১৮, আগস্ট, ২০১৯, রোববার | | ১৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০


ডাকসু নির্বাচন কলঙ্কিত করার ষড়যন্ত্রকারীরা গণতন্ত্রের কাছে পরাজিত হয়েছে: কাওসার

রিপোর্টার নামঃ মতামত ডেস্ক: | আপডেট: ১৪ মার্চ ২০১৯, ১২:২০ পিএম

ডাকসু নির্বাচন কলঙ্কিত করার ষড়যন্ত্রকারীরা গণতন্ত্রের কাছে পরাজিত হয়েছে: কাওসার
ডাকসু নির্বাচন কলঙ্কিত করার ষড়যন্ত্রকারীরা গণতন্ত্রের কাছে পরাজিত হয়েছে: কাওসার

স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মোল্লা মো. আবু কাওসার বলেছেন, স্বাধীনতাবিরোধী এবং গণতন্ত্রবিরোধী কুচক্রী মহল ডাকসু নির্বাচন কলঙ্কিত করার ষড়যন্ত্র করেছিলো, কিন্তু কুচক্রীরা ষড়যন্ত্রকারীরা গণতন্ত্রের কাছে পরাজিত হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং ডাকসুর ঐতিহাসিক গৌরব জয়লাভ করেছে বলে তিনি মনে করেন।

তিনি বলেন, দ্বিতীয় পার্লামেন্টখ্যাত ডাকসু হচ্ছে আমাদের জাতীয় নেতৃত্ব তৈরির কারখানা। নেতৃত্ব তৈরির এই কারখানাটি টানা ২৮ বছর বন্ধ থাকার পরে, জাতির পিতা বঙ্গন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেই কারখানাটি পুনরায় চালু করেছেন। যেটা অন্য কোনো সরকার করেনি। নতুন নেতা তৈরির জন্য নির্বাচন আয়োজন করে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করেছেন। কিন্তু একটি কুচক্রী মহল জাতীয় নির্বাচনে একটি নিশ্চিত বিজয়কে যেভাবে প্রশ্নবিদ্ধ করে গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে কালিমালিপ্ত করার অপচেষ্টা করেছিলো, ঠিক একইভাবে ডাকসু নির্বাচনকেও সেই কুচক্রী মহল ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে কলঙ্কিত করার অপচেষ্টা করছে।

এক প্রশ্নের জবাবে এই নেতা বলেন, আমি বিশ্বাস করি না ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা প্রশ্নবিদ্ধভাবে নির্বাচিত হওয়ার চেষ্টা করবে। যারা গণতন্ত্র বিশ্বাস করে না এবং নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে চায়, তারাই ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে। আমি মনে করি, সদ্য সমাপ্ত এই নির্বাচনের মধ্য দিয়ে ডাকসুর যে শুভযাত্র শুরু হয়েছে, এই যাত্রা বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে আরো বেশি ত্বরান্বিত করবে এবং জাতীয় রাজনীতিতে নতুন নতুন নেতা উপহার দেবে।

তিনি বলেন, ইতিহাস খুঁজলে দেখা যায় এখন পর্যন্ত ডাকসু নির্বাচনের নির্বাচনী প্রক্রিয়া কোনোদিন কলঙ্কিত হয়নি।  নির্বাচনী প্রক্রিয়া সবসময় স্বচ্ছ ছিলো এবং এবারও তেমনটাই আছে। আমাদের সকলের মনে রাখতে হবে ডাকসু নির্বাচন আয়োজন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এবং নির্বাচনী তদারকিতে ছিলো শিক্ষকরা, তাই কথা বলার আগে আমাদের হিসেব করে বলা উচিত।

লেখক: লিয়ন মীর

ডাকসু নির্বাচন কলঙ্কিত করার ষড়যন্ত্রকারীরা গণতন্ত্রের কাছে পরাজিত হয়েছে: কাওসার

প্রতিবেদক নাম: মতামত ডেস্ক: ,

প্রকাশের সময়ঃ ১৪ মার্চ ২০১৯, ১২:২০ পিএম

স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মোল্লা মো. আবু কাওসার বলেছেন, স্বাধীনতাবিরোধী এবং গণতন্ত্রবিরোধী কুচক্রী মহল ডাকসু নির্বাচন কলঙ্কিত করার ষড়যন্ত্র করেছিলো, কিন্তু কুচক্রীরা ষড়যন্ত্রকারীরা গণতন্ত্রের কাছে পরাজিত হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং ডাকসুর ঐতিহাসিক গৌরব জয়লাভ করেছে বলে তিনি মনে করেন।

তিনি বলেন, দ্বিতীয় পার্লামেন্টখ্যাত ডাকসু হচ্ছে আমাদের জাতীয় নেতৃত্ব তৈরির কারখানা। নেতৃত্ব তৈরির এই কারখানাটি টানা ২৮ বছর বন্ধ থাকার পরে, জাতির পিতা বঙ্গন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেই কারখানাটি পুনরায় চালু করেছেন। যেটা অন্য কোনো সরকার করেনি। নতুন নেতা তৈরির জন্য নির্বাচন আয়োজন করে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করেছেন। কিন্তু একটি কুচক্রী মহল জাতীয় নির্বাচনে একটি নিশ্চিত বিজয়কে যেভাবে প্রশ্নবিদ্ধ করে গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে কালিমালিপ্ত করার অপচেষ্টা করেছিলো, ঠিক একইভাবে ডাকসু নির্বাচনকেও সেই কুচক্রী মহল ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে কলঙ্কিত করার অপচেষ্টা করছে।

এক প্রশ্নের জবাবে এই নেতা বলেন, আমি বিশ্বাস করি না ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা প্রশ্নবিদ্ধভাবে নির্বাচিত হওয়ার চেষ্টা করবে। যারা গণতন্ত্র বিশ্বাস করে না এবং নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে চায়, তারাই ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে। আমি মনে করি, সদ্য সমাপ্ত এই নির্বাচনের মধ্য দিয়ে ডাকসুর যে শুভযাত্র শুরু হয়েছে, এই যাত্রা বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে আরো বেশি ত্বরান্বিত করবে এবং জাতীয় রাজনীতিতে নতুন নতুন নেতা উপহার দেবে।

তিনি বলেন, ইতিহাস খুঁজলে দেখা যায় এখন পর্যন্ত ডাকসু নির্বাচনের নির্বাচনী প্রক্রিয়া কোনোদিন কলঙ্কিত হয়নি।  নির্বাচনী প্রক্রিয়া সবসময় স্বচ্ছ ছিলো এবং এবারও তেমনটাই আছে। আমাদের সকলের মনে রাখতে হবে ডাকসু নির্বাচন আয়োজন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এবং নির্বাচনী তদারকিতে ছিলো শিক্ষকরা, তাই কথা বলার আগে আমাদের হিসেব করে বলা উচিত।

লেখক: লিয়ন মীর