২৩, ফেব্রুয়ারি, ২০২০, রোববার

৫ কিলোমিটার রাস্তার বেহাল দশা ভোগান্তিতে হাজার হাজার মানুষ, দেখার কেউ নেই!

অনিমেশ দাস, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি :
প্রকাশিত: ৬:১৬ অপরাহ্ন, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার


৫ কিলোমিটার রাস্তার বেহাল দশা ভোগান্তিতে হাজার হাজার মানুষ, দেখার কেউ নেই!

সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়নের দুলভারচর এলাকা থেকে রক্তি নদীর ফেরিঘাট পর্যন্ত পাঁচ কিলোমিটার রাস্তার বেহাল দশা। রাস্তার বেহাল দশা ভোগান্তিতে হাজার হাজার মানুষ।এ যেন দেখার কেউ নেই।

সড়ক নির্মাণের পর থেকে অদ্যবধি পর্যন্ত সংস্কার না হওয়ায় বিভিন্ন স্থানে রয়েছে ছোট-বড় অসংখ্য গর্ত। প্রতিদিনই সড়ক দিয়ে বিশ্বম্ভরপুর ও তাহিরপুর উপজেলাসহ বিভিন্ন এলাকার হাজার হাজার মানুষ জেলা শহরে আসা-যাওয়ার জন্য বাইপাস যাতায়াত সড়ক হিসাবে ব্যবহার করে আসছেন। চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন চলাচলকারীরা। সড়ক সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

স্থানীয়দেও সাথে আলাপ কালে তারা জানান, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার ফতেহপুর ইউনিয়ন ও তাহিরপুর উপজেলার আনোয়ারপুর ইউনিয়নের প্রধান সড়ক এটি। এই সড়ক দিয়ে ফতেপুর ইউনিয়নের সংগ্রামপুর, জিরাব তাহিরপুর, শালমারা, হরিপুর, কচুখালী, কলাইয়া, ফতেপুর ও নিয়ামতপুর ও তাহিরপুর উপজেলার আনোয়ারপুরসহ বিভিন্ন এলাকার হাজার হাজার মানুষ আসা-যাওয়া করে প্রতিদিন। চলাচল করে ট্রাক, মোটরসাইকেল, রিকশা, অটোরিকশা। পার্শবর্তী ইয়াকুব উল্লা উচ্চ বিদ্যালয় ও ইসলামগঞ্জ ডিগ্রি কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাওয়া আসা করেন কয়েক হাজার শিক্ষার্থী। ধুলোবালির জন্য নাক চেপে প্রতিদিন যেতে হচ্ছে স্কুল-কলেজে। সড়কের অধিকাংশ ভাঙ্গা থাকায় ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে স্থানীয়দের।

সরেজমিনে দেখা গেছে, সড়কের স্থানে স্থানে পিচ-ঢালাই উঠে গেছে। গাড়ি চলাচল করার সময় চারদিকে ধুলোবালি উড়ছে। দীর্ঘদিন ধরে সড়কের সংস্কার কাজ না হওয়ায় বিভিন্ন স্থানে ছোট-বড় অসংখ্য গর্ত।
এব্যাপারে ইসলামগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থী কামরুল হাসান বলেন, সড়কটি অনেক দিন আগেই চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। গাড়ি চলার সময় ধুলোবালির অত্যাচার সয়ে চলাচল করতে হচ্ছে।
ছয়-সাত বছর ধরে সড়কের বিভিন্ন স্থানে গর্ত থাকায় বয়স্ক মানুষ ও রোগীদের চলাচলে মারাত্মক কষ্ট হয়।দীর্ঘদিন ধরে এ সড়কের বেহাল অবস্থা। কিন্তু সড়কটি সংস্কার না হওয়ায় বিভিন্ন স্থানে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এই সড়কটি দ্রুত সংস্কার করার প্রয়োজন।

স্থানীয় ফতেহপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রনজিত চৌধুরী রাজন বলেন, নির্মাণের পর থেকে এই সড়ক সংস্কার করা হয়নি। এই সড়ক দিয়ে প্রতিদিন লক্ষাধিক মানুষ জেলা শহরে আসা-যাওয়া করেন। কিন্তু সড়ক সংস্কার না হওয়ায় এই অ লের মানুষ চরম দুর্ভোগে পড়েছেন।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, উপজেলা মিটিংয়ে এই সড়ক নিয়ে একাধিকবার কথা বললেও এ সড়কের কাজ হচ্ছে না। জরুরি ভিত্তিতে সড়ক সংস্কারের দাবি জানান তিনি।

এ ব্যাপারে সুনামগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. নজরুল ইসলাম বলেন, ফতেহপুর-নিয়ামতপুর ও আনোয়ারপুর পর্যন্ত সাড়ে ৮ কিলোমিটার সড়কের একটি প্রকল্প তৈরি করে পাঠানো হয়েছে। অনুমোদন হয়ে আসলে সড়কের সংস্কার কাজ শুরু হবে।

মন্তব্য করুন

খবর অনুসন্ধান

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯  

সর্বশেষ নিউজ

আরো পড়ুন

Shares