২৩, সেপ্টেম্বর, ২০১৯, সোমবার | | ২৩ মুহররম ১৪৪১


মিন্নিকে হাইকোর্টের দেয়া জামিনের বিরুদ্ধে আপিল করবে রাষ্ট্রপক্ষ

রিপোর্টার নামঃ স্টাফ রিপোর্টার: | আপডেট: ২৯ আগস্ট ২০১৯, ০৫:৪১ পিএম

মিন্নিকে হাইকোর্টের দেয়া জামিনের বিরুদ্ধে আপিল করবে রাষ্ট্রপক্ষ
মিন্নিকে হাইকোর্টের দেয়া জামিনের বিরুদ্ধে আপিল করবে রাষ্ট্রপক্ষ

আলোচিত বরগুনার চাঞ্চল্যকর রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় তার স্ত্রী ও প্রধান সাক্ষী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিকে হাইকোর্টের দেয়া জামিনের বিরুদ্ধে আপিল করবে রাষ্ট্রপক্ষ। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সারোয়ার হোসাইন বাপ্পী এ কথা জানান। 

বৃহস্পতিবার (২৯ আগস্ট) মিন্নিকে জামিন দিয়ে হাইকোর্টের দেয়া রায়ের পর আদালত প্রাঙ্গণে গণমাধ্যমকে তিনি এ কথা বলেন।

রায়ের পর তিনি বলেন, আমরা এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। মিন্নিকে কেন জামিন দেয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছিলেন আদালত। সে রুল যথাযথ ঘোষণা করে জামিন দিয়েছেন আদালত। যেহেতু তিনি (মিন্নি) নারী এবং তার বাবার জিম্মায় থাকবেন, মিডিয়ার সঙ্গে কথা বলতে পারবেন না, তাই তাকে জামিন দেয়া হয়েছে। তবে এ জামিনের শর্তের অপব্যবহার করলে জামিন বাতিল হয়ে যাবে।

মো. সারোয়ার হোসাইন বাপ্পী আরো বলেন, মিন্নির বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ ছিল। সে যে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছিলেন, সেখানে নিজেকে ষড়যন্ত্রকারী হিসেবে সম্পৃক্ত থাকার কথা স্বীকার করেছেন। নয়ন বন্ডের সঙ্গে মিন্নির ঘটনার আগে ও পরে ১৩ বার ফোনালাপও হয়েছে। যাই হোক, আদালত তবু তাকে জামিন দিয়েছেন।

এর আগে মিন্নিকে অবশেষে জামিন দিলেন হাইকোর্ট। তবে আদালতে তাকে মিডিয়ার সামনে কোনো কথা না বলার নির্দেশ দিয়েছেন। এছাড়া বরগুনার পুলিশ সুপারকে দায়িত্বশীল জায়গায় থেকে এমন কোনো বক্তব্য দেয়া যাবে না যাতে মামলার বিচার কাজে বাধা সৃষ্টি হয়।

বৃহস্পতিবার বেলা সোয়া ২টার দিকে বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চে এই রায় দেন। রায় শেষে আদালত থেকে বেরিয়ে মিন্নির জ্যেষ্ঠ আইনজীবী জেড আই খান পান্না সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

আদালতে মিন্নির পক্ষে শুনানি করেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এ এম আমিন উদ্দিন ও জ্যেষ্ঠ আইনজীবী জেড আই খান পান্না এবং তার টিমের সদস্যরা। অন্যদিকে, রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করবেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সরোয়ার হোসাইন।

আদালতে রায়ে বলেন, মিন্নির ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি যে প্রকারে নেওয়া হয়েছে এবং যেভাবে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে সব দিক বিবেচনা করে আজকে রুল অ্যাবসুলিউট অর্থাৎ জামিন মঞ্জুর করেছেন আদালত। তবে আদালত মিন্নিকে মিডিয়ার সামনে কোনো কথা না বলার নির্দেশ দিয়েছেন।

এছাড়া বরগুনার পুলিশ সুপার বক্তব্য বিষয়ে আইজিপিকে ব্যবস্থাগ্রহণের জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। আদালত বলেন, দায়িত্বশীল জায়গায় থেকে এমন কোনো বক্তব্য দেয়া যাবে না যাতে মামলার বিচার কাজে বাধা সৃষ্টি হয়।

এদিকে মিন্নির জামিনের পর গণমাধ্যমকে দেয়া প্রতিক্রিয়ায়  রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সরোয়ার হোসাইন জানান, আদালত সে একজন নারী হিসেবে তার জামিন বিবেচনা করেছেন। নয়তো তার স্বামীর হত্যাকারীর সঙ্গে সে কিভাবে ১৩ বার মোবাইলে কথা বলেছে।  এব্যাপারে আমরা আপিল করব। 

আদালত বলেছেন, মিন্নির প্রতি একটাই নির্দেশ, তিনি যাতে কোনো মিডিয়ার সামনে কোনো বক্তব্য না দেন। পাশাপাশি পুলিশ সুপার সম্পর্কেও আদালত একটি অবজারভেশন দিয়েছেন।

এর আগে গত ২০ আগস্ট রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নির কেন জামিন দেয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে এ মামলার তদন্ত কর্মকর্তাকে মামলার কেস ডকেটসহ আসতে বলেন হাইকোর্ট। এ ছাড়া বরগুনার এসপিকে মিন্নির দোষ স্বীকার নিয়ে সংবাদ সম্মেলনের ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়। মামলার চূড়ান্ত শুনানির জন্য আজকের দিন ধার্য করেন আদালত।

গত ১৮ আগস্ট বরগুনার আলোচিত রিফাত হত্যা মামলায় প্রধান সাক্ষী নিহতের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নির জামিন উপস্থাপন করা হয়। গত ২৬ জুন সকালে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে রিফাত শরীফকে স্ত্রীর সামনে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় নিহতের বাবা দুলাল শরীফ বাদি হয়ে ২৭ জুন ১২ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

পরে ১৬ জুলাই সকাল পৌনে ১০টার দিকে মিন্নিকে তার বাবার বাড়ি বরগুনা পৌর শহরের নয়াকাটা-মাইঠা এলাকা থেকে পুলিশ লাইনে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে আসা হয়। এরপর জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রাত ৯টায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। পরদিন (১৭ জুলাই) মিন্নিকে বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করা হলে বিচারক মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম গাজী পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এরপর  বরগুনার আদালতে মিন্নির জামিন আবেদন জানালেও  তার জামিন মেলেনি। নিম্ন আদালতে ব্যর্থ হয়ে হাইকোর্টে জামিন আবেদন করলেন মিন্নির আইনজীবীরা।

মিন্নিকে হাইকোর্টের দেয়া জামিনের বিরুদ্ধে আপিল করবে রাষ্ট্রপক্ষ

প্রতিবেদক নাম: স্টাফ রিপোর্টার: ,

প্রকাশের সময়ঃ ২৯ আগস্ট ২০১৯, ০৫:৪১ পিএম

আলোচিত বরগুনার চাঞ্চল্যকর রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় তার স্ত্রী ও প্রধান সাক্ষী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিকে হাইকোর্টের দেয়া জামিনের বিরুদ্ধে আপিল করবে রাষ্ট্রপক্ষ। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সারোয়ার হোসাইন বাপ্পী এ কথা জানান। 

বৃহস্পতিবার (২৯ আগস্ট) মিন্নিকে জামিন দিয়ে হাইকোর্টের দেয়া রায়ের পর আদালত প্রাঙ্গণে গণমাধ্যমকে তিনি এ কথা বলেন।

রায়ের পর তিনি বলেন, আমরা এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। মিন্নিকে কেন জামিন দেয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছিলেন আদালত। সে রুল যথাযথ ঘোষণা করে জামিন দিয়েছেন আদালত। যেহেতু তিনি (মিন্নি) নারী এবং তার বাবার জিম্মায় থাকবেন, মিডিয়ার সঙ্গে কথা বলতে পারবেন না, তাই তাকে জামিন দেয়া হয়েছে। তবে এ জামিনের শর্তের অপব্যবহার করলে জামিন বাতিল হয়ে যাবে।

মো. সারোয়ার হোসাইন বাপ্পী আরো বলেন, মিন্নির বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ ছিল। সে যে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছিলেন, সেখানে নিজেকে ষড়যন্ত্রকারী হিসেবে সম্পৃক্ত থাকার কথা স্বীকার করেছেন। নয়ন বন্ডের সঙ্গে মিন্নির ঘটনার আগে ও পরে ১৩ বার ফোনালাপও হয়েছে। যাই হোক, আদালত তবু তাকে জামিন দিয়েছেন।

এর আগে মিন্নিকে অবশেষে জামিন দিলেন হাইকোর্ট। তবে আদালতে তাকে মিডিয়ার সামনে কোনো কথা না বলার নির্দেশ দিয়েছেন। এছাড়া বরগুনার পুলিশ সুপারকে দায়িত্বশীল জায়গায় থেকে এমন কোনো বক্তব্য দেয়া যাবে না যাতে মামলার বিচার কাজে বাধা সৃষ্টি হয়।

বৃহস্পতিবার বেলা সোয়া ২টার দিকে বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চে এই রায় দেন। রায় শেষে আদালত থেকে বেরিয়ে মিন্নির জ্যেষ্ঠ আইনজীবী জেড আই খান পান্না সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

আদালতে মিন্নির পক্ষে শুনানি করেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এ এম আমিন উদ্দিন ও জ্যেষ্ঠ আইনজীবী জেড আই খান পান্না এবং তার টিমের সদস্যরা। অন্যদিকে, রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করবেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সরোয়ার হোসাইন।

আদালতে রায়ে বলেন, মিন্নির ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি যে প্রকারে নেওয়া হয়েছে এবং যেভাবে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে সব দিক বিবেচনা করে আজকে রুল অ্যাবসুলিউট অর্থাৎ জামিন মঞ্জুর করেছেন আদালত। তবে আদালত মিন্নিকে মিডিয়ার সামনে কোনো কথা না বলার নির্দেশ দিয়েছেন।

এছাড়া বরগুনার পুলিশ সুপার বক্তব্য বিষয়ে আইজিপিকে ব্যবস্থাগ্রহণের জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। আদালত বলেন, দায়িত্বশীল জায়গায় থেকে এমন কোনো বক্তব্য দেয়া যাবে না যাতে মামলার বিচার কাজে বাধা সৃষ্টি হয়।

এদিকে মিন্নির জামিনের পর গণমাধ্যমকে দেয়া প্রতিক্রিয়ায়  রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সরোয়ার হোসাইন জানান, আদালত সে একজন নারী হিসেবে তার জামিন বিবেচনা করেছেন। নয়তো তার স্বামীর হত্যাকারীর সঙ্গে সে কিভাবে ১৩ বার মোবাইলে কথা বলেছে।  এব্যাপারে আমরা আপিল করব। 

আদালত বলেছেন, মিন্নির প্রতি একটাই নির্দেশ, তিনি যাতে কোনো মিডিয়ার সামনে কোনো বক্তব্য না দেন। পাশাপাশি পুলিশ সুপার সম্পর্কেও আদালত একটি অবজারভেশন দিয়েছেন।

এর আগে গত ২০ আগস্ট রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নির কেন জামিন দেয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে এ মামলার তদন্ত কর্মকর্তাকে মামলার কেস ডকেটসহ আসতে বলেন হাইকোর্ট। এ ছাড়া বরগুনার এসপিকে মিন্নির দোষ স্বীকার নিয়ে সংবাদ সম্মেলনের ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়। মামলার চূড়ান্ত শুনানির জন্য আজকের দিন ধার্য করেন আদালত।

গত ১৮ আগস্ট বরগুনার আলোচিত রিফাত হত্যা মামলায় প্রধান সাক্ষী নিহতের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নির জামিন উপস্থাপন করা হয়। গত ২৬ জুন সকালে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে রিফাত শরীফকে স্ত্রীর সামনে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় নিহতের বাবা দুলাল শরীফ বাদি হয়ে ২৭ জুন ১২ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

পরে ১৬ জুলাই সকাল পৌনে ১০টার দিকে মিন্নিকে তার বাবার বাড়ি বরগুনা পৌর শহরের নয়াকাটা-মাইঠা এলাকা থেকে পুলিশ লাইনে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে আসা হয়। এরপর জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রাত ৯টায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। পরদিন (১৭ জুলাই) মিন্নিকে বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করা হলে বিচারক মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম গাজী পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এরপর  বরগুনার আদালতে মিন্নির জামিন আবেদন জানালেও  তার জামিন মেলেনি। নিম্ন আদালতে ব্যর্থ হয়ে হাইকোর্টে জামিন আবেদন করলেন মিন্নির আইনজীবীরা।