ষতিগ্রস্থ বাঁধ মেরামত করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

তবে সরকারিভাবে সহায়তা করা হলে বাঁধটি মেরামত করতে সহজ হবে বলে স্থানীয় এ জনপ্রতিনিধি জানিয়েছেন।

পাইকগাছায় বাঁধ ভেঙ্গে দেলুটির ৩ গ্রামের বিস্তির্ণ এলাকা প্লাবিত

প্রতিবেদক নাম: পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি: ,

প্রকাশের সময়ঃ ১৪ আগস্ট ২০১৮, ০৬:৪০ পিএম

পাইকগাছায় বাঁধ ভেঙ্গে জোয়ারের উপচে পড়া পানিতে দেলুটি ইউনিয়নের ৩টি গ্রাম প্লাবিত হয়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। জলমগ্ন হয়ে পড়েছে কয়েক’শ পরিবার। পানিতে তলিয়ে গিয়ে শত শত বিঘা জমির ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ভেসে গেছে অসংখ্য চিংড়ি ঘেরের মাছ।

দেলুটি ইউপি চেয়ারম্যান রিপন কুমার মন্ডল জানান, ইজারাদারের খামখেয়ালী ও অবহেলার কারণে সোমবার দুপুরে বাঁধ ভেঙ্গে চকরিবকরি বদ্ধ নদীর জোয়ারের উপচে পড়া পানি ভিতরে প্রবেশ করে ইউনিয়নের গেওয়াবুনিয়া, চকরিবকরি ও পারমধুখালী সহ ৩টি গ্রামের বিস্তির্ণ এলাকা প্লাবিত হয়।

এলাকাবাসী তাৎক্ষণিকভাবে বাঁধটি মেরামত করলেও সকালে পুনরায় ভেঙ্গে যায়। ফলে দু’দফা ভাঙ্গনের কারণে জোয়ারের পানিতে এলাকার বিস্তির্ণ এলাকা পুনরায় তলিয়ে যায়। এতে ফসল ও চিংড়ি ঘেরের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হওয়া সহ কয়েক’শ পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। এলাকাবাসীর সহযোগিতায় ক্ষতিগ্রস্থ বাঁধ মেরামত করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

তবে সরকারিভাবে সহায়তা করা হলে বাঁধটি মেরামত করতে সহজ হবে বলে স্থানীয় এ জনপ্রতিনিধি জানিয়েছেন।