২০, আগস্ট, ২০১৯, মঙ্গলবার | | ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০


দুবাই শাসকের সেই স্ত্রী পালিয়ে সুখেই আছেন

রিপোর্টার নামঃ ভিন্ন স্বাদের খবর | আপডেট: ০৬ জুলাই ২০১৯, ১০:১৮ পিএম

দুবাই শাসকের সেই স্ত্রী পালিয়ে সুখেই আছেন
দুবাই শাসকের সেই স্ত্রী পালিয়ে সুখেই আছেন

সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ের শাসক শেখ মোহাম্মেদ আল মাখতুমের স্ত্রী প্রিন্সেস হায়া (৪৫) পালিয়ে গেছেন। তিনি এখন দেশ ছেড়ে লন্ডনে অবস্থান করছেন। বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে- অভিযোগ উঠেছে, পালানোর সময় বিপুল পরিমাণ অর্থ সাথে করে নিয়ে গেছেন তিনি। কিন্তু দুবাইয়ের বিলাসবহুল জীবন ছেড়ে কেন তিনি পালালেন?

তবে গার্ডিয়ানের খবর বলছে, এ ঘটনায় লন্ডনে আইনি লড়াই শুরু হয়েছে। ব্রিটিশ সরকার এতে প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। জর্ডানের বাদশাহ প্রয়াত হুসেইনের মেয়ে হায়া বিনতে আল হুসেইন ব্রিটেনে পড়াশোনা করেছেন। তিনি শেখ মোহাম্মদ বিন রাশিদ আল মাখতুমের ষষ্ঠ স্ত্রী। হায়া প্রথমে জার্মানিতে গিয়ে আশ্রয় চেয়েছিলেন। কিন্তু পরে বুঝতে পারেন, কেনসিংটন প্যালেস গার্ডেনসের সাড়ে আট কোটি ডলারের বাড়িতেই থাকতে হবে তাকে।

বিশ্বের সবচেয়ে দামি বাড়িগুলো এই কেনসিংটন সড়কে অবস্থিত। এগারো বছর বয়সী রাজকন্যা জলিলা, সাত বছরের জায়েদকে নিয়ে তিনি পালিয়েছেন। ইতোমধ্যে ৬৯ বছর বয়সী ধনকুবের শেখ মোহাম্মদ ইনস্টাগ্রামে একটি কবিতা পোস্ট করেছেন। এতে অজ্ঞাত এক নারীর প্রতারণা ও বিশ্বাসঘাতকতার যোগ সূত্রের কথা বলেছেন।

বিবিসির খবর বলছে, সৎ মেয়ে শেখ লতিফার ভাগ্যে যে হতাশাজনক ঘটনা ঘটেছে, তাতে উদ্বেগজনকভাবে সতর্ক ছিলেন শেখ হায়া। শেখ মোহাম্মদের বিভিন্ন স্ত্রীর গর্ভে জন্ম নেয়া ২৩ সন্তানের একজন হচ্ছেন এই লতিফা। গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে আরব আমিরাত থেকে তিনি পালাতে চেষ্টা করেছিলেন। তাকে সহায়তা করেছিলেন ফ্রান্সের সাবেক এক গোয়েন্দা।

একটি ইয়ট ভাড়া করে তিনি পালাচ্ছিলেন। তার বাবা তাকে নির্যাতন করতেন এবং কারাগারে আটকে রাখতেন বলে তিনি অভিযোগ করেন। কিন্তু ভারত মহাসাগরে ইয়ট থেকে আরব আমিরাতের বিশেষ বাহিনী তাকে টেনে-হিঁচরে নিয়ে গেছে। পরবর্তী ১০ মাসে তার কোনো হদিস ছিল না। এরপর আমিরাতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তার একটি ছবি প্রকাশ করেছিল।

পাশাপাশি জানানো হয়, তিনি বাড়িতে নিরাপদ ও সুখে আছেন। এ ঘটনায় নিজের স্বামীকে সমর্থন করে গেছেন ৪৫ বছর বয়সী রাজকুমারী হায়া।

দুবাই শাসকের সেই স্ত্রী পালিয়ে সুখেই আছেন

প্রতিবেদক নাম: ভিন্ন স্বাদের খবর ,

প্রকাশের সময়ঃ ০৬ জুলাই ২০১৯, ১০:১৮ পিএম

সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ের শাসক শেখ মোহাম্মেদ আল মাখতুমের স্ত্রী প্রিন্সেস হায়া (৪৫) পালিয়ে গেছেন। তিনি এখন দেশ ছেড়ে লন্ডনে অবস্থান করছেন। বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে- অভিযোগ উঠেছে, পালানোর সময় বিপুল পরিমাণ অর্থ সাথে করে নিয়ে গেছেন তিনি। কিন্তু দুবাইয়ের বিলাসবহুল জীবন ছেড়ে কেন তিনি পালালেন?

তবে গার্ডিয়ানের খবর বলছে, এ ঘটনায় লন্ডনে আইনি লড়াই শুরু হয়েছে। ব্রিটিশ সরকার এতে প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। জর্ডানের বাদশাহ প্রয়াত হুসেইনের মেয়ে হায়া বিনতে আল হুসেইন ব্রিটেনে পড়াশোনা করেছেন। তিনি শেখ মোহাম্মদ বিন রাশিদ আল মাখতুমের ষষ্ঠ স্ত্রী। হায়া প্রথমে জার্মানিতে গিয়ে আশ্রয় চেয়েছিলেন। কিন্তু পরে বুঝতে পারেন, কেনসিংটন প্যালেস গার্ডেনসের সাড়ে আট কোটি ডলারের বাড়িতেই থাকতে হবে তাকে।

বিশ্বের সবচেয়ে দামি বাড়িগুলো এই কেনসিংটন সড়কে অবস্থিত। এগারো বছর বয়সী রাজকন্যা জলিলা, সাত বছরের জায়েদকে নিয়ে তিনি পালিয়েছেন। ইতোমধ্যে ৬৯ বছর বয়সী ধনকুবের শেখ মোহাম্মদ ইনস্টাগ্রামে একটি কবিতা পোস্ট করেছেন। এতে অজ্ঞাত এক নারীর প্রতারণা ও বিশ্বাসঘাতকতার যোগ সূত্রের কথা বলেছেন।

বিবিসির খবর বলছে, সৎ মেয়ে শেখ লতিফার ভাগ্যে যে হতাশাজনক ঘটনা ঘটেছে, তাতে উদ্বেগজনকভাবে সতর্ক ছিলেন শেখ হায়া। শেখ মোহাম্মদের বিভিন্ন স্ত্রীর গর্ভে জন্ম নেয়া ২৩ সন্তানের একজন হচ্ছেন এই লতিফা। গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে আরব আমিরাত থেকে তিনি পালাতে চেষ্টা করেছিলেন। তাকে সহায়তা করেছিলেন ফ্রান্সের সাবেক এক গোয়েন্দা।

একটি ইয়ট ভাড়া করে তিনি পালাচ্ছিলেন। তার বাবা তাকে নির্যাতন করতেন এবং কারাগারে আটকে রাখতেন বলে তিনি অভিযোগ করেন। কিন্তু ভারত মহাসাগরে ইয়ট থেকে আরব আমিরাতের বিশেষ বাহিনী তাকে টেনে-হিঁচরে নিয়ে গেছে। পরবর্তী ১০ মাসে তার কোনো হদিস ছিল না। এরপর আমিরাতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তার একটি ছবি প্রকাশ করেছিল।

পাশাপাশি জানানো হয়, তিনি বাড়িতে নিরাপদ ও সুখে আছেন। এ ঘটনায় নিজের স্বামীকে সমর্থন করে গেছেন ৪৫ বছর বয়সী রাজকুমারী হায়া।