২৩, সেপ্টেম্বর, ২০১৯, সোমবার | | ২৩ মুহররম ১৪৪১


আজানের সময় কথা বন্ধের কোন নিয়ম নেই, মন্তব্য জিএম কাদেরের

রিপোর্টার নামঃ স্টাফ রিপোর্টার: | আপডেট: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:২৫ এএম

আজানের সময় কথা বন্ধের কোন নিয়ম নেই, মন্তব্য জিএম কাদেরের
আজানের সময় কথা বন্ধের কোন নিয়ম নেই, মন্তব্য জিএম কাদেরের

আজানের সময় কথা বন্ধের নিয়ম নেই বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদের। বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বক্তৃতা দেয়ার সময় আজান শুরু হলে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

এদিন জাতীয় ছাত্র সমাজের সাংগঠনিক সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দিচ্ছিলেন কাদের। এ সময় আসরের আজান শুরু হলে সামনে থাকা কর্মীরা বক্তব্য দান থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানান।

তবে তিনি তাদের থামার আহ্বান জানিয়ে বলেন, তোমরা আজান শোনো, কোনো অসুবিধা নেই। কেউ একজন জবাব দাও। আজানের সময় কথা বন্ধের তেমন কোনো নিয়ম নেই। আমি আস্তে আস্তে বলছি। দরকার হয় বাইরের মাইকগুলো বন্ধ করে দাও।

আজান নিয়ে কথা বলতে গিয়ে খেই হারিয়ে ফেলেন তিনি। পরে পাশে থাকা এক নেতাকে প্রশ্ন করেন কী যেন বলছিলাম? পরে পাশে থেকে কেউ একজন মনে করিয়ে দেয়ার পর তিনি বলেন, তোমরা যেটা করবে সেটা হলো তোমরা এলাকা ভিত্তিক রাজনীতি যখন করবে তখন সঙ্গে সঙ্গে তোমাদের ক্যাম্পাস থাকলে সেটার মধ্যে রাজনীতি করলে তোমাদের যে মতবাদ, তোমাদের যে আদর্শ সেটা তরুণ সমাজের মধ্যে ছড়িয়ে যাবে।

ওই অনুষ্ঠানে কাউন্সিল নিয়ে তিনি বলেন, চলতি বছরের ২১ ডিসেম্বরের তারিখটা আমরা ফাঁকা পেয়েছি। তাই ওই তারিখে আমরা জাতীয় কাউন্সিল করতে চাই।

আজানের সময় কথা বন্ধের কোন নিয়ম নেই, মন্তব্য জিএম কাদেরের

প্রতিবেদক নাম: স্টাফ রিপোর্টার: ,

প্রকাশের সময়ঃ ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:২৫ এএম

আজানের সময় কথা বন্ধের নিয়ম নেই বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদের। বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বক্তৃতা দেয়ার সময় আজান শুরু হলে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

এদিন জাতীয় ছাত্র সমাজের সাংগঠনিক সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দিচ্ছিলেন কাদের। এ সময় আসরের আজান শুরু হলে সামনে থাকা কর্মীরা বক্তব্য দান থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানান।

তবে তিনি তাদের থামার আহ্বান জানিয়ে বলেন, তোমরা আজান শোনো, কোনো অসুবিধা নেই। কেউ একজন জবাব দাও। আজানের সময় কথা বন্ধের তেমন কোনো নিয়ম নেই। আমি আস্তে আস্তে বলছি। দরকার হয় বাইরের মাইকগুলো বন্ধ করে দাও।

আজান নিয়ে কথা বলতে গিয়ে খেই হারিয়ে ফেলেন তিনি। পরে পাশে থাকা এক নেতাকে প্রশ্ন করেন কী যেন বলছিলাম? পরে পাশে থেকে কেউ একজন মনে করিয়ে দেয়ার পর তিনি বলেন, তোমরা যেটা করবে সেটা হলো তোমরা এলাকা ভিত্তিক রাজনীতি যখন করবে তখন সঙ্গে সঙ্গে তোমাদের ক্যাম্পাস থাকলে সেটার মধ্যে রাজনীতি করলে তোমাদের যে মতবাদ, তোমাদের যে আদর্শ সেটা তরুণ সমাজের মধ্যে ছড়িয়ে যাবে।

ওই অনুষ্ঠানে কাউন্সিল নিয়ে তিনি বলেন, চলতি বছরের ২১ ডিসেম্বরের তারিখটা আমরা ফাঁকা পেয়েছি। তাই ওই তারিখে আমরা জাতীয় কাউন্সিল করতে চাই।