২০, আগস্ট, ২০১৯, মঙ্গলবার | | ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০


যেকোন ওয়েবসাইটের এসইও অডিট চেক করবেন কিভাবে ?

রিপোর্টার নামঃ প্রতিদিনের কাগজ' রিপোর্ট | আপডেট: ২৩ জুলাই ২০১৯, ১২:৫০ পিএম

যেকোন ওয়েবসাইটের এসইও অডিট চেক করবেন কিভাবে ?
যেকোন ওয়েবসাইটের এসইও অডিট চেক করবেন কিভাবে ?

এসইও অডিট প্রত্যেকটি সাইটের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ণ। এসইও অডিটের মাধ্যমে সাইটের দুর্বলতাগুলো বের হয়ে আসে । ওয়েবসাইটের অর্গানিক ভিজিটর পাওয়ার জন্য কি কি করতে হবে, কোন কোন বিষয় উন্নত করতে হবে তা বের হয়ে আসে । এসইও অডিট শেষে গুরুত্বপুর্ণ বিষয় সমুহ লিপিবদ্ধ করুন । তবে কি কি দুর্বলতা আছে তা না লিখে কি কি উন্নত করতে হবে তা লিখুন ।

এক নজরে বিস্তারিত [hide]


    এসইও অডিট চেকলিষ্ট

    ১. ইনডেক্সকৃত পেজের সংখ্যা


    ক. সাইটের কতটি পেজ গুগল ইনডেক্স করেছে তা দেখুন । তা দেখার জন্য গুগলে সার্চ করুন site:www.careersourcebd.com এই ভাবে ।

    খ. মোট কতটি পেজ ফলাফলে প্রদর্শন করছে তা দেখুন।

    গ. আপনার হোম পেজ কি ফলাফলের প্রথমে দেখাচ্ছে ?

    ঘ. আপনার হোম পেজ যদি প্রথমে না দেখায় তবে অবশ্যই আপনার সাইটের এসইওতে কোন সমস্যা রয়েছে। যেমন গুগল কর্তৃক পেনাল্টি, দুর্বল সাইটের গঠন বা নিজের ভিতরের লিংকিং এ সমস্যা বা অন্য কোন সমস্যা রয়েছে।গুগলের জন মুলার ভাষ্য অনুসারে এই বিষয়টি গুরুত্বপুর্ণ নয়।

    ২. গুগল অ্যানালাইটিক্সের মাধ্যমে অর্গানিক ল্যান্ডিং পেজের সংখ্যা


    ক. অর্গানিক ল্যান্ডিং পেজের সংখ্যা কি site:www.careersourcebd.com এর সমান।

    খ. এর দ্বারা নির্ধারণ করা যায় মোট কতটি পেজ সার্চ ইঞ্জিনে গুরুত্বপুর্ণ।

    ৩. ব্রান্ড এবং ব্রান্ড টার্ম দিয়ে সার্চ করুন


    ক.আপনার ব্রান্ডের নাম দিয়ে সার্চের ক্ষেত্রে কি আপনার হোম পেজ বা সঠিক পেজটি দেখাচ্ছে ?

    খ. যদি না দেখায় তবে আপনি গুগল পেনাল্টি বা দুর্বল এসইও এর স্বীকার হতে পারেন ।

    ৪. গুগল ক্যাশ চেক করুন


    ক. তা কি আপডেটেড পেজ দেখাচ্ছে ?

    খ. নেভিগেশন লিংক কি দেখাচ্ছে

    গ. এমন কোন লিংক কি দেখাচ্ছে যা আপনার সাইটের অন্তর্ভুক্ত নয়

    টিপস: আপনার সাইটের টেক্সট ভার্সনের ক্যাশ দেখুন।

    ৫. আপনার সাইট বা ব্রান্ডের মুল শব্দ দিয়ে মোবাইল সার্চ করুন


    ক. সার্চের শুরুতে কি “mobile Friendly” শব্দটি দেখাচ্ছে ?

    খ. আপনার ল্যান্ডিং পেজগুলো কি মোবাইল ফ্রেন্ডলি ?

    গ. উত্তর যদি হয় না , তাহলে এটি আপনার সাইটের অর্গানিক ট্রাফিক কমার জন্য দায়ী ।


    অনপেজ অপটিমাইজেশন

    ১. টাইটেল ট্যাগ অপটিমাইজেশন


    ক. টাইটেল ট্যাগ অবশ্যই এসইও ফ্রেন্ডলি ও মৌলিক হতে হবে ।

    খ. আপনার ব্রান্ডের নাম টাইটেল ট্যাগে যুক্ত করুন । তা আপনার সাইটের ক্লিকের হার (CTR) বাড়িয়ে দিবে।

    গ. টাইটেল ট্যাগ ৫৫-৬০ বর্ণের মধ্যে কিংবা ৫১২ পিক্সেল হলেই তা সার্চ ফলাফলে সম্পুর্ণ প্রদর্শন করবে।

    ২. গুরুত্বপুর্ণ পেজ গুলোর ক্লিক রেট পরীক্ষা করুন


    ক. গুরুত্বপুর্ণ পেজ গুলোর ক্লিক রেট পরীক্ষা করে আপনার সাইটের টাইটেল ও মেটা ডিসক্রিপশন ঠিক করুন ।

    খ. এর জন্য SERP Turkey ব্যবহার করতে পারেন ।

    ৩. ওয়েব পেজে টাইটেল ও মেটা ডিসক্রিপশন দেওয়া হয় নি এমন পেজগুলো খুজে বের করুন।


    ক. পেজের কন্টেন্ট প্রাইমারি কিওয়ার্ড এবং বিকল্প কিওয়ার্ড ব্যবহার হয়েছে দেখুন।

    খ. কন্টেন্ট কি মৌলিক কিনা চেক করুন ।

    গ. প্রাইমারি কিওয়ার্ড হেডিং ট্যাগে ব্যবহৃত হয়েছে কিনা দেখুন।

    ঘ. ছবিতে ফাইল নেম ও Alt ট্যাগ ব্যবহৃত হয়েছে কিনা দেখুন । তাতে কি প্রাইমারি কিওয়ার্ডগুলো অন্তর্ভুক্ত হয়েছে কিনা লক্ষ্য করুন ।

    ৪. ইউআরএল গুলো বর্ণনাধর্মী এবং এসইও অপটিমাইজড কিনা লক্ষ্য করুন


    ক. ইউআরএলের মধ্যে কিওয়ার্ড অন্তর্ভুক্ত করুন । না হলে ইউআরএল পরিবর্তন করুন। যদিও কিওয়ার্ড অন্তভুক্ত করা এসইও এর জন্য উপকারী তবে পুরাতন সাইটের ক্ষেত্রে ইউআরএল পরিবর্তন করতে হলে অবশ্যই এর সাথে সম্পর্কিত ইনবাউন্ড এবং বাহিরের লিংক সমুহ পরিবর্তন করুন। ৩

    যেকোন ওয়েবসাইটের এসইও অডিট চেক করবেন কিভাবে ?

    প্রতিবেদক নাম: প্রতিদিনের কাগজ' রিপোর্ট ,

    প্রকাশের সময়ঃ ২৩ জুলাই ২০১৯, ১২:৫০ পিএম

    এসইও অডিট প্রত্যেকটি সাইটের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ণ। এসইও অডিটের মাধ্যমে সাইটের দুর্বলতাগুলো বের হয়ে আসে । ওয়েবসাইটের অর্গানিক ভিজিটর পাওয়ার জন্য কি কি করতে হবে, কোন কোন বিষয় উন্নত করতে হবে তা বের হয়ে আসে । এসইও অডিট শেষে গুরুত্বপুর্ণ বিষয় সমুহ লিপিবদ্ধ করুন । তবে কি কি দুর্বলতা আছে তা না লিখে কি কি উন্নত করতে হবে তা লিখুন ।

    এক নজরে বিস্তারিত [hide]


      এসইও অডিট চেকলিষ্ট

      ১. ইনডেক্সকৃত পেজের সংখ্যা


      ক. সাইটের কতটি পেজ গুগল ইনডেক্স করেছে তা দেখুন । তা দেখার জন্য গুগলে সার্চ করুন site:www.careersourcebd.com এই ভাবে ।

      খ. মোট কতটি পেজ ফলাফলে প্রদর্শন করছে তা দেখুন।

      গ. আপনার হোম পেজ কি ফলাফলের প্রথমে দেখাচ্ছে ?

      ঘ. আপনার হোম পেজ যদি প্রথমে না দেখায় তবে অবশ্যই আপনার সাইটের এসইওতে কোন সমস্যা রয়েছে। যেমন গুগল কর্তৃক পেনাল্টি, দুর্বল সাইটের গঠন বা নিজের ভিতরের লিংকিং এ সমস্যা বা অন্য কোন সমস্যা রয়েছে।গুগলের জন মুলার ভাষ্য অনুসারে এই বিষয়টি গুরুত্বপুর্ণ নয়।

      ২. গুগল অ্যানালাইটিক্সের মাধ্যমে অর্গানিক ল্যান্ডিং পেজের সংখ্যা


      ক. অর্গানিক ল্যান্ডিং পেজের সংখ্যা কি site:www.careersourcebd.com এর সমান।

      খ. এর দ্বারা নির্ধারণ করা যায় মোট কতটি পেজ সার্চ ইঞ্জিনে গুরুত্বপুর্ণ।

      ৩. ব্রান্ড এবং ব্রান্ড টার্ম দিয়ে সার্চ করুন


      ক.আপনার ব্রান্ডের নাম দিয়ে সার্চের ক্ষেত্রে কি আপনার হোম পেজ বা সঠিক পেজটি দেখাচ্ছে ?

      খ. যদি না দেখায় তবে আপনি গুগল পেনাল্টি বা দুর্বল এসইও এর স্বীকার হতে পারেন ।

      ৪. গুগল ক্যাশ চেক করুন


      ক. তা কি আপডেটেড পেজ দেখাচ্ছে ?

      খ. নেভিগেশন লিংক কি দেখাচ্ছে

      গ. এমন কোন লিংক কি দেখাচ্ছে যা আপনার সাইটের অন্তর্ভুক্ত নয়

      টিপস: আপনার সাইটের টেক্সট ভার্সনের ক্যাশ দেখুন।

      ৫. আপনার সাইট বা ব্রান্ডের মুল শব্দ দিয়ে মোবাইল সার্চ করুন


      ক. সার্চের শুরুতে কি “mobile Friendly” শব্দটি দেখাচ্ছে ?

      খ. আপনার ল্যান্ডিং পেজগুলো কি মোবাইল ফ্রেন্ডলি ?

      গ. উত্তর যদি হয় না , তাহলে এটি আপনার সাইটের অর্গানিক ট্রাফিক কমার জন্য দায়ী ।


      অনপেজ অপটিমাইজেশন

      ১. টাইটেল ট্যাগ অপটিমাইজেশন


      ক. টাইটেল ট্যাগ অবশ্যই এসইও ফ্রেন্ডলি ও মৌলিক হতে হবে ।

      খ. আপনার ব্রান্ডের নাম টাইটেল ট্যাগে যুক্ত করুন । তা আপনার সাইটের ক্লিকের হার (CTR) বাড়িয়ে দিবে।

      গ. টাইটেল ট্যাগ ৫৫-৬০ বর্ণের মধ্যে কিংবা ৫১২ পিক্সেল হলেই তা সার্চ ফলাফলে সম্পুর্ণ প্রদর্শন করবে।

      ২. গুরুত্বপুর্ণ পেজ গুলোর ক্লিক রেট পরীক্ষা করুন


      ক. গুরুত্বপুর্ণ পেজ গুলোর ক্লিক রেট পরীক্ষা করে আপনার সাইটের টাইটেল ও মেটা ডিসক্রিপশন ঠিক করুন ।

      খ. এর জন্য SERP Turkey ব্যবহার করতে পারেন ।

      ৩. ওয়েব পেজে টাইটেল ও মেটা ডিসক্রিপশন দেওয়া হয় নি এমন পেজগুলো খুজে বের করুন।


      ক. পেজের কন্টেন্ট প্রাইমারি কিওয়ার্ড এবং বিকল্প কিওয়ার্ড ব্যবহার হয়েছে দেখুন।

      খ. কন্টেন্ট কি মৌলিক কিনা চেক করুন ।

      গ. প্রাইমারি কিওয়ার্ড হেডিং ট্যাগে ব্যবহৃত হয়েছে কিনা দেখুন।

      ঘ. ছবিতে ফাইল নেম ও Alt ট্যাগ ব্যবহৃত হয়েছে কিনা দেখুন । তাতে কি প্রাইমারি কিওয়ার্ডগুলো অন্তর্ভুক্ত হয়েছে কিনা লক্ষ্য করুন ।

      ৪. ইউআরএল গুলো বর্ণনাধর্মী এবং এসইও অপটিমাইজড কিনা লক্ষ্য করুন


      ক. ইউআরএলের মধ্যে কিওয়ার্ড অন্তর্ভুক্ত করুন । না হলে ইউআরএল পরিবর্তন করুন। যদিও কিওয়ার্ড অন্তভুক্ত করা এসইও এর জন্য উপকারী তবে পুরাতন সাইটের ক্ষেত্রে ইউআরএল পরিবর্তন করতে হলে অবশ্যই এর সাথে সম্পর্কিত ইনবাউন্ড এবং বাহিরের লিংক সমুহ পরিবর্তন করুন। ৩