২২, আগস্ট, ২০১৯, বৃহস্পতিবার | | ২০ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০


কটিয়াদী উপজেলা নির্বাচন : প্রচারণায় এগিয়ে তানিয়া, নিরবে বিদ্রোহীরা

রিপোর্টার নামঃ জেলা প্রতিনিধি।। প্রতিদিনের কাগজ | আপডেট: ১৩ জুন ২০১৯, ০২:০১ পিএম

কটিয়াদী উপজেলা নির্বাচন : প্রচারণায় এগিয়ে তানিয়া, নিরবে বিদ্রোহীরা
কটিয়াদী উপজেলা নির্বাচন : প্রচারণায় এগিয়ে তানিয়া, নিরবে বিদ্রোহীরা

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলা পরিষদের নির্বাচন স্থগিত হওয়ার পর আগামী ১৮ জুন মঙ্গলবার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনকে সামনে রেখে নির্বাচন অফিসও সজাগ রয়েছে । তবে প্রার্থীরা এরই মধ্যে ভোটারদের ঘরে ঘরে দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন। গণসংযোগে ব্যস্ত সময় পার করছেন কেউ কেই।

এই উপজেলায়  আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকার প্রার্থী কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগের সহ-তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক তানিয়া সুলতানা হ্যাপী এরই মধ্যে নির্বাচনে মাঠ জমিয়ে তুলেছেন। বিভিন্ন স্থানে গণসংযোগ,মিটিং মিছিল থেকে শুরু করে শোভাযাত্রা করে যাচ্ছেন। বাদ নেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে প্রচার-প্রচারণা। ফেসবুকেও পুড়ো দমে প্রচারণা চালাচ্ছেন তিনি।   

এই ব্যাপারে কটিয়াদী নির্বাচন কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম জানালেন, নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি বাড়ানোর লক্ষ্যে উপজেলা জুড়ে ব্যাপকভাবে মাইকিং করা হবে। গেল ২৪ মার্চ অনুষ্ঠিত ভোটের অভিযুক্ত পাঁচটি কেন্দ্রের কর্মকর্তাদের কেন্দ্র পরিবর্তন করে অন্যত্র দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে বলে জানিয়ে নির্বাচন কর্মকর্তা আরো বলেন, নির্বাচন কমিশনের নির্ধারন করবে সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশে ভোট অনুষ্ঠিত হবে।

আওয়ামী লীগের প্রার্থী তানিয়া সুলতানা হ্যাপী  জানালেন, সকাল-বিকাল ও রমজানে মধ্যরাতে কটিয়াদী উপজেলার নৌকার সমর্থক প্রতিটি নেতাকর্মীর বাড়িতে বাড়িতে গণসংযোগ করেছি। তারা সবাই আমাকেই (নৌকা) ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করবে। নৌকার বিজয় কেউ ঠেকাতে পারবে না জানিয়ে তিনি আরো বলেন, এটি একটি স্থানীয় সরকার নির্বাচন। আমি তরুণ প্রজন্মের নারী প্রার্থী। তাই আমি প্রত্যাশা করি নারীদের ভোটেই আমি উপজেলা পরিষদে নির্বাচনে বিজয় লাভ করবো, ইনশাআল্লাহ।

এদিকে এই উপজেলায় আওয়ামী লীগের তিন বিদ্রোহী প্রার্থীও রয়েছে। তারাও তাদের সমর্থকদের নিয়ে গণসংযোগ করে যাচ্ছেন। সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও বঙ্গবন্ধু পরিষদ কটিয়াদী উপজেলা শাখার সভাপতি লায়ন মো. আলী আকবর (দোয়াত কলম) তার সমর্থকদের নিয়ে হাটবাজারে গণসংযোগ। চেয়ারম্যান প্রার্থী লায়ন মো. আলী আকবর জানান, একটি সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন দেখতে চাই। নির্বাচনকে ঘিরে যাতে কাউকে হয়রানি করা না হয়  । সরকারের পাশাপাশি নির্বাচন কমিশনের কাছে আমাদের এটাই প্রত্যাশা। তবে আমি আশাবাদী আমাকে এই উপজেলায় আবারো উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত করবে জনগন।


অন্যদিকে গণসংযোগ করতে বাদ পড়ছে না সাবেক ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতা ডা. মুস্তাকুর রহমান (ঘোড়া) । তিনিও তার অনুসারীদের এলাকায় গণসংযোগ শুরু করেছেন। এরই মধ্যে মাইকিং ও কর্মীদের নিয়ে মাঠে নেমে কাজ করেছেন। স্বতন্ত্র প্রার্থী ডা. মোস্তাক রহমান বলেন, গেল ২৪ মার্চ  নির্বাচন কমিশন সুন্দর ও সুষ্ঠু নির্বাচনের ভরসা দিয়েছিল। তবে তার পরিণাম ভাল হয়নি। এবারও প্রশাসন সুষ্ঠু নির্বাচনের  ভরসা দিচ্ছে, কিন্তু আমরা আস্থা পাচ্ছেন না। তিনি বলেন নির্বাচন সুষ্ঠু হলেও আমার জয় কেউ আটকে রাখতে পারবে না।

এই উপজেলা থেকে ধুলদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলতাব উদ্দিন শাহীন (মোটরসাইকেল) প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। যদিও তিনি নিরবে প্রচারণা চালাচ্ছেন। তাছাড়া শহিদুজ্জামান স্বপন (গোলাপ ফুল) ও আনার হোসেন রানা (আনারস) চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বলে জানা গেছে।


ভাইস চেয়ারম্যান পদে রয়েছেন ছয়জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে তিন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। গেল ২৪ মার্চ তৃতীয় ধাপে  এ উপজেলায় পঞ্চম ধাপে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। নির্বাচনের আগের রাতে ৫টি কেন্দ্রে জাল ভোটের অভিযোগে ৮৯টি কেন্দ্রই স্থগিত করে নির্বাচন কমিশন।

কটিয়াদী উপজেলায় মোট ভোটার ২ লাখ ৩০ হাজার ৪২২ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ১৩ হাজার ৬১৮ জন এবং মহিলা ভোটার ১ লাখ ১৬ হাজার ৮২২ জন। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৬ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ছিলেন।

চেয়ারম্যান পদের প্রার্থীরা হলেন, আওয়ামী লীগ প্রার্থী কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগের সহ তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক তানিয়া সুলতানা হ্যাপী (নৌকা), জাকের পার্টির প্রার্থী শহীদুজ্জামান স্বপন (গোলাপ ফুল), আওয়ামী লীগের তিন বিদ্রোহী সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান লায়ন মো. আলী আকবর (দোয়াত-কলম), আওয়ামী লীগ নেতা মো. আলতাফ উদ্দীন (মোটর সাইকেল) ও ডা. মোহাম্মদ মুশতাকুর রহমান (ঘোড়া) এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আনোয়ার আনার (আনারস)।

কটিয়াদী উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬ প্রার্থী হলেন, রেজাউল করিম শিকদার (তালা), মো. বকুল মিঞা (টিউবওয়েল), সদরুল হক (বৈদ্যুতিক বাল্ব), মজিবুর রহমান (টিয়া পাখি), মো. কামরুজ্জামান (মাইক) এবং মো. আবুল কালাম (উড়োজাহাজ)।

কটিয়াদী উপজেলায় মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ প্রার্থী হলেন, সাথী বেগম (কলস), রোকসানা (ফুটবল) এবং মোসা. নওরীন সুলতানা (হাঁস)।

কটিয়াদী উপজেলা নির্বাচন : প্রচারণায় এগিয়ে তানিয়া, নিরবে বিদ্রোহীরা

প্রতিবেদক নাম: জেলা প্রতিনিধি।। প্রতিদিনের কাগজ ,

প্রকাশের সময়ঃ ১৩ জুন ২০১৯, ০২:০১ পিএম

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলা পরিষদের নির্বাচন স্থগিত হওয়ার পর আগামী ১৮ জুন মঙ্গলবার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনকে সামনে রেখে নির্বাচন অফিসও সজাগ রয়েছে । তবে প্রার্থীরা এরই মধ্যে ভোটারদের ঘরে ঘরে দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন। গণসংযোগে ব্যস্ত সময় পার করছেন কেউ কেই।

এই উপজেলায়  আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকার প্রার্থী কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগের সহ-তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক তানিয়া সুলতানা হ্যাপী এরই মধ্যে নির্বাচনে মাঠ জমিয়ে তুলেছেন। বিভিন্ন স্থানে গণসংযোগ,মিটিং মিছিল থেকে শুরু করে শোভাযাত্রা করে যাচ্ছেন। বাদ নেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে প্রচার-প্রচারণা। ফেসবুকেও পুড়ো দমে প্রচারণা চালাচ্ছেন তিনি।   

এই ব্যাপারে কটিয়াদী নির্বাচন কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম জানালেন, নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি বাড়ানোর লক্ষ্যে উপজেলা জুড়ে ব্যাপকভাবে মাইকিং করা হবে। গেল ২৪ মার্চ অনুষ্ঠিত ভোটের অভিযুক্ত পাঁচটি কেন্দ্রের কর্মকর্তাদের কেন্দ্র পরিবর্তন করে অন্যত্র দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে বলে জানিয়ে নির্বাচন কর্মকর্তা আরো বলেন, নির্বাচন কমিশনের নির্ধারন করবে সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশে ভোট অনুষ্ঠিত হবে।

আওয়ামী লীগের প্রার্থী তানিয়া সুলতানা হ্যাপী  জানালেন, সকাল-বিকাল ও রমজানে মধ্যরাতে কটিয়াদী উপজেলার নৌকার সমর্থক প্রতিটি নেতাকর্মীর বাড়িতে বাড়িতে গণসংযোগ করেছি। তারা সবাই আমাকেই (নৌকা) ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করবে। নৌকার বিজয় কেউ ঠেকাতে পারবে না জানিয়ে তিনি আরো বলেন, এটি একটি স্থানীয় সরকার নির্বাচন। আমি তরুণ প্রজন্মের নারী প্রার্থী। তাই আমি প্রত্যাশা করি নারীদের ভোটেই আমি উপজেলা পরিষদে নির্বাচনে বিজয় লাভ করবো, ইনশাআল্লাহ।

এদিকে এই উপজেলায় আওয়ামী লীগের তিন বিদ্রোহী প্রার্থীও রয়েছে। তারাও তাদের সমর্থকদের নিয়ে গণসংযোগ করে যাচ্ছেন। সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও বঙ্গবন্ধু পরিষদ কটিয়াদী উপজেলা শাখার সভাপতি লায়ন মো. আলী আকবর (দোয়াত কলম) তার সমর্থকদের নিয়ে হাটবাজারে গণসংযোগ। চেয়ারম্যান প্রার্থী লায়ন মো. আলী আকবর জানান, একটি সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন দেখতে চাই। নির্বাচনকে ঘিরে যাতে কাউকে হয়রানি করা না হয়  । সরকারের পাশাপাশি নির্বাচন কমিশনের কাছে আমাদের এটাই প্রত্যাশা। তবে আমি আশাবাদী আমাকে এই উপজেলায় আবারো উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত করবে জনগন।


অন্যদিকে গণসংযোগ করতে বাদ পড়ছে না সাবেক ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতা ডা. মুস্তাকুর রহমান (ঘোড়া) । তিনিও তার অনুসারীদের এলাকায় গণসংযোগ শুরু করেছেন। এরই মধ্যে মাইকিং ও কর্মীদের নিয়ে মাঠে নেমে কাজ করেছেন। স্বতন্ত্র প্রার্থী ডা. মোস্তাক রহমান বলেন, গেল ২৪ মার্চ  নির্বাচন কমিশন সুন্দর ও সুষ্ঠু নির্বাচনের ভরসা দিয়েছিল। তবে তার পরিণাম ভাল হয়নি। এবারও প্রশাসন সুষ্ঠু নির্বাচনের  ভরসা দিচ্ছে, কিন্তু আমরা আস্থা পাচ্ছেন না। তিনি বলেন নির্বাচন সুষ্ঠু হলেও আমার জয় কেউ আটকে রাখতে পারবে না।

এই উপজেলা থেকে ধুলদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলতাব উদ্দিন শাহীন (মোটরসাইকেল) প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। যদিও তিনি নিরবে প্রচারণা চালাচ্ছেন। তাছাড়া শহিদুজ্জামান স্বপন (গোলাপ ফুল) ও আনার হোসেন রানা (আনারস) চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বলে জানা গেছে।


ভাইস চেয়ারম্যান পদে রয়েছেন ছয়জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে তিন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। গেল ২৪ মার্চ তৃতীয় ধাপে  এ উপজেলায় পঞ্চম ধাপে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। নির্বাচনের আগের রাতে ৫টি কেন্দ্রে জাল ভোটের অভিযোগে ৮৯টি কেন্দ্রই স্থগিত করে নির্বাচন কমিশন।

কটিয়াদী উপজেলায় মোট ভোটার ২ লাখ ৩০ হাজার ৪২২ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ১৩ হাজার ৬১৮ জন এবং মহিলা ভোটার ১ লাখ ১৬ হাজার ৮২২ জন। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৬ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ছিলেন।

চেয়ারম্যান পদের প্রার্থীরা হলেন, আওয়ামী লীগ প্রার্থী কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগের সহ তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক তানিয়া সুলতানা হ্যাপী (নৌকা), জাকের পার্টির প্রার্থী শহীদুজ্জামান স্বপন (গোলাপ ফুল), আওয়ামী লীগের তিন বিদ্রোহী সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান লায়ন মো. আলী আকবর (দোয়াত-কলম), আওয়ামী লীগ নেতা মো. আলতাফ উদ্দীন (মোটর সাইকেল) ও ডা. মোহাম্মদ মুশতাকুর রহমান (ঘোড়া) এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আনোয়ার আনার (আনারস)।

কটিয়াদী উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬ প্রার্থী হলেন, রেজাউল করিম শিকদার (তালা), মো. বকুল মিঞা (টিউবওয়েল), সদরুল হক (বৈদ্যুতিক বাল্ব), মজিবুর রহমান (টিয়া পাখি), মো. কামরুজ্জামান (মাইক) এবং মো. আবুল কালাম (উড়োজাহাজ)।

কটিয়াদী উপজেলায় মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ প্রার্থী হলেন, সাথী বেগম (কলস), রোকসানা (ফুটবল) এবং মোসা. নওরীন সুলতানা (হাঁস)।