১৭, আগস্ট, ২০১৯, শনিবার | | ১৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০


কমলাপুরে দুদকের অভিযান

রিপোর্টার নামঃ নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট: ৩০ জুলাই ২০১৯, ০১:০৫ পিএম

কমলাপুরে দুদকের অভিযান
কমলাপুরে দুদকের অভিযান

ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রিতে অনিয়ম, কালোবাজারি হচ্ছে কিনা তা তদারকি করতে কমলাপুর রেলস্টেশনে অভিযান চালিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক)।

আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় রাজধানীর কমলাপুরে টিকিট বিক্রি কার্যক্রম তদারকি করেন দুদক টিম। দুদকের সহকারী পরিচালক জি এম আহসানুল কবির অভিযান পরিচালনা করেন।

অভিযান শেষে তিনি জানান, অনলাইনে এক যাত্রীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে কমলাপুর স্টেশনে অভিযান চালানো হয়। আমরা কোনো অনিয়ম পাইনি। তবে অনলাইনে টিকিটের বিষয়ে কিছু অভিযোগ রয়েছে, সেটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। টিকিট বিক্রির অনিয়ম খতিয়ে দেখতে অন্য স্টেশনেও অভিযান চালানো হবে বলে জানান দুদকের এ কর্মকর্তা।

এদিকে আসন্ন পবিত্র ঈদুল-আজহা উপলক্ষে সোমবার ২৯ জুলাই থেকে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে।

মঙ্গলবার ৩০ জুলাই সকাল ৯টা থেকে দেয়া হচ্ছে ৮ আগস্টের (বৃহস্পতিবারে) টিকিট। এ দিনের টিকিটের জন্যে যেন যুদ্ধে নেমেছেন মানুষ। গতকাল রাত থেকে টিকিট প্রত্যাশীদের স্টেশনে যেন তিল ধারণের ঠাঁই নেই। মানুষের দীর্ঘ লাইনে অপেক্ষা করছে কাঙ্ক্ষিত টিকিটের জন্য। কাউন্টারের সামনে থেকে শুরু করে সড়কের কাছাকাছি পৌঁছেছে লাইন। টিকিট প্রত্যাশীদের ভিড়ে স্টেশন এলাকা যেন জনসমুদ্রে পরিণত হয়েছে।

তবে এবারও রাজধানীর পাঁচটি স্থান থেকে ঈদের অগ্রিম টিকিট দেয়া হচ্ছে। এরমধ্যে রাজশাহী খুলনা ও রংপুর বিভাগের টিকিট কমলাপুরে পাওয়া যাচ্ছে। বিমানবন্দর স্টেশনে দেয়া হচ্ছে নোয়াখালী ও চট্টগ্রামের টিকিটসহ সব আন্তঃনগর ট্রেনের টিকিট। তেজঁগাওয়ে দেয়া হচ্ছে ময়মনসিংহ ও জামালপুরগামী ট্রেনের টিকিট। বনানী থেকে নেত্রকোনাগামী এবং পুরাতন ফুলবাড়িয়া স্টেশন থেকে দেয়া হচ্ছে সিলেট ও কিশোরগঞ্জের টিকেট।

কমলাপুরে দুদকের অভিযান

প্রতিবেদক নাম: নিজস্ব প্রতিবেদক ,

প্রকাশের সময়ঃ ৩০ জুলাই ২০১৯, ০১:০৫ পিএম

ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রিতে অনিয়ম, কালোবাজারি হচ্ছে কিনা তা তদারকি করতে কমলাপুর রেলস্টেশনে অভিযান চালিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক)।

আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় রাজধানীর কমলাপুরে টিকিট বিক্রি কার্যক্রম তদারকি করেন দুদক টিম। দুদকের সহকারী পরিচালক জি এম আহসানুল কবির অভিযান পরিচালনা করেন।

অভিযান শেষে তিনি জানান, অনলাইনে এক যাত্রীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে কমলাপুর স্টেশনে অভিযান চালানো হয়। আমরা কোনো অনিয়ম পাইনি। তবে অনলাইনে টিকিটের বিষয়ে কিছু অভিযোগ রয়েছে, সেটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। টিকিট বিক্রির অনিয়ম খতিয়ে দেখতে অন্য স্টেশনেও অভিযান চালানো হবে বলে জানান দুদকের এ কর্মকর্তা।

এদিকে আসন্ন পবিত্র ঈদুল-আজহা উপলক্ষে সোমবার ২৯ জুলাই থেকে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে।

মঙ্গলবার ৩০ জুলাই সকাল ৯টা থেকে দেয়া হচ্ছে ৮ আগস্টের (বৃহস্পতিবারে) টিকিট। এ দিনের টিকিটের জন্যে যেন যুদ্ধে নেমেছেন মানুষ। গতকাল রাত থেকে টিকিট প্রত্যাশীদের স্টেশনে যেন তিল ধারণের ঠাঁই নেই। মানুষের দীর্ঘ লাইনে অপেক্ষা করছে কাঙ্ক্ষিত টিকিটের জন্য। কাউন্টারের সামনে থেকে শুরু করে সড়কের কাছাকাছি পৌঁছেছে লাইন। টিকিট প্রত্যাশীদের ভিড়ে স্টেশন এলাকা যেন জনসমুদ্রে পরিণত হয়েছে।

তবে এবারও রাজধানীর পাঁচটি স্থান থেকে ঈদের অগ্রিম টিকিট দেয়া হচ্ছে। এরমধ্যে রাজশাহী খুলনা ও রংপুর বিভাগের টিকিট কমলাপুরে পাওয়া যাচ্ছে। বিমানবন্দর স্টেশনে দেয়া হচ্ছে নোয়াখালী ও চট্টগ্রামের টিকিটসহ সব আন্তঃনগর ট্রেনের টিকিট। তেজঁগাওয়ে দেয়া হচ্ছে ময়মনসিংহ ও জামালপুরগামী ট্রেনের টিকিট। বনানী থেকে নেত্রকোনাগামী এবং পুরাতন ফুলবাড়িয়া স্টেশন থেকে দেয়া হচ্ছে সিলেট ও কিশোরগঞ্জের টিকেট।