১৮, আগস্ট, ২০১৯, রোববার | | ১৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০


সূর্যালোকে ও ওজন কমে!

রিপোর্টার নামঃ লাইফস্টাইল।। প্রতিদিনের কাগজ | আপডেট: ১৪ জুলাই ২০১৯, ০৭:৫০ পিএম

সূর্যালোকে ও ওজন কমে!
সূর্যালোকে ও ওজন কমে!

ভিটামিন-ডি আমাদের হাড় শক্ত করে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। আমরা জানি, ভিটামিন-ডি এর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উত্‍স হলো সূর্যালোক। কিন্তু আপনি জানেন কি ভিটামিন-ডি শরীরের অতিরিক্ত ওজন কমতেও সাহায্য করে? এমনটাই বলছে সমীক্ষা। গবেষণা বলছে, ভিটামিন-ডি শরীরে ক্যালসিয়াম ফসফরাস শুষে নিতে সাহায্য করে।

যদি ‘ওয়ার্ক আউট’ করে, খাওয়া কমিয়েও ওজন না কমে তাহলে শরীরের ভিটামিন-ডি ঠিক পরিমাণ আছে কিনা, তা পরীক্ষা করিয়ে নিন। শরীরে ভিটামিন-ডি কম থাকলেও ওজন বেড়ে যায়। সূর্যালোকেই প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন-ডি মজুত রয়েছে। তবুও বিশ্বের জনসংখ্যার ৫০ শতাংশই ভিটামিন ডি-র অভাবে ভুগছে। ঠিক কীভাবে ভিটামিন-ডি ওজন কমাতে সাহায্য করে, তা নিয়ে এখনও গবেষণা চলছে। সমীক্ষায় দেখা গেছে, মোটা মানুষদের শরীরে ভিটামিন-ডি কম থাকে।

তাই শরীরে ভিটামিন ডি-র পরিমাণ বাড়াতে গায়ে রোদ লাগান। সকালে উঠে খোলা জায়গায় হাঁটুন। তবে আটটার পরে সরাসরি রোদে বেশিক্ষণ না থাকাই ভালো। সূর্যালোক ছাড়াও দুধ, কড লিভার অয়েল, অ্যামন্ড, দই, ডিম, মাশরুমে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন-ডি রয়েছে।


সূর্যালোকে ও ওজন কমে!

প্রতিবেদক নাম: লাইফস্টাইল।। প্রতিদিনের কাগজ ,

প্রকাশের সময়ঃ ১৪ জুলাই ২০১৯, ০৭:৫০ পিএম

ভিটামিন-ডি আমাদের হাড় শক্ত করে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। আমরা জানি, ভিটামিন-ডি এর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উত্‍স হলো সূর্যালোক। কিন্তু আপনি জানেন কি ভিটামিন-ডি শরীরের অতিরিক্ত ওজন কমতেও সাহায্য করে? এমনটাই বলছে সমীক্ষা। গবেষণা বলছে, ভিটামিন-ডি শরীরে ক্যালসিয়াম ফসফরাস শুষে নিতে সাহায্য করে।

যদি ‘ওয়ার্ক আউট’ করে, খাওয়া কমিয়েও ওজন না কমে তাহলে শরীরের ভিটামিন-ডি ঠিক পরিমাণ আছে কিনা, তা পরীক্ষা করিয়ে নিন। শরীরে ভিটামিন-ডি কম থাকলেও ওজন বেড়ে যায়। সূর্যালোকেই প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন-ডি মজুত রয়েছে। তবুও বিশ্বের জনসংখ্যার ৫০ শতাংশই ভিটামিন ডি-র অভাবে ভুগছে। ঠিক কীভাবে ভিটামিন-ডি ওজন কমাতে সাহায্য করে, তা নিয়ে এখনও গবেষণা চলছে। সমীক্ষায় দেখা গেছে, মোটা মানুষদের শরীরে ভিটামিন-ডি কম থাকে।

তাই শরীরে ভিটামিন ডি-র পরিমাণ বাড়াতে গায়ে রোদ লাগান। সকালে উঠে খোলা জায়গায় হাঁটুন। তবে আটটার পরে সরাসরি রোদে বেশিক্ষণ না থাকাই ভালো। সূর্যালোক ছাড়াও দুধ, কড লিভার অয়েল, অ্যামন্ড, দই, ডিম, মাশরুমে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন-ডি রয়েছে।