২২, সেপ্টেম্বর, ২০১৯, রোববার | | ২২ মুহররম ১৪৪১


পাকিস্তানের কারাগারে নেই মাসুদ আজহার, দাবি ভারতের

রিপোর্টার নামঃ আন্তর্জাতিক ডেস্ক: | আপডেট: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৫:৫৯ পিএম

পাকিস্তানের কারাগারে নেই মাসুদ আজহার, দাবি ভারতের
পাকিস্তানের কারাগারে নেই মাসুদ আজহার, দাবি ভারতের

পাকিস্তানি জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই মুহাম্মদের প্রধান মাসুদ আজহার দেশটির কারাগারে নেই বলে দাবি করছে ভারত। বর্তমানে তিনি পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের বাহাওয়ালপুর জেলায় সংগঠনটির সদর দপ্তরে রয়েছেন বলেও দাবি দেশটির।

ভারত সরকারের একাধিক সূত্রে এ খবর জানা গিয়েছে বলে সংবাদ প্রকাশ করেছে দেশটির সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি। তাদের খবরে বলা হয়েছে, মাসুদ আজহারের শরীর ভাল থাকলেও তিনি জনসম্মুখে এসে কিছু বলছেন না। কেননা, যাতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় পাকিস্তানের মাটিতে জঙ্গিদের অবস্থান নিয়ে কোনো প্রশ্ন না তুলতে পারে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, জইশ-ই মুহাম্মদের প্রধান কার্যালয় সম্পর্কে ভারত সরকারের সূত্রগুলো জানিয়েছে, পাঞ্জাবের বাহাওয়ালপুরের অবস্থিত জঙ্গি সংগঠনটিকে তারা  ‘মারকাজ সুবহান আল্লাহ’নামে ডাকে।

বিশাল আয়তনের এ স্থাপনা আধুনিক কৌশল ব্যবহার করে নির্মিত হয়েছে। এখানে বসেই সম্প্রতি মাসুদ আজহার শীর্ষ জঙ্গিদের সঙ্গে বৈঠক করেন। মাসুদ আজহার ছাড়াও এখানে তার ভাইয়েরাও অবস্থান করছেন বলে ধারণা ভারতীয় সূত্রগুলোর।

এর আগে, গত জুলাইয়ে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের যুক্তরাষ্ট্র সফরের আগে মাসুদ আজহারকে গ্রেপ্তারের কথা জানায় ইসলামাবাদ।

মাসুদ আজহারকে ২০০৮ সালে হওয়া ভয়াবহ মুম্বাই হামলার ‘মূল হোতা’ হিসেবে মনে করা হয়। গত ১মে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের নিরাপত্তা পরিষদ তাকে আন্তর্জাতিক জঙ্গি হিসেবে তালিকাভুক্ত করে। জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলকে কেন্দ্র করে ভারত ও পাকিস্তানের সম্পর্ক যখন চরম উত্তেজনায় পৌঁছেছে তখনই মাসুদ আজহারকে ছেড়ে দেওয়ার দাবি করলো নয়াদিল্লি। তাদের দাবি, ভারতে নাশকতা করার জন্যই মাসুদ আজহারকে ছেড়ে দিয়েছে পাকিস্তান। 

পাকিস্তানের কারাগারে নেই মাসুদ আজহার, দাবি ভারতের

প্রতিবেদক নাম: আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ,

প্রকাশের সময়ঃ ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৫:৫৯ পিএম

পাকিস্তানি জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই মুহাম্মদের প্রধান মাসুদ আজহার দেশটির কারাগারে নেই বলে দাবি করছে ভারত। বর্তমানে তিনি পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের বাহাওয়ালপুর জেলায় সংগঠনটির সদর দপ্তরে রয়েছেন বলেও দাবি দেশটির।

ভারত সরকারের একাধিক সূত্রে এ খবর জানা গিয়েছে বলে সংবাদ প্রকাশ করেছে দেশটির সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি। তাদের খবরে বলা হয়েছে, মাসুদ আজহারের শরীর ভাল থাকলেও তিনি জনসম্মুখে এসে কিছু বলছেন না। কেননা, যাতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় পাকিস্তানের মাটিতে জঙ্গিদের অবস্থান নিয়ে কোনো প্রশ্ন না তুলতে পারে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, জইশ-ই মুহাম্মদের প্রধান কার্যালয় সম্পর্কে ভারত সরকারের সূত্রগুলো জানিয়েছে, পাঞ্জাবের বাহাওয়ালপুরের অবস্থিত জঙ্গি সংগঠনটিকে তারা  ‘মারকাজ সুবহান আল্লাহ’নামে ডাকে।

বিশাল আয়তনের এ স্থাপনা আধুনিক কৌশল ব্যবহার করে নির্মিত হয়েছে। এখানে বসেই সম্প্রতি মাসুদ আজহার শীর্ষ জঙ্গিদের সঙ্গে বৈঠক করেন। মাসুদ আজহার ছাড়াও এখানে তার ভাইয়েরাও অবস্থান করছেন বলে ধারণা ভারতীয় সূত্রগুলোর।

এর আগে, গত জুলাইয়ে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের যুক্তরাষ্ট্র সফরের আগে মাসুদ আজহারকে গ্রেপ্তারের কথা জানায় ইসলামাবাদ।

মাসুদ আজহারকে ২০০৮ সালে হওয়া ভয়াবহ মুম্বাই হামলার ‘মূল হোতা’ হিসেবে মনে করা হয়। গত ১মে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের নিরাপত্তা পরিষদ তাকে আন্তর্জাতিক জঙ্গি হিসেবে তালিকাভুক্ত করে। জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলকে কেন্দ্র করে ভারত ও পাকিস্তানের সম্পর্ক যখন চরম উত্তেজনায় পৌঁছেছে তখনই মাসুদ আজহারকে ছেড়ে দেওয়ার দাবি করলো নয়াদিল্লি। তাদের দাবি, ভারতে নাশকতা করার জন্যই মাসুদ আজহারকে ছেড়ে দিয়েছে পাকিস্তান।