২০, আগস্ট, ২০১৯, মঙ্গলবার | | ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০


শতবর্ষী খুদ বানুর চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন ডা. মাহবুবুল হক

রিপোর্টার নামঃ নিউজ ডেস্ক।। প্রতিদিনের কাগজ | আপডেট: ২৫ জুন ২০১৯, ১২:৪৭ এএম

শতবর্ষী খুদ বানুর চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন ডা. মাহবুবুল হক
শতবর্ষী খুদ বানুর চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন ডা. মাহবুবুল হক

নেত্রকোনার মদন উপজেলার শিবাশ্রম গ্রামের অসহায় হতদরিদ্র সেই শতবর্ষী খুদ বানুর চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. এ কে মাহবুবুল হক ও রোটারি ক্লাব অব স্কাইলাইন ঢাকা।

সোমবার তাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়েছে। খুদ বানু ডি ব্লক, ১৬/বি এফএনপি-১৪-এ চিকিৎসা নিচ্ছেন।

সোমবার যুগান্তরকে এ বিষয়ে নিশ্চিত করেছেন শিবাশ্রম সমাজ কল্যাণ সংঘের সভাপতি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকল্যাণ অ্যালামনাই ফোরামের সাধারণ সম্পাদক মো. জুবায়াদুর রহমান সৌরভ।

খুদ বানু দীর্ঘদিন ধরে বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। শতবর্ষী হলেও জুটছিল না তার কপালে বয়স্ক ভাতার কোনো কার্ড।

যুগান্তরে গত ২৭ মে সংবাদ প্রকাশ হলে প্রশাসনের নজরে আসে এবং জরুরি ভিত্তিতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বয়স্ক ভাতার কার্ডের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

ভিটাবাড়ি পর্যন্ত নেই খুদ বানুর। গ্রামের কিছু যুবক তাকে ঝুপড়ি ঘর তৈরি করে দিয়েছেন। সেখানেই কষ্টে দিন যাপন করেন খুদ বানু।

শিবাশ্রম সমাজ কল্যাণ সংঘের সভাপতি ও ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয়ের সমাজকল্যাণ অ্যালামনাই ফোরামের সাধারণ সম্পাদক মো. জুবায়াদুর রহমান সৌরভ বলেন, যুগান্তরে সংবাদ প্রকাশ করার পর প্রশাসনের পক্ষ থেকে একটি বয়স্ক ভাতার কার্ড ব্যবস্থা করা হয়েছে। তিনি খুব অসুস্থ তাই ডা. এ কে মাহবুবুল হক ও রোটারি ক্লাব অব স্কাইলাইন ঢাকাকে বিষয়টি জানালে উনারা তার চিকিৎসার ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন।

রোটারি ক্লাব অব স্কাইলাইন ঢাকার সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী মোহাম্মদ নওশাদুল হক বলেন, উনাকে আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে চিকিৎসার ব্যয়ভার গ্রহণ করছি।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ব বিদ্যালয়ের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. এ কে মাহবুবুল হক মোবাইল ফোনে জানান, উনার কেউ নেই। একজন অসহায় হতদরিদ্র ১৩০ বয়সের বৃদ্ধাকে সেবা দিতে পেরে আমি খুবই নিজেকে গর্বিত বোধ করছি। উনাকে আমরা সব প্রকার চিকিৎসা করব। বয়স নির্ধারণ করার জন্য বিভিন্ন পরীক্ষা করা হবে। তিনি গিনেস রেকর্ড গড়বে। আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি খুদ বানু যেন বাকি জীবন ভালভাবে কাটাতে পারে সে ব্যবস্থা গ্রহণ করেন।

শতবর্ষী খুদ বানুর চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন ডা. মাহবুবুল হক

প্রতিবেদক নাম: নিউজ ডেস্ক।। প্রতিদিনের কাগজ ,

প্রকাশের সময়ঃ ২৫ জুন ২০১৯, ১২:৪৭ এএম

নেত্রকোনার মদন উপজেলার শিবাশ্রম গ্রামের অসহায় হতদরিদ্র সেই শতবর্ষী খুদ বানুর চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. এ কে মাহবুবুল হক ও রোটারি ক্লাব অব স্কাইলাইন ঢাকা।

সোমবার তাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়েছে। খুদ বানু ডি ব্লক, ১৬/বি এফএনপি-১৪-এ চিকিৎসা নিচ্ছেন।

সোমবার যুগান্তরকে এ বিষয়ে নিশ্চিত করেছেন শিবাশ্রম সমাজ কল্যাণ সংঘের সভাপতি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকল্যাণ অ্যালামনাই ফোরামের সাধারণ সম্পাদক মো. জুবায়াদুর রহমান সৌরভ।

খুদ বানু দীর্ঘদিন ধরে বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। শতবর্ষী হলেও জুটছিল না তার কপালে বয়স্ক ভাতার কোনো কার্ড।

যুগান্তরে গত ২৭ মে সংবাদ প্রকাশ হলে প্রশাসনের নজরে আসে এবং জরুরি ভিত্তিতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বয়স্ক ভাতার কার্ডের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

ভিটাবাড়ি পর্যন্ত নেই খুদ বানুর। গ্রামের কিছু যুবক তাকে ঝুপড়ি ঘর তৈরি করে দিয়েছেন। সেখানেই কষ্টে দিন যাপন করেন খুদ বানু।

শিবাশ্রম সমাজ কল্যাণ সংঘের সভাপতি ও ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয়ের সমাজকল্যাণ অ্যালামনাই ফোরামের সাধারণ সম্পাদক মো. জুবায়াদুর রহমান সৌরভ বলেন, যুগান্তরে সংবাদ প্রকাশ করার পর প্রশাসনের পক্ষ থেকে একটি বয়স্ক ভাতার কার্ড ব্যবস্থা করা হয়েছে। তিনি খুব অসুস্থ তাই ডা. এ কে মাহবুবুল হক ও রোটারি ক্লাব অব স্কাইলাইন ঢাকাকে বিষয়টি জানালে উনারা তার চিকিৎসার ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন।

রোটারি ক্লাব অব স্কাইলাইন ঢাকার সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী মোহাম্মদ নওশাদুল হক বলেন, উনাকে আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে চিকিৎসার ব্যয়ভার গ্রহণ করছি।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ব বিদ্যালয়ের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. এ কে মাহবুবুল হক মোবাইল ফোনে জানান, উনার কেউ নেই। একজন অসহায় হতদরিদ্র ১৩০ বয়সের বৃদ্ধাকে সেবা দিতে পেরে আমি খুবই নিজেকে গর্বিত বোধ করছি। উনাকে আমরা সব প্রকার চিকিৎসা করব। বয়স নির্ধারণ করার জন্য বিভিন্ন পরীক্ষা করা হবে। তিনি গিনেস রেকর্ড গড়বে। আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি খুদ বানু যেন বাকি জীবন ভালভাবে কাটাতে পারে সে ব্যবস্থা গ্রহণ করেন।