২০, আগস্ট, ২০১৯, মঙ্গলবার | | ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০


যে দেশে উকুন বিক্রি হয় অধিক মূল্যে!

রিপোর্টার নামঃ ফান চ্যাপ্টার ডেস্ক । প্রতিদিনের কাগজ | আপডেট: ২৪ জুন ২০১৯, ১০:১০ পিএম

যে দেশে উকুন বিক্রি হয় অধিক মূল্যে!
যে দেশে উকুন বিক্রি হয় অধিক মূল্যে!

মাথায় যাতে কোনো ভাবেই উকুন না হয় এর জন্য সবার চেষ্টার কমতি থাকে না। উকুন তাড়াতে বিভিন্ন রকমের দামী দামী প্রসাধনী ব্যবহার করেন অনেকেই। কিন্তু অবাক করা বিষয়টি হলো, এমন এক দেশ রয়েছে যেখানে মাথায় উকুন পোষা হয় এবং তা বিক্রি করা হয়। দুবাইতে অধিক হারে বিক্রি হয় এই উকুন। তাও যেমন তেমন মূল্যে নয়। এক উকুনের মূল্য ১৪ দেরহাম। বাংলাদেশি টাকায় যার মূল্য ৩০০ টাকা। 

গবেষণায় দেখা গেছে, মাথার উকুন চুল ও শরীর স্বাস্থ্যের জন্য বেশ উপকারি। এতে চুল পড়ার সম্ভাবনা কম থাকে। চুল মজবুত থাকে এবং শরীর স্বাস্থ্যবান রাখে।

এ খবর ছড়াতেই দুবাইতে উকুনের কদর বেড়ে গেছে। নারীরাও তাদের মাথায় উকুনের যত্ন নিচ্ছেন উকুন বাড়াচ্ছেন। বলা যায় মাথায় উকুন পালন শুরু করেছেন। আরো জানা যায়, উকুনের চাহিদা বাড়ায় দুবাইয়ের সেলুনগুলো উকুন বিক্রি শুরু করেছেন। যাদের মাথায় বেশি উকুন সেগুলো কিনে বিক্রি করছেন অন্য নারীদের কাছে।

তবে উকুন বিক্রির এই খবর জানাজানি হওয়ার পর দুবাইয়ের হেলথ কন্ট্রোল সেকশন বলেছেন, উকুন বিক্রির সিদ্ধান্তটি অন্যায়। যাকে এ কাজে পাওয়া যাবে তাকে জরিমানা করা হবে।  


প্রতিদিনের কাগজ/ 

যে দেশে উকুন বিক্রি হয় অধিক মূল্যে!

প্রতিবেদক নাম: ফান চ্যাপ্টার ডেস্ক । প্রতিদিনের কাগজ ,

প্রকাশের সময়ঃ ২৪ জুন ২০১৯, ১০:১০ পিএম

মাথায় যাতে কোনো ভাবেই উকুন না হয় এর জন্য সবার চেষ্টার কমতি থাকে না। উকুন তাড়াতে বিভিন্ন রকমের দামী দামী প্রসাধনী ব্যবহার করেন অনেকেই। কিন্তু অবাক করা বিষয়টি হলো, এমন এক দেশ রয়েছে যেখানে মাথায় উকুন পোষা হয় এবং তা বিক্রি করা হয়। দুবাইতে অধিক হারে বিক্রি হয় এই উকুন। তাও যেমন তেমন মূল্যে নয়। এক উকুনের মূল্য ১৪ দেরহাম। বাংলাদেশি টাকায় যার মূল্য ৩০০ টাকা। 

গবেষণায় দেখা গেছে, মাথার উকুন চুল ও শরীর স্বাস্থ্যের জন্য বেশ উপকারি। এতে চুল পড়ার সম্ভাবনা কম থাকে। চুল মজবুত থাকে এবং শরীর স্বাস্থ্যবান রাখে।

এ খবর ছড়াতেই দুবাইতে উকুনের কদর বেড়ে গেছে। নারীরাও তাদের মাথায় উকুনের যত্ন নিচ্ছেন উকুন বাড়াচ্ছেন। বলা যায় মাথায় উকুন পালন শুরু করেছেন। আরো জানা যায়, উকুনের চাহিদা বাড়ায় দুবাইয়ের সেলুনগুলো উকুন বিক্রি শুরু করেছেন। যাদের মাথায় বেশি উকুন সেগুলো কিনে বিক্রি করছেন অন্য নারীদের কাছে।

তবে উকুন বিক্রির এই খবর জানাজানি হওয়ার পর দুবাইয়ের হেলথ কন্ট্রোল সেকশন বলেছেন, উকুন বিক্রির সিদ্ধান্তটি অন্যায়। যাকে এ কাজে পাওয়া যাবে তাকে জরিমানা করা হবে।  


প্রতিদিনের কাগজ/