২১, জুলাই, ২০১৯, রোববার | | ১৮ জ্বিলকদ ১৪৪০


বন্ধ হয়ে গেল গুগলের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ‘গুগল প্লাস’

রিপোর্টার নামঃ নিজস্ব প্রতিবেদক প্রতিদিনের কাগজ | আপডেট: ০৩ এপ্রিল ২০১৯, ১০:৪১ এএম

বন্ধ হয়ে গেল গুগলের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ‘গুগল প্লাস’
বন্ধ হয়ে গেল গুগলের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ‘গুগল প্লাস’

বন্ধ হয়ে গেল সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট গুগলের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ‘গুগল প্লাস’। গতকাল মঙ্গলবার থেকে গুগল প্লাসের ব্যবহার কারীরা এটি ব্যবহার করতে পারছেন না।

গত মাসের মাঝামাঝি সময়ে গুগল প্লাস বন্ধ করে দেয়ার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে গুগল। সে সময় বলা হয়, ২ এপ্রিল থেকে ব্যবহারকারীদের তথ্য মুছে ফেলার প্রক্রিয়া শুরু হবে।

গুগল প্লাস তার ব্যবহারকারীদের তথ্যে সুরক্ষা নিশ্চিত করতে না পারায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে জানিয়ে বিবৃতিতে বলা হয়, গুগলের কোনো সেবায় তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপের সুযোগ নেই। কিন্তু অ্যাপ ডেভেলপারদের ত্রুটির কারণে গুগল প্লাস ব্যবহারকারীদের তথ্যের সুরক্ষায় অনিশ্চয়তা ধরা পড়েছে।

তবে এখনো পর্যন্ত কোনো ব্যবহারকারীর তথ্যের অপব্যবহার হয়েছে বলে কোনো প্রমাণ পায়নি গুগল। কিন্তু প্রায় ৫ কোটি ২৫ লাখ ব্যবহারকারীর তথ্যে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছিল।

গুগল জানিয়েছেন, গত নভেম্বর মাসে সফটওয়্যার আপডেট করার সময় গুগল তাদের সফটওয়্যারে ‘বাগ’ (ত্রুটি) দেখতে পায়। ওই বাগ গুগল প্লাসের এপিআইকে ক্ষতিগ্রস্ত করছে। গুগলের কাছে যে বাগ ধরা পড়েছে তা তাদের সৃষ্ট নয়। তৃতীয় পক্ষ ব্যবহারকারীদের তথ্য লোপাটের জন্য গুগল প্লাসে হস্তক্ষেপ করছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ফেসবুক ও টুইটারকে টেক্কা দিতে আট বছর আগে ২০১১ সালে এই সামাজিক যোগাযোগ নেটওয়ার্কটি চালু করেছিল গুগল। সাইটটি জনপ্রিয় করার নানা প্রচেষ্টায় ব্যর্থতা ও গত বছরের শেষ নাগাদ নিরাপত্তা ত্রুটি ধরা পড়ার পর এটি বন্ধ করে দেয়ার ঘোষণা দেয়া হয়।

বন্ধ হয়ে গেল গুগলের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ‘গুগল প্লাস’

প্রতিবেদক নাম: নিজস্ব প্রতিবেদক প্রতিদিনের কাগজ ,

প্রকাশের সময়ঃ ০৩ এপ্রিল ২০১৯, ১০:৪১ এএম

বন্ধ হয়ে গেল সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট গুগলের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ‘গুগল প্লাস’। গতকাল মঙ্গলবার থেকে গুগল প্লাসের ব্যবহার কারীরা এটি ব্যবহার করতে পারছেন না।

গত মাসের মাঝামাঝি সময়ে গুগল প্লাস বন্ধ করে দেয়ার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে গুগল। সে সময় বলা হয়, ২ এপ্রিল থেকে ব্যবহারকারীদের তথ্য মুছে ফেলার প্রক্রিয়া শুরু হবে।

গুগল প্লাস তার ব্যবহারকারীদের তথ্যে সুরক্ষা নিশ্চিত করতে না পারায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে জানিয়ে বিবৃতিতে বলা হয়, গুগলের কোনো সেবায় তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপের সুযোগ নেই। কিন্তু অ্যাপ ডেভেলপারদের ত্রুটির কারণে গুগল প্লাস ব্যবহারকারীদের তথ্যের সুরক্ষায় অনিশ্চয়তা ধরা পড়েছে।

তবে এখনো পর্যন্ত কোনো ব্যবহারকারীর তথ্যের অপব্যবহার হয়েছে বলে কোনো প্রমাণ পায়নি গুগল। কিন্তু প্রায় ৫ কোটি ২৫ লাখ ব্যবহারকারীর তথ্যে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছিল।

গুগল জানিয়েছেন, গত নভেম্বর মাসে সফটওয়্যার আপডেট করার সময় গুগল তাদের সফটওয়্যারে ‘বাগ’ (ত্রুটি) দেখতে পায়। ওই বাগ গুগল প্লাসের এপিআইকে ক্ষতিগ্রস্ত করছে। গুগলের কাছে যে বাগ ধরা পড়েছে তা তাদের সৃষ্ট নয়। তৃতীয় পক্ষ ব্যবহারকারীদের তথ্য লোপাটের জন্য গুগল প্লাসে হস্তক্ষেপ করছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ফেসবুক ও টুইটারকে টেক্কা দিতে আট বছর আগে ২০১১ সালে এই সামাজিক যোগাযোগ নেটওয়ার্কটি চালু করেছিল গুগল। সাইটটি জনপ্রিয় করার নানা প্রচেষ্টায় ব্যর্থতা ও গত বছরের শেষ নাগাদ নিরাপত্তা ত্রুটি ধরা পড়ার পর এটি বন্ধ করে দেয়ার ঘোষণা দেয়া হয়।