২০, আগস্ট, ২০১৯, মঙ্গলবার | | ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০


একসময়ের গ্রামীণ ঐত্যিহের অবিচ্ছেদ্য অংশ নকশিকাঁথা

রিপোর্টার নামঃ প্রতিদিনের কাগজ রিপোর্ট | আপডেট: ০৭ জুলাই ২০১৯, ১১:৩৪ এএম

একসময়ের গ্রামীণ ঐত্যিহের অবিচ্ছেদ্য অংশ নকশিকাঁথা
একসময়ের গ্রামীণ ঐত্যিহের অবিচ্ছেদ্য অংশ নকশিকাঁথা

একসময়ের গ্রামীণ ঐত্যিহের অবিচ্ছেদ্য অংশ নকশিকাঁথা। কেবল সুই আর সুতোর কারুকাজ নয়, এ যেন চিরন্তন বাঙালির ভালোবাসার গল্প বুনন।  সুচের ফোঁড়ে আর বাহারি রঙের সুতোয় বিভিন্ন নকশা স্থান করে নেয় নকশিকাঁথায়।  গ্রামীণ নারীরা মনের মাধুরী মিশিয়ে তৈরি করেন এসব কাঁথা।  যেখানে নতুন আর পুরনো কাপড়ে তৈরি এসব কাঁথায় সুচের ফোঁড়ে মনের বাসনা ফুটে ওঠে।  তবে কালের বিবর্তনে নকশিকাঁথা এখন অনেকটা বিলীনের পথে।  ছবিটি জামালপুর জেলার মেলান্দহের বাগবাড়ী এলাকা থেকে তোলা।  শনিবার, ০৬ জুলাই। 


একসময়ের গ্রামীণ ঐত্যিহের অবিচ্ছেদ্য অংশ নকশিকাঁথা

প্রতিবেদক নাম: প্রতিদিনের কাগজ রিপোর্ট ,

প্রকাশের সময়ঃ ০৭ জুলাই ২০১৯, ১১:৩৪ এএম

একসময়ের গ্রামীণ ঐত্যিহের অবিচ্ছেদ্য অংশ নকশিকাঁথা। কেবল সুই আর সুতোর কারুকাজ নয়, এ যেন চিরন্তন বাঙালির ভালোবাসার গল্প বুনন।  সুচের ফোঁড়ে আর বাহারি রঙের সুতোয় বিভিন্ন নকশা স্থান করে নেয় নকশিকাঁথায়।  গ্রামীণ নারীরা মনের মাধুরী মিশিয়ে তৈরি করেন এসব কাঁথা।  যেখানে নতুন আর পুরনো কাপড়ে তৈরি এসব কাঁথায় সুচের ফোঁড়ে মনের বাসনা ফুটে ওঠে।  তবে কালের বিবর্তনে নকশিকাঁথা এখন অনেকটা বিলীনের পথে।  ছবিটি জামালপুর জেলার মেলান্দহের বাগবাড়ী এলাকা থেকে তোলা।  শনিবার, ০৬ জুলাই।