২২, সেপ্টেম্বর, ২০১৯, রোববার | | ২২ মুহররম ১৪৪১


খালেদা জিয়া জামিন পাবেন কিনা-সেটা ঠিক করবেন আদালত, বললেন আইনমন্ত্রী

রিপোর্টার নামঃ স্টাফ রিপোর্টার: | আপডেট: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৩:৩৯ পিএম

খালেদা জিয়া জামিন পাবেন কিনা-সেটা ঠিক করবেন আদালত, বললেন আইনমন্ত্রী
খালেদা জিয়া জামিন পাবেন কিনা-সেটা ঠিক করবেন আদালত, বললেন আইনমন্ত্রী

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া জামিন পাবেন কিনা- সেটা আদালত ঠিক করবেন বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। 

তিনি বলেন, ‘খালেদা জিয়া এতিমের টাকা চুরি করায় জেলে আছেন। তাকে জামিন দেয়ার এখতিয়ার আদালতের। আদালত কী করবেন সেটা আদালতই ঠিক করবেন।’

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিএনপির কর্মসূচি প্রসঙ্গে মঙ্গলবার (১০ সেপ্টেম্বর) সকালে আখাউড়া রেলস্টেশনে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এ মন্তব্য করেন। 

বিএনপি নেতাদের কথা জনগণ আর বিশ্বাস করে না বলেও মন্তব্য করেন আইনমন্ত্রী।

জাতীয় পার্টির সাবেক চেয়ারম্যান সদ্যপ্রয়াত এইচ এম এরশাদকে নিয়ে ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণতন্ত্রকে হত্যা করেছেন’ বলে সম্প্রতি এক বক্তব্যে মন্তব্য করেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। 

মির্জা ফখরুলের এমন মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় আইনমন্ত্রী বলেন, ‘এরশাদ যখন খালেদা জিয়াকে গুলশানের একটি ও ক্যান্টনমেন্টের ভেতর সাড়ে বাইশ বিঘার আরেকটি বাড়ি দিয়েছিলেন তখন এরশাদ বিএনপির কাছে ভালো ছিলেন। কিন্তু এরশাদ যখনই গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করলেন তখন থেকেই তিনি বিএনপির কাছে খারাপ হয়ে গেলেন।’

এ সময় আইন সচিব গোলাম সারওয়ার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক হায়াত উদ দোলা খান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনিসুর রহমান, আখাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ মো. জয়নাল আবেদীন, আখাউড়া পৌর মেয়র মো. তাকজিল খলিফা কাজল, আখাউড়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কাশেম ভূঁইয়া, কসবা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রাশেদুল কাওসার ভূঁইয়া জীবন, আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাহমিনা আক্তার রেইনা, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহাবুদ্দিন বেগ সাপলু, সাধারণ সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন নয়ন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

খালেদা জিয়া জামিন পাবেন কিনা-সেটা ঠিক করবেন আদালত, বললেন আইনমন্ত্রী

প্রতিবেদক নাম: স্টাফ রিপোর্টার: ,

প্রকাশের সময়ঃ ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৩:৩৯ পিএম

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া জামিন পাবেন কিনা- সেটা আদালত ঠিক করবেন বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। 

তিনি বলেন, ‘খালেদা জিয়া এতিমের টাকা চুরি করায় জেলে আছেন। তাকে জামিন দেয়ার এখতিয়ার আদালতের। আদালত কী করবেন সেটা আদালতই ঠিক করবেন।’

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিএনপির কর্মসূচি প্রসঙ্গে মঙ্গলবার (১০ সেপ্টেম্বর) সকালে আখাউড়া রেলস্টেশনে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এ মন্তব্য করেন। 

বিএনপি নেতাদের কথা জনগণ আর বিশ্বাস করে না বলেও মন্তব্য করেন আইনমন্ত্রী।

জাতীয় পার্টির সাবেক চেয়ারম্যান সদ্যপ্রয়াত এইচ এম এরশাদকে নিয়ে ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণতন্ত্রকে হত্যা করেছেন’ বলে সম্প্রতি এক বক্তব্যে মন্তব্য করেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। 

মির্জা ফখরুলের এমন মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় আইনমন্ত্রী বলেন, ‘এরশাদ যখন খালেদা জিয়াকে গুলশানের একটি ও ক্যান্টনমেন্টের ভেতর সাড়ে বাইশ বিঘার আরেকটি বাড়ি দিয়েছিলেন তখন এরশাদ বিএনপির কাছে ভালো ছিলেন। কিন্তু এরশাদ যখনই গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করলেন তখন থেকেই তিনি বিএনপির কাছে খারাপ হয়ে গেলেন।’

এ সময় আইন সচিব গোলাম সারওয়ার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক হায়াত উদ দোলা খান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনিসুর রহমান, আখাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ মো. জয়নাল আবেদীন, আখাউড়া পৌর মেয়র মো. তাকজিল খলিফা কাজল, আখাউড়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কাশেম ভূঁইয়া, কসবা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রাশেদুল কাওসার ভূঁইয়া জীবন, আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাহমিনা আক্তার রেইনা, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহাবুদ্দিন বেগ সাপলু, সাধারণ সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন নয়ন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।