২২, সেপ্টেম্বর, ২০১৯, রোববার | | ২২ মুহররম ১৪৪১


মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে ঈশ্বরগঞ্জের আমলিতলা ব্রীজ

রিপোর্টার নামঃ নীলকন্ঠ আইচ মজুমদার, ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি: | আপডেট: ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৭:১৩ পিএম

মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে ঈশ্বরগঞ্জের আমলিতলা ব্রীজ
মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে ঈশ্বরগঞ্জের আমলিতলা ব্রীজ

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার উচাখিলা ইউনিয়নের আমলিতলা এলাকার ছোট ব্রীজটি এখন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। ব্রীজের দুপাশের রেলিং ভেঙ্গে যাওয়ায় প্রতিদিন ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে পাঁচ গ্রামের মানুষের। সরেজমিন গিয়ে দেখা যায় কাঁচামাটিয়া নদীর উপর ১৯৯৮ সালে নির্মিত ফুট ব্রীজটির দুপাশের রেলিং ভাঙ্গা। আর একারণেই প্রতিনিয়তই ঘটছে ছোট খাট দুর্ঘটনা। বিশেষ করে উচাখিলা এলাকায় দুটি কলেজ, একটি মাদ্রাসা, দুটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়সহ বেশ কয়েকটি কিন্ডার গার্টেন থাকায় প্রচুর শিক্ষার্থী এ ব্রীজের উপর দিয়ে সাইকেল ও অটোরিক্সা দিয়ে চলাচল করে থাকে।

এছাড়াও গ্রাম গুলো চরাঞ্চল অধ্যুষিত বিধায় প্রচুর পরিমাণে শাক সবজি উৎপাদন হয়ে থাকে। কিন্তু সেসব শাক সবজি বাজারজাতকরণের জন্য যানবাহন এ সরু ব্রীজ দিয়ে প্রবেশ করতে পারছে না। এই ব্রীজ দিয়ে রফিয়ার আলগী, আলাদিয়ার চর, নাওভাঙার চর ,চরআলগী ও মরিচার চরের  মানুষ চলাচল করে থাকেন। বিশেষ করে রাতের অন্ধকারে পথচারী ব্রীজের উপর দিয়ে পারাপারের সময় ব্রীজ থেকে নিচে পড়ে দুর্ঘটনার স্বীকার হচ্ছেন।

ভূক্তভোগী এলাকাবাসী সাইদুল হক সরকার জানান, সাম্প্রতিককালীন সময়ে রফিয়ারআলগী গ্রামের গরু ব্যবসায়ী আজিজুল হক ও আবুল কাসেম ব্রীজ থেকে পড়ে গুরুতর আহত হন। ব্রীজটি দুপাড়ের মানুষের চলাচলের সেতু বন্ধন হিসেবে কাজ করে থাকে। দীর্ঘদিন ধরে ব্রীজটি বেহাল অবস্থায় পড়ে থাকলেও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি কিংবা প্রশাসনের কোনো নজরদারি নেই।এলাকাবাসীর দাবী জরুরি ভিত্তিতে ব্রীজটির সংস্কার হলে পথচারীদের চলাচল যেমন নির্বিঘœ হবে তেমনি কৃষকদের উৎপাদিত পন্য সামগ্রী পরিবহণের পথ সুগম হবে। 

এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মে রুমানা তুয়ার সাথে কথা হলে তিনি জানান, বিষয়টি নিয়ে উপজেলা এজিইডির সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে ।      

মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে ঈশ্বরগঞ্জের আমলিতলা ব্রীজ

প্রতিবেদক নাম: নীলকন্ঠ আইচ মজুমদার, ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি: ,

প্রকাশের সময়ঃ ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৭:১৩ পিএম

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার উচাখিলা ইউনিয়নের আমলিতলা এলাকার ছোট ব্রীজটি এখন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। ব্রীজের দুপাশের রেলিং ভেঙ্গে যাওয়ায় প্রতিদিন ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে পাঁচ গ্রামের মানুষের। সরেজমিন গিয়ে দেখা যায় কাঁচামাটিয়া নদীর উপর ১৯৯৮ সালে নির্মিত ফুট ব্রীজটির দুপাশের রেলিং ভাঙ্গা। আর একারণেই প্রতিনিয়তই ঘটছে ছোট খাট দুর্ঘটনা। বিশেষ করে উচাখিলা এলাকায় দুটি কলেজ, একটি মাদ্রাসা, দুটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়সহ বেশ কয়েকটি কিন্ডার গার্টেন থাকায় প্রচুর শিক্ষার্থী এ ব্রীজের উপর দিয়ে সাইকেল ও অটোরিক্সা দিয়ে চলাচল করে থাকে।

এছাড়াও গ্রাম গুলো চরাঞ্চল অধ্যুষিত বিধায় প্রচুর পরিমাণে শাক সবজি উৎপাদন হয়ে থাকে। কিন্তু সেসব শাক সবজি বাজারজাতকরণের জন্য যানবাহন এ সরু ব্রীজ দিয়ে প্রবেশ করতে পারছে না। এই ব্রীজ দিয়ে রফিয়ার আলগী, আলাদিয়ার চর, নাওভাঙার চর ,চরআলগী ও মরিচার চরের  মানুষ চলাচল করে থাকেন। বিশেষ করে রাতের অন্ধকারে পথচারী ব্রীজের উপর দিয়ে পারাপারের সময় ব্রীজ থেকে নিচে পড়ে দুর্ঘটনার স্বীকার হচ্ছেন।

ভূক্তভোগী এলাকাবাসী সাইদুল হক সরকার জানান, সাম্প্রতিককালীন সময়ে রফিয়ারআলগী গ্রামের গরু ব্যবসায়ী আজিজুল হক ও আবুল কাসেম ব্রীজ থেকে পড়ে গুরুতর আহত হন। ব্রীজটি দুপাড়ের মানুষের চলাচলের সেতু বন্ধন হিসেবে কাজ করে থাকে। দীর্ঘদিন ধরে ব্রীজটি বেহাল অবস্থায় পড়ে থাকলেও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি কিংবা প্রশাসনের কোনো নজরদারি নেই।এলাকাবাসীর দাবী জরুরি ভিত্তিতে ব্রীজটির সংস্কার হলে পথচারীদের চলাচল যেমন নির্বিঘœ হবে তেমনি কৃষকদের উৎপাদিত পন্য সামগ্রী পরিবহণের পথ সুগম হবে। 

এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মে রুমানা তুয়ার সাথে কথা হলে তিনি জানান, বিষয়টি নিয়ে উপজেলা এজিইডির সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে ।