২২, সেপ্টেম্বর, ২০১৯, রোববার | | ২২ মুহররম ১৪৪১


নিজ মেয়েকে দিয়ে দেহব্যবসা, স্কুলছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা

রিপোর্টার নামঃ স্টাফ রিপোর্টার: | আপডেট: ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৬:৪৮ পিএম

নিজ মেয়েকে দিয়ে দেহব্যবসা, স্কুলছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা
নিজ মেয়েকে দিয়ে দেহব্যবসা, স্কুলছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা

মেয়েটি এখনও শিশু। মাত্র ষষ্ঠ শ্রেণিতে উঠেছে। আর এই বয়সে নিজের মা ও সৎ বাবার হীন উদ্দেশ্যের শিকার হয়েছে সে। তাকে দিয়ে দেহব্যবসা করিয়েছে। 

একজন বা দুইজন নয়, অনেক পুরুষের শয্যাসঙ্গী হতে বাধ্য করা হয়েছে তাকে। ফলে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে অবুঝ শিশুটি। ঘটনাটি ঘটেছে ঝালকাঠির কাঠপট্টি এলাকায়।  

মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে শিশুটিকে উদ্ধার করে ঝালকাঠি থানা হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ। পরে ওই রাতেই শহরের কালীবাড়ি সড়ক এলাকার একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে শিশুটির মা সাহেরা আক্তার কাজল ও সৎ বাবা মো. আলমকে আটক করা হয়। 

প্রাথমিক তদন্ত শেষে পুলিশ জানায়, শহরের কাঠপট্টির কলাবাগান এলাকায় মা ও সৎ বাবার সঙ্গে থাকতো শিশুটি। গত কয়েক মাস আগে শিশুটির মা ও সৎ বাবা তাকে একাধিক পুরুষের সঙ্গে শারিরীক সম্পর্ক করতে বাধ্য করে। এ অনৈতিক কাজের বিনিময়ে তারা অর্থ হাতিয়ে নেয়। আর এতে শিশুটি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। 

ভিকটিম শিশুটিকে আজ বুধবার ডাক্তারি পরীক্ষা ও চিকিৎসার জন্য সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে শিশুটির গর্ভে কার সন্তান তা এখনো জানা যায়নি। 

এ ঘটনায় তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। পুলিশ আরও জানায়, শিশুটির মা ও সৎ বাবাকে আটক করা হয়েছে। জড়িতদের খুঁজে বের করা হবে।  -মানবজমিন

নিজ মেয়েকে দিয়ে দেহব্যবসা, স্কুলছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা

প্রতিবেদক নাম: স্টাফ রিপোর্টার: ,

প্রকাশের সময়ঃ ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৬:৪৮ পিএম

মেয়েটি এখনও শিশু। মাত্র ষষ্ঠ শ্রেণিতে উঠেছে। আর এই বয়সে নিজের মা ও সৎ বাবার হীন উদ্দেশ্যের শিকার হয়েছে সে। তাকে দিয়ে দেহব্যবসা করিয়েছে। 

একজন বা দুইজন নয়, অনেক পুরুষের শয্যাসঙ্গী হতে বাধ্য করা হয়েছে তাকে। ফলে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে অবুঝ শিশুটি। ঘটনাটি ঘটেছে ঝালকাঠির কাঠপট্টি এলাকায়।  

মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে শিশুটিকে উদ্ধার করে ঝালকাঠি থানা হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ। পরে ওই রাতেই শহরের কালীবাড়ি সড়ক এলাকার একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে শিশুটির মা সাহেরা আক্তার কাজল ও সৎ বাবা মো. আলমকে আটক করা হয়। 

প্রাথমিক তদন্ত শেষে পুলিশ জানায়, শহরের কাঠপট্টির কলাবাগান এলাকায় মা ও সৎ বাবার সঙ্গে থাকতো শিশুটি। গত কয়েক মাস আগে শিশুটির মা ও সৎ বাবা তাকে একাধিক পুরুষের সঙ্গে শারিরীক সম্পর্ক করতে বাধ্য করে। এ অনৈতিক কাজের বিনিময়ে তারা অর্থ হাতিয়ে নেয়। আর এতে শিশুটি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। 

ভিকটিম শিশুটিকে আজ বুধবার ডাক্তারি পরীক্ষা ও চিকিৎসার জন্য সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে শিশুটির গর্ভে কার সন্তান তা এখনো জানা যায়নি। 

এ ঘটনায় তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। পুলিশ আরও জানায়, শিশুটির মা ও সৎ বাবাকে আটক করা হয়েছে। জড়িতদের খুঁজে বের করা হবে।  -মানবজমিন