১৭, আগস্ট, ২০১৯, শনিবার | | ১৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০


ফেসবুকে ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়ানোর দায়ে মাদ্রাসা শিক্ষক আটক

রিপোর্টার নামঃ জেলা প্রতিনিধি | আপডেট: ২৯ জুলাই ২০১৯, ০১:৪৯ পিএম

ফেসবুকে ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়ানোর দায়ে মাদ্রাসা শিক্ষক আটক
ফেসবুকে ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়ানোর দায়ে মাদ্রাসা শিক্ষক আটক

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ধর্মীয় ও রাষ্ট্রবিরোধী উস্কানিমূলক পোস্ট দিয়ে গুজব ও বিভ্রান্তি ছড়ানোর অভিযোগে মোঃ দিদারুল ইসলাম দিদার নামে এ মাদ্রাসা শিক্ষককে আটক করেছে র‌্যাব-১১।

২৮ জুলাই রবিবার বিকেলে নোয়াখালীর সুধারামের ফকিরপুর এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। এসময় তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়। তিনি সেখানকার দারুল ইসলাম মডেল মাদ্রসার সহকারি শিক্ষক।

২৯ জুলাই সোমবার দুপুরে সিপিসি-৩, র‌্যাব-১১ লক্ষ্মীপুর ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক নরেশ চাকমা তার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।

তিনি আরো জানান, মাদ্রাসা শিক্ষক দিদার দীর্ঘদিন যাবত মোবাইল ফোন সহ বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস ব্যবহার করে ফেসবুকের মাধ্যমে বিভ্রান্তিমূলক বিভিন্ন ছবি, ভিডিও ও তথ্য প্রচার সহ ধর্মীয় উস্কানিমূলক মিথ্যা ও বিদ্বেষপূর্ণ স্ট্যাটাস দিয়ে গুজব রটিয়ে ধর্মীয় ও সামাজিক সম্প্রীতি নষ্টের চক্রান্ত করে আসছেন।

তিনি আরো জানান, তার ব্যবহৃত ফেসবুক পেইজ (গউ উরফধৎ টষষ ওংষধস) থেকে ক্রমাগত মিথ্যা বিভ্রান্তিমূলক ও ধর্মীয় উস্কানিমূলক গুজব ছড়িয়ে সাম্প্রদায়িক সংঘাত সৃষ্টির অপচেষ্টা করে। এছাড়াও প্রধানমন্ত্রীকে হেয় প্রতিপন্ন কের ফেসবুকে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে বিভ্রান্তিমূলক স্ট্য্টাাস দিয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানান তিনি।

আটককৃত মোঃ দিদারুল ইসলাম দিদার নোয়াখালীর সুধারাম থানাধীন ফকিরপুর এলাকার শামসুল আলমের ছেলে।


ফেসবুকে ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়ানোর দায়ে মাদ্রাসা শিক্ষক আটক

প্রতিবেদক নাম: জেলা প্রতিনিধি ,

প্রকাশের সময়ঃ ২৯ জুলাই ২০১৯, ০১:৪৯ পিএম

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ধর্মীয় ও রাষ্ট্রবিরোধী উস্কানিমূলক পোস্ট দিয়ে গুজব ও বিভ্রান্তি ছড়ানোর অভিযোগে মোঃ দিদারুল ইসলাম দিদার নামে এ মাদ্রাসা শিক্ষককে আটক করেছে র‌্যাব-১১।

২৮ জুলাই রবিবার বিকেলে নোয়াখালীর সুধারামের ফকিরপুর এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। এসময় তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়। তিনি সেখানকার দারুল ইসলাম মডেল মাদ্রসার সহকারি শিক্ষক।

২৯ জুলাই সোমবার দুপুরে সিপিসি-৩, র‌্যাব-১১ লক্ষ্মীপুর ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক নরেশ চাকমা তার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।

তিনি আরো জানান, মাদ্রাসা শিক্ষক দিদার দীর্ঘদিন যাবত মোবাইল ফোন সহ বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস ব্যবহার করে ফেসবুকের মাধ্যমে বিভ্রান্তিমূলক বিভিন্ন ছবি, ভিডিও ও তথ্য প্রচার সহ ধর্মীয় উস্কানিমূলক মিথ্যা ও বিদ্বেষপূর্ণ স্ট্যাটাস দিয়ে গুজব রটিয়ে ধর্মীয় ও সামাজিক সম্প্রীতি নষ্টের চক্রান্ত করে আসছেন।

তিনি আরো জানান, তার ব্যবহৃত ফেসবুক পেইজ (গউ উরফধৎ টষষ ওংষধস) থেকে ক্রমাগত মিথ্যা বিভ্রান্তিমূলক ও ধর্মীয় উস্কানিমূলক গুজব ছড়িয়ে সাম্প্রদায়িক সংঘাত সৃষ্টির অপচেষ্টা করে। এছাড়াও প্রধানমন্ত্রীকে হেয় প্রতিপন্ন কের ফেসবুকে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে বিভ্রান্তিমূলক স্ট্য্টাাস দিয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানান তিনি।

আটককৃত মোঃ দিদারুল ইসলাম দিদার নোয়াখালীর সুধারাম থানাধীন ফকিরপুর এলাকার শামসুল আলমের ছেলে।