২২, সেপ্টেম্বর, ২০১৯, রোববার | | ২২ মুহররম ১৪৪১


ছেলেরা নয়, মেয়েরাই বৃদ্ধ পিতা-মাতার সেবাযত্ন বেশি করেন!

রিপোর্টার নামঃ প্রতিদিনের কাগজ | আপডেট: ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৬:০৭ পিএম

ছেলেরা নয়, মেয়েরাই বৃদ্ধ পিতা-মাতার সেবাযত্ন বেশি করেন!
ছেলেরা নয়, মেয়েরাই বৃদ্ধ পিতা-মাতার সেবাযত্ন বেশি করেন!

সব সন্তানই বাবা-মায়ের কাছে অতি আদরের। কিন্তু বৃদ্ধ বয়সে বাবা-মায়ের ভরসা থাকে শুধু তাদের ছেলে সন্তানের প্রতি। কারণ মেয়ে সন্তান বিয়ের পর অন্যের ঘরের দায়িত্ব পালনে ব্যস্ত থাকে। তাই তাদের বিশ্বাস, ছেলেরাই বৃদ্ধ বয়সে তাদের নিরাপত্তা ও সেবার দায়িত্ব নিবে। কিন্তু এক গবেষণায় এই ধারণাটিকে ভুল প্রমাণিত করা হয়েছে। গবেষকরা ৫০ উর্ধ্ব ২৬,০০০ লোকের উপর স্টাডি করে যে তথ্য পায়, তা হলো-

একটা মেয়ে মাসে ১২.৩ ঘন্টা সময় দেয় তার বৃদ্ধ বাবা-মায়ের পরিচর্চায় আর বিপরীতে একটা ছেলে দেয় ৫.৬ ঘন্টা। একটা মেয়ে তার ছেলে-মেয়ে, চাকরি এবং সংসারের হাজারটা সমস্যা সামলিয়ে কোনো বোন, কাজের মেয়ে কিংবা অন্যকারো সাহায্য ছাড়াই বৃদ্ধ পিতা-মাতার সেবা যত্ন করে। ছেলেরা যে সেবা-যত্ন তাদের বাবা-মাকে করে সেটাও অন্য কারো সহায়তা নিয়ে, সেটা ছোট বোন, স্ত্রী কিংবা কাজের লোকেরও হতে পারে।

যুগের পর যুগ ভ্রান্ত একটা চিন্তা মাথায় রাখার চেয়ে ঝেড়ে ফেলাই ভালো। মেয়ে হোক, ছেলে হোক সন্তানকে লালন করুন সমান স্নেহ মমতায়। কারণ মেয়েরাই বৃদ্ধ বয়সে বাবা-মায়ের খেয়াল বেশি রাখেন। মেয়েরা নিজের সংসারের হাজারটা সমস্যা সামলিয়ে ঠিকই বৃদ্ধ বাবা-মাকে সেবা-যত্ন করার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। ততোটা কখনোই ছেলেরা করেন না।

ছেলেরা নয়, মেয়েরাই বৃদ্ধ পিতা-মাতার সেবাযত্ন বেশি করেন!

প্রতিবেদক নাম: প্রতিদিনের কাগজ ,

প্রকাশের সময়ঃ ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৬:০৭ পিএম

সব সন্তানই বাবা-মায়ের কাছে অতি আদরের। কিন্তু বৃদ্ধ বয়সে বাবা-মায়ের ভরসা থাকে শুধু তাদের ছেলে সন্তানের প্রতি। কারণ মেয়ে সন্তান বিয়ের পর অন্যের ঘরের দায়িত্ব পালনে ব্যস্ত থাকে। তাই তাদের বিশ্বাস, ছেলেরাই বৃদ্ধ বয়সে তাদের নিরাপত্তা ও সেবার দায়িত্ব নিবে। কিন্তু এক গবেষণায় এই ধারণাটিকে ভুল প্রমাণিত করা হয়েছে। গবেষকরা ৫০ উর্ধ্ব ২৬,০০০ লোকের উপর স্টাডি করে যে তথ্য পায়, তা হলো-

একটা মেয়ে মাসে ১২.৩ ঘন্টা সময় দেয় তার বৃদ্ধ বাবা-মায়ের পরিচর্চায় আর বিপরীতে একটা ছেলে দেয় ৫.৬ ঘন্টা। একটা মেয়ে তার ছেলে-মেয়ে, চাকরি এবং সংসারের হাজারটা সমস্যা সামলিয়ে কোনো বোন, কাজের মেয়ে কিংবা অন্যকারো সাহায্য ছাড়াই বৃদ্ধ পিতা-মাতার সেবা যত্ন করে। ছেলেরা যে সেবা-যত্ন তাদের বাবা-মাকে করে সেটাও অন্য কারো সহায়তা নিয়ে, সেটা ছোট বোন, স্ত্রী কিংবা কাজের লোকেরও হতে পারে।

যুগের পর যুগ ভ্রান্ত একটা চিন্তা মাথায় রাখার চেয়ে ঝেড়ে ফেলাই ভালো। মেয়ে হোক, ছেলে হোক সন্তানকে লালন করুন সমান স্নেহ মমতায়। কারণ মেয়েরাই বৃদ্ধ বয়সে বাবা-মায়ের খেয়াল বেশি রাখেন। মেয়েরা নিজের সংসারের হাজারটা সমস্যা সামলিয়ে ঠিকই বৃদ্ধ বাবা-মাকে সেবা-যত্ন করার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। ততোটা কখনোই ছেলেরা করেন না।