২২, আগস্ট, ২০১৯, বৃহস্পতিবার | | ২০ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০


কাশ্মীর ইস্যুতে আফ্রিদি-গম্ভীরের টুইট যুদ্ধ

রিপোর্টার নামঃ খেলাধুলা ডেস্ক: | আপডেট: ০৬ আগস্ট ২০১৯, ০৭:০৪ পিএম

কাশ্মীর ইস্যুতে আফ্রিদি-গম্ভীরের টুইট যুদ্ধ
কাশ্মীর ইস্যুতে আফ্রিদি-গম্ভীরের টুইট যুদ্ধ

ভারত অধিকৃত কাশ্মীরকে দুভাগে ভাগ করলো দেশটির সরকার। গতকাল সোমবার সংসদে এ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব পেশ করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। এতে লাদাখ ও জম্মু-কাশ্মীরকে আলাদা আলাদা অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। এরপরই কাশ্মীর নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়। বাদ যাননি ভারত-পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটাররাও।

পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক আফ্রিদি সমালোচনা করে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম টুইটারে একটি টুইট করেন। তিনি লিখেন, ‘জাতিসংঘের সনদ অনুযায়ী কাশ্মীরিদের প্রাপ্য অধিকারটুকু পাওয়া উচিত, আমাদের সবার মতো স্বাধীনতা তাদেরও প্রাপ্য। এখনও রাষ্ট্রপুঞ্জ চুপ কেন? বিনা প্ররোচনায় এই আগ্রাসন এবং মানবতার বিরুদ্ধে এই অপরাধ সকলে মনে রাখবে।’

আফ্রিদির টুইটের জবাব দিতে বেশি দেরি করেননি ভারতের সাবেক ব্যাটসম্যান ও বর্তমান সাংসদ গৌতম গম্ভীর। ‘একদম ঠিক কথা “বিনা প্ররোচনায় আগ্রাসন”, “মানবিকতার বিরুদ্ধে অপরাধ” এই সমস্ত শব্দ ব্যবহারের জন্য ওর প্রশংসা করা উচিত। তবে ও হয়ত বলতে ভুলে গিয়েছে এই ধরনের অধিকাংশ অপরাধই হয় পাক অধিকৃত কাশ্মীরে।’

কাশ্মীর-লাদাখ দুটি অঞ্চলই ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার দ্বারা শাসিত হবে। তবে জম্মু ও কাশ্মীরের নিজস্ব একটি আইনসভা থাকবে, তবে লাদাখের আইনসভা থাকবে না।

কাশ্মীর ইস্যুতে আফ্রিদি-গম্ভীরের টুইট যুদ্ধ

প্রতিবেদক নাম: খেলাধুলা ডেস্ক: ,

প্রকাশের সময়ঃ ০৬ আগস্ট ২০১৯, ০৭:০৪ পিএম

ভারত অধিকৃত কাশ্মীরকে দুভাগে ভাগ করলো দেশটির সরকার। গতকাল সোমবার সংসদে এ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব পেশ করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। এতে লাদাখ ও জম্মু-কাশ্মীরকে আলাদা আলাদা অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। এরপরই কাশ্মীর নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়। বাদ যাননি ভারত-পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটাররাও।

পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক আফ্রিদি সমালোচনা করে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম টুইটারে একটি টুইট করেন। তিনি লিখেন, ‘জাতিসংঘের সনদ অনুযায়ী কাশ্মীরিদের প্রাপ্য অধিকারটুকু পাওয়া উচিত, আমাদের সবার মতো স্বাধীনতা তাদেরও প্রাপ্য। এখনও রাষ্ট্রপুঞ্জ চুপ কেন? বিনা প্ররোচনায় এই আগ্রাসন এবং মানবতার বিরুদ্ধে এই অপরাধ সকলে মনে রাখবে।’

আফ্রিদির টুইটের জবাব দিতে বেশি দেরি করেননি ভারতের সাবেক ব্যাটসম্যান ও বর্তমান সাংসদ গৌতম গম্ভীর। ‘একদম ঠিক কথা “বিনা প্ররোচনায় আগ্রাসন”, “মানবিকতার বিরুদ্ধে অপরাধ” এই সমস্ত শব্দ ব্যবহারের জন্য ওর প্রশংসা করা উচিত। তবে ও হয়ত বলতে ভুলে গিয়েছে এই ধরনের অধিকাংশ অপরাধই হয় পাক অধিকৃত কাশ্মীরে।’

কাশ্মীর-লাদাখ দুটি অঞ্চলই ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার দ্বারা শাসিত হবে। তবে জম্মু ও কাশ্মীরের নিজস্ব একটি আইনসভা থাকবে, তবে লাদাখের আইনসভা থাকবে না।